ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

শিল্প-সাহিত্য

রবীন্দ্রজয়ন্তীতে ছায়ানটের নিবেদন ‘ওই মহামানব আসে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৫-০৮ ১১:৩৫:১০ এএম
রবীন্দ্রজয়ন্তীতে ছায়ানটের নিবেদন ‘ওই মহামানব আসে’ রবীন্দ্রজয়ন্তীতে ছায়ানটের ইউটিউব চ্যানেলে ‘ওই মহামানব আসে’।

ঢাকা: আমাদের অস্তিত্বের প্রতিটি মুহূর্তে ও উপলব্ধিতে রবীন্দ্রনাথ চির জাগরূক। তার কথা, সুর, ছন্দ আমাদের জীবন রাঙায়। সব প্রতিকূলতা জয় করে সত্যের লাগি, সুন্দরের জন্য বাঁচতে শেখায়। রবীন্দ্রজয়ন্তীতে এমনই প্রণতি জানানো হলো ছায়ানটের বিশেষ আয়োজন ‘ওই মহামানব আসে’-তে। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারণে নিজস্ব মিলনায়তনের বদলে ইউটিউব চ্যানেলে এ আয়োজন প্রচার করে দেশের ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠনটি। এ আয়োজনের গ্রন্থনা করেন ছায়ানট সভাপতি সনজীদা খাতুন।

শুক্রবার (০৮ মে) সকাল সাড়ে ৯টায় ছায়ানটের ইউটিউব চ্যানেলে শুরু হয় এ আয়োজন। এর শুরুতেই সত্যম কুমার দেবনাথ গেয়ে শোনান ‘শুভ্র প্রভাতে পূর্বগগনে উদিল কল্যাণী শুকতারা’।

এরপর রবীন্দ্রজয়ন্তী উপলক্ষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ছায়ানট সভাপতি সনজীদা খাতুন বলেন, ‘বাঙালির সব সংগ্রামে রবীন্দ্রনাথ চিরকাল পথের সাথী। আজকের এ মহামারির দুর্দিনেও আমরা সেই চিরযাত্রীর সঙ্গে পা মিলিয়ে চলবো। অগ্রসর হবো নবীন অভ্যুদয়ের শুভক্ষণের দিকে। ’

অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন ছায়ানট সভাপতি সনজীদা খাতুন।  তারপর শিল্পী সেমন্তী মঞ্জুরি গেয়ে শোনান ‘তোমার আনন্দ ওই এলো দ্বারে, এলো এলো এলো গো’, সিফায়েত উল্লাহ মুকুল ‘হৃদয় শশী হৃদয় গগনে’, লাইসা আহমেদ লিসা ‘প্রভু আজি তোমার দখিন হাওয়া’। পরে সম্মিলিত কণ্ঠে গাওয়া হয় ‘আপন হতে বাহির হয়ে’ গানটি।

তারপর আবারও একক গানের পালা। মিতা হকের কণ্ঠে শোনা গেলো ‘পান্থ তুমি পান্থ জনে সখা’ ও মহিউজ্জামান চৌধুরী ময়নার কণ্ঠে ‘উড়িয়ে ধ্বজা অভ্রভেদী রথে/ ওই যে দিনি, ওই যে বাহির পথে’ গানটি। এরপর পাঠে অংশ নেন জয়ন্ত রায়।

সম্মিলিত কণ্ঠে ‘ওই মহামানব আসে’ গানের মধ্য দিয়ে শেষ হয় এ আয়োজন। পুরো আয়োজনে যন্ত্রে ছিলেন এনামুল হক ওমর ও রবিন্স চৌধুরী।

বাংলাদেশ সময়: ১১৩৫ ঘণ্টা, মে ০৮, ২০২০
ডিএন/এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa