bangla news

বইমেলায় রাহুল সাংকৃত্যায়নের ৩০টি বইয়ের সেট!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২-০২-২৩ ৫:৫০:৪৩ এএম

অবাক করার মতো হলেও সত্যি যে, পাক-ভারত উপমহাদেশের প্রখ্যাত ও প্রথিতযশা বুদ্ধিজীবী রাহুল সাংকৃত্যায়নের ৩০টি বইয়ের সেট বাংলা একাডেমী আয়োজিত এবারের একুশের বইমেলায় পাওয়া যাচ্ছে।

ঢাকা: অবাক করার মতো হলেও সত্যি যে, পাক-ভারত উপমহাদেশের প্রখ্যাত ও প্রথিতযশা বুদ্ধিজীবী রাহুল সাংকৃত্যায়নের ৩০টি বইয়ের সেট বাংলা একাডেমী আয়োজিত এবারের একুশের বইমেলায় পাওয়া যাচ্ছে।

রুক্কু শাহ ক্রিয়েটিভ পাবলিশার্স এ বইগুলো বাজারে এনেছে। গত বছরের একুশের বইমেলায় এই পাবলিশার্স রাহুল সাংকৃত্যায়নের ১৮টি বই প্রকাশ করেছিল। গতবারের ১৮টি এবং এবারের ১২টিসহ রাহুল সাংকৃত্যায়নের মোট ৩০টি বই এবার তারা প্রকাশ করেছে। রাহুল সাংকৃত্যায়ন মূলত হিন্দি ভাষার লেখক ছিলেন। সব বইগুলিই বাংলায় অনূদিত।  

প্রকাশক মো. আমজাদ হোসেন খান (জামাল) বাংলানিউজকে জানান, মহাপণ্ডিত রাহুল সাংকৃত্যায়নের ১৮টি বইয়ের প্রত্যেকটির ৪০ থেকে ৫০ কপি করে ছাপানো হলে এবারের বইমেলার আগেই তা শেষ হয়ে যায়। বরং পাঠকদের কাছ থেকে ক্রমাগত চাপের মুখে পড়ে তিনি গতবারের ১৮টিসহ এবার আরও ১২টি বই প্রকাশ করেছেন। বইগুলো বইমেলার নিয়ম অনুযায়ী শতকরা ২৫ ভাগ কমিশন দিয়ে বিক্রি করা ছাড়াও ৩০টি বইয়ের সেট কিনলে বিশেষ বিবেচনায় আরও বেশি কমিশন দেওয়া হয়।

রুক্কু শাহ ক্রিয়েটিভ পাবলিশার্সের কর্ণধার মো. আমজাদ (জামাল) আরও জানান, রাহুল সাংকৃত্যায়নের প্রকাশিত ৩০টি বইয়েরই ভূমিকা লিখেছেন  বাংলাদেশের আরেক প্রথিতযশা বুদ্ধিজীবী অধ্যাপক যতীন সরকার।  

তাদের স্টলে রাহুল সাংকৃত্যায়নের যে বইগুলি পাওয়া যাচ্ছে, সেগুলি হচ্ছে, দর্শন দিক্-দর্শন-১ (২৬০টাকা), দর্শন দিক্-দর্শন-২ (২৬০টাকা), মানব সমাজ (৩০০টাকা), নতুন মানব সমাজ (১০০টাকা), ভোলগা থেকে গঙ্গা (২৭৫টাকা), ইসলাম ধর্মের রূপরেখা (১৫০টাকা), বৈজ্ঞানিক বস্তুবাদ (১৬০টাকা), ভবঘুরে শাস্ত্র (১৬০টাকা), বৌদ্ধ দর্শন (১৮০টাকা), মহামানব বুদ্ধ (১৫০টাকা), মাও সে-তুঙ (২৮০টাকা), আকবর (৪০০টাকা), স্তালিন (২৮০টাকা), সিংহ সেনাপতি (১৮০টাকা), কমিউনিজম ও ভাবীকাল (১৮০টাকা), ভাগো নেহি দুনিয়াকো বদলো (২৮০টাকা),  তিব্বতে সওয়া বছর (২৫০), ইরান (২০০টাকা), বিস্মৃত যাত্রী (২২০),  জয় যৌধেয় (২৬০টাকা), এশিয়ার দুর্গম ভূখণ্ডে (১৮০টাকা), বহুরঙ্গী মধুপুরী (২৮০টাকা),  তোমার ক্ষয় (১০০টাকা), আজকের সমস্যাবলী (১০০টাকা), মধ্য  এশিয়া (১৫০টাকা), মানুষের কাহিনী (১৮০টাকা), কিন্নর দেশে (২০০টাকা), চেতনার দাসত্ব (১২০টাকা), আমার লাদাখ যাত্রা (১৬০টাকা), ভারতে বৌদ্ধধর্মের উত্থান পতন (৫০টাকা)।

এছাড়া আরও ১০টি বই প্রকাশের অপেক্ষায় রয়েছে। তবে সেগুলো বইমেলা শেষ হওয়ার আগেই বাজারে আসবে কিনা তা তিনি নিশ্চিত করে বলতে পারেননি। প্রকাশিতব্য বইগুলি হচ্ছে- রামরাজ্য ও মার্কসবাদ, ঘুমক্কড় শাস্ত্র, আজম গড় কা পুরাকথা, অতীত সে বর্তমান, সতমী কে বঁচ্চে, কনৈলা কী কথা, জিন কী লিয়ে, স্মৃতির অন্তরালে, সপ্তসিন্ধু, অগ্নিস্বাক্ষর, উত্তরাংশ ও মধুর স্বপ্ন।   

রাহুল সাংকৃত্যায়নে বই বিক্রিতে কীরকম সাড়া মিলছে জানতে চাইলে প্রকাশক জামাল বাংলানিউজকে বলেন, ‘অপূর্ব! আমি ভাবতেও পারিনি যে, এই বইগুলি এত বিক্রি হতে পারে! মূলত সিরিয়াস পাঠকরা এ বইগুলো পড়েন ও তারাই কিনছেন। রাহুল সাংকৃত্যায়নের বইয়ের যে এত পাঠক রয়েছেন, তা আগে আমার জানা ছিল না। আমি তার আরও বই খুঁজছি এবং খুব শিগগিরই তার আরও ১০টি বই প্রকাশ করবো।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের বাজারে রাহুল সাংকৃত্যায়নের ভোলগা থেকে গঙ্গাসহ হাতেগোনা কয়েকটি বই বাজারে পাওয়া যায়। কিন্তু এর আগে তার এত বই বাংলাদেশে আর প্রকাশিত হয়নি।’

কিন্তু রাহুল সাংকৃত্যায়নের এত বই প্রকাশের তাগাদা কোথা থেকে পেলেন এ প্রশ্নের উত্তরে প্রকাশক জামাল বলেন, ‘আসলে ১৯৯৪ সাল থেকে বাংলাবাজারে রুক্কু শাহ কম্পিউটার্স নামে বাংলাবাজারে আমার দোকান ছিল। সেখান থেকে প্রায় ৭/৮শ বই কম্পোজ হয়ে বাজারে প্রকাশিত হয়েছে। তখন অধ্যাপক যতীন সরকারের সঙ্গে আমার পরিচয় হয়। তার কয়েকটি বই প্রকাশের সুযোগ ঘটে আমার। সে সুবাদে ২০১০ সালে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে শুয়েই তিনি আমাকে বলেছিলেন- তুমি যদি রাহুল সাংকৃত্যায়নের বই ছেপে প্রকাশ করো, তাহলে আমি তো এখন এতই অসুস্থ যে, কলম ধরে লিখতে পারিনা। কিন্তু তারপরও আমি সে বইগুলোর ভূমিকা লিখে দেবো। তারপর স্যারের কথা অনুযায়ী, আমি রাহুল সাংকৃত্যায়নের বই প্রকাশের উদ্যোগ গ্রহণ করি। কিন্তু এত যে সাড়া পাবো, তা আমি ভাবতেও পারিনি।’

এবার রাহুল সাংকৃত্যায়নের কত বই বিক্রি হয়েছে, প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘এ কয়েক দিনে রাহুল সাংকৃত্যায়নের ১২/১৩শ বই বিক্রি হয়ে গেছে এবং প্রতিদিন তা বেশ বিক্রি হচ্ছে। আপনাকে না বললেই নয় যে, রাহুলের বই কেনার জন্য সারাদেশ থেকেই অনেকে আমাকে ফোন দিচ্ছেন যে, তাদের বই দিতেই হবে। অনেকেই ফোন করে বইয়ের অর্ডারও দিচ্ছেন।

কারা রাহুল সাংকৃত্যায়নের বই বেশি কিনছেন জানতে চাইলে মো. আমজাদ হোসেন খান জামাল বলেন, ‘সারাদেশ থেকেই বই বিক্রির অর্ডার পাচ্ছি। এর মধ্যে চট্টগ্রামের কয়েকটি বুকশপ (লাইব্রেরি হিসেবে পরিচিত) যেমন গাজী প্রকাশনী, বাতিঘর বইয়ের অর্ডার দিয়েছে। এ ছাড়া চট্টগ্রাম, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবান থেকে বই বিক্রির তাগাদা বেশি পেয়েছি। এর কারণ বোধ হয়, বৌদ্ধ ধর্মের ওপর রাহুল সাংকৃত্যায়ন বই লিখেছেন। তাছাড়া তিনি নিজে বৌদ্ধধর্মাবলম্বী হয়েও মার্কসবাদে দীক্ষা নিয়েছিলেন। ফলে, দর্শন সম্পর্কে তার পাণ্ডিত্য ছিল অগাধ। তাই, সিরিয়াস পাঠকরা সব সময়ই তার বইয়ের দিকে ঝুঁকেছেন বেশি। তবে, ইদানিং তার বই বেশি বিক্রি হওয়াতে আমি আরও বেশি অবাক হয়েছি।’

তিনি আরও জানালেন, ‘আপনাকে মজার কথাটা না বললেই নয় যে, গতবার বই মেলায় বান্দরবান থেকে এক পাঠক এসে বই কেনার পর রাহুল সাংকৃত্যায়নের বই দেখে আমাকে আরও বইয়ের অর্ডার দেন। কিন্তুতখন আমি তাকে বললাম, বাকি বইগুলো আসতে আরও সপ্তাহখানেক সময় লাগবে। তখন তিনি আমাকে বলেন, দরকার হলে আমি আরও সপ্তাহখানেক ঢাকায় থেকে বইগুলো নিয়ে যাবো। তবুও আপনি আমাকে বাকিগুলো দেবেন।

প্রকাশক জামাল বলেন, ‘প্রথমে তার কথার তেমন একটা গুরুত্ব দেই নি। তারপর যখন কয়েকদিন পর বার বার আমাকে ফোন দিতে থাকেন, তখন আমি তার কারণে বাকি বইগুলো তাগাদা দিয়ে বাইন্ডিং করে বইমেলায় নিয়ে আসি। সেই পাঠক একসপ্তাহ ঢাকায় থেকে রাহুল সাংকৃত্যায়নের বাকি বইগুলো নিয়ে তারপর বান্দরবান ফিরে যান। এবারও এরকম ঘটনা ঘটেছে। বেশ কয়েকজন পাঠক রাহুল সাংকৃত্যায়নের ৩০টি বইয়ের সেট ধরে কিনে নিয়ে গেছেন। কেউ কেউ ফোন দিয়ে জানিয়েছেন, তার জন্য বইয়ের সেটগুলো যেন রাখি!’

রাহুল সাংকৃত্যায়নের আরও বই কি প্রকাশ করবেন, এ প্রশ্নের জবাবে প্রকাশক জামাল বলেন, ‘অবশ্যই! আমি তার আরও বই খুঁজছি। পেলে অবশ্যই প্রকাশ করবো।’

তিনি জানান, ‘আমার জানা মতে, রাহুল সাংকৃত্যায়ন ১৭০টি বই লিখেছেন। এর মধ্যে ভারত-বাংলাদেশ মিলে প্রায় ৪০টি বইয়ের বাংলা অনুবাদ প্রকাশিত হয়েছে বলে খবর পেয়েছি। বাকিগুলো খুঁজছি। খুঁজে পেলে রাহুল সাংকৃত্যায়নের সব বইই প্রকাশ করবো।’

রুক্কু শাহ ক্রিয়েটিভ পাবলিশার্স স্টলটি খুঁজে পেতেও সহজ। কারণ, বাংলা একাডেমীতে ঢোকার ৩টি গেট রয়েছে। মাঝের গেট দিয়ে ঢুকতেই হাতের বাঁ দিকে পড়বে স্টলটি (স্টল নম্বর -৬৩০)। সেখানে দেখা যাবে থরে থরে সাজানো রাহুল সাংকৃত্যায়নের অসাধরণ এই বইগুলি। এই প্রকাশনী অধ্যাপক যতীন সরকারেরও ২টি বই প্রকাশ করেছে। সেগুলি হচ্ছে- বাংলা কবিতার মূল ধারা এবং নজরুল (২০০টাকা) ও ভাবনার মুক্ত বাতায়ন (২২০টাকা)।

যারা বইমেলা ছাড়াও রাহুল সাংকৃত্যায়নের বইগুলো কিনতে চান, তাদের সুবিধার্থে রুক্কু শাহ ক্রিয়েটিভ পাবলিশার্সের ঠিকানা ও ফোন নম্বর এখানে দিয়ে দেওয়া হলো-

রুক্কু শাহ ক্রিয়েটিভ পাবলিশার্স, ৪৫, বাংলা বাজার, কম্পিউটার মার্কেট (৩য় তলা), ঢাকা। ফোন- ০১৭১১ ৭৩৮১৯২, ০১৯৩৪ ৫৫২৯৫৬

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১২

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

শিল্প-সাহিত্য বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
db 2012-02-23 05:50:43