ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

শিল্প-সাহিত্য

করোনা: নিলামে ৯৯ হাজার টাকায় বিক্রি নির্মলেন্দুর পাণ্ডুলিপি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১১৪ ঘণ্টা, মে ৯, ২০২০
করোনা: নিলামে ৯৯ হাজার টাকায় বিক্রি নির্মলেন্দুর পাণ্ডুলিপি

ঢাকা: ‘আমি বলছি না ভালোবাসতেই হবে, আমি চাই/কেউ একজন আমার জন্য অপেক্ষা করুক...’ কবি নির্মলেন্দু গুণের জনপ্রিয় কবিতা ‘তোমার চোখ এত লাল কেন’ এর শুরুটা এমনই। এই কবিতার হাতে লেখা পাণ্ডুলিপি নিলামে তুলেছিলেন তিনি। যা বিক্রি হয়েছে ৯৯ হাজার টাকায়। এ টাকা করোনাদুর্গত মানুষদের সহায়তার জন্য খরচ করা হবে।

শুক্রবার (৮ মে) ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে নির্মলেন্দু গুণ নিজেই জানিয়েছেন এ তথ্য।

তিনি লিখেছেন-‘করোনাদুর্গত মানুষদের সাহায্য করার উদ্দেশ্যে একটি মানবিক ত্রাণ সংগঠন অনলাইনে নিলামে বিক্রি করার জন্য আমার কাছে আমার একটি হস্তলিখিত কবিতার পাণ্ডুলিপি চেয়েছিলো।

প্রথমে আমি রাজি হইনি। ভেবেছিলাম যদি আমার কষ্ট করে কাগজের ওপর কলম দিয়ে লেখা কবিতাটি বিক্রি না হয়, কেউ যদি কবিতাটি কিনতে আগ্রহী না হয়? তবে তো আমার জন্য তা খুবই লজ্জার বিষয় হবে। আমি মেয়েকে বললাম, আমার কবিতা তো সাকিবের ব্যাট নয়। ওই সংগঠনের পক্ষ নিয়ে আমার কন্যা আমাকে বললো, তুমি দাও। বিক্রি না হলে না হবে। এখন তুমি যদি না দাও, তো নিলামে বিক্রি করে ফান্ড তৈরি করার জন্য উদ্যোগ গ্রহণকারীরা ভাববে, তুমি ওই সংগঠনের সঙ্গে সহযোগিতা করলে না।  
হ্যাঁ, তা ভাবতে পারে। ’

‘এই ভেবে আমি অনেক কষ্ট করে মোটা কাগজের ওপর একটু মোটা শিসের কলম দিয়ে আমার একটি মাঝারি আকৃতির জনপ্রিয় কবিতা লিখে- কবিতাটির ছবি তুলে আমার মেয়ের কাছে পাঠিয়ে দিলাম। আমার মেয়ে দ্রুতই আমার হস্তলিখিত ওই কবিতার পাণ্ডুলিপির একটি ফটো-কপি উদ্যোক্তাদের কাছে ই-মেইলে পাঠিয়ে দিলো। ফেসবুকের চেয়ে ই-মেইলে ছবির রেজুলেশন ভালো হয়। ’

কবি আরও লিখেন- ‘ঐ দিনই সমাজের বিভিন্ন সেলিব্রেটির কাছ থেকে পাওয়া সামগ্রীগুলো নিলামে তোলার শেষ দিন ছিলো। রাত বারোটার দিকে আমার কন্যা আমাকে ফোন করে বললো, বাবা তোমার কবিতাটির জন্য তুমি কতো টাকা আশা করেছিলে? আমি বললাম, এক লাখ টাকা। তাই? তুমি তো দেখছি খুবই দূরদর্শী। তোমার আশা তো প্রায়ই পূর্ণ হয়েছে। আমি বললাম, তবে প্রায়ই বলছো কেন? এক লাখ হয়নি? মেয়ে বললো না, তোমার কবিতাটি বিক্রি হয়েছে ৯৯ হাজার টাকায়। আমি খুব প্রাণ খুলে হাসলাম। বুঝলাম, যিনি কবিতাটি কিনেছেন, তার হয়তো ০ (শূন্য) সংখ্যাটি নিয়ে এলার্জি আছে। তাই ১ লাখের পরিবর্তে তিনি আমার কবিতাটির দাম হাঁকিয়েছেন ৯৯ হাজার টাকা। আমি জানতে চাইলাম- তোমার উদ্যোক্তা বন্ধুরা কি খুশি? মেয়ে বললো হ্যাঁ, ওরা খুব খুশিমনেই আমাকে এ খবরটা দিলো। ’

স্ট্যাটাসের শেষে তিনি পাঠকের উদ্দেশ্যে লিখেছেন, ‘বাংলা কবিতার নিলাম কি এটাই প্রথম। PoemVein কী বলে?’

বাংলাদেশ সময়: ১৩০৪ ঘণ্টা, মে ০৯, ২০২০
ডিএন/এমআইএইচ/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa