ঢাকা, শনিবার, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ জুলাই ২০২২, ০১ জিলহজ ১৪৪৩

কৃষি

কৃষির উন্নয়নে কাজ করার আহ্বান বশেফমুবিপ্রবি ভিসির

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪১৬ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০২২
কৃষির উন্নয়নে কাজ করার আহ্বান বশেফমুবিপ্রবি ভিসির

জামালপুর: জামালপুরে প্রতিষ্ঠিত বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেফমুবিপ্রবি) আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।  এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ দেশের মৎস্য ও কৃষির উন্নয়নে গবেষকদের কাজ করার আহ্বান জানান।

মঙ্গলবার (২৪ মে) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ বিভাগের উদ্যোগে একাডেমিক ভবনের সম্মেলন কক্ষে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে সেমিনারে উপস্থিত হয়ে ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, কৃষি দেশের সামগ্রিক অর্থনীতির মূল চালিকা শক্তি। সনাতন কৃষিপদ্ধতি থেকে ক্রমাগত এর উন্নয়ন হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিক-নির্দেশনায় এখন কৃষিতে উৎপাদন বৃদ্ধি, আধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার, নানামুখী কৌশলে রোগবালাই দমণ, কৃত্রিম উপায়ে শাকসবজি ও মাছ চাষ, ছাদকৃষি প্রভৃতির মাধ্যমে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে এ খাতে। আর এক্ষেত্রে প্রধান ভূমিকা পালন করে চলেছেন কৃষি ও মৎস্যবিজ্ঞানীরা। তারা কৃষিক্ষেত্রে নতুন নতুন জাত উদ্ভাবন করেছেন।

তিনি বলেন, জামালপুর একটি কৃষিপ্রধান এলাকা। এখানেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের এ অঞ্চলের সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে কাজ করতে হবে। বিশেষ করে কৃষিখাত তথা দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ ও পুষ্টিনিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের নিরলস ভূমিকা থাকতে হবে।

সামসুদ্দিন আহমেদ বলেন, এখন ফিশারিজ বিভাগ চালু রয়েছে। নতুন বিশ্ববিদ্যাল নানা চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও গবেষণা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। পাশাপাশি শিক্ষার মানোন্নয়ন ও আধুনিকীকরণ এবং বর্তমান চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। ভবিষ্যতে এখানে কৃষি ও মৎস্যের উন্নয়নে যুগোপযোগী বিষয় চালু করা হবে।

‘স্থানীয় অর্থনীতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা: বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ইমপ্যাক্ট অব দ্য ইউনিভার্সিটি আপ অন লোকাল ইকোনমি: পটেনশিয়ালস অব বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ইউনিভার্সিটি, জামালপুর, বাংলাদেশ)’ শীর্ষক সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন- বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকুয়াকালচার বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মাহফুজুল হক। প্রবন্ধে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ কী এবং অর্থনীতিতে বিশ্ববিদ্যালয় কী ধরনের ভূমিকা রাখে সে বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

অন্যদিকে ভারতের (নয়াদিল্লি) গ্রামীণ বিকাশ ট্রাস্টের পরিচালক ও ইনচার্জ মি. দেবতনু বর্মণ বাংলাদেশের মৎস্য ও কৃষিখাতের সম্ভাবনাময় বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা বলেন।

ফিশারিজ বিভাগের চেয়ারম্যান ও সহকারী অধ্যাপক ড. আব্দুস ছাত্তারের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য দেন- বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. সুশান্ত কুমার ভট্টাচার্য।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৬ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০২২
জেডএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa