ঢাকা, শুক্রবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৮, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫ সফর ১৪৪৩

স্বাস্থ্য

বরিশালে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত ৮৯১, মৃত্যু ১২

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯৫৭ ঘণ্টা, জুলাই ১৯, ২০২১
বরিশালে একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত ৮৯১, মৃত্যু ১২

বরিশাল: বরিশাল বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় একদিনে ৮৯১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে, যা এ যাবতকালে সর্বোচ্চ। এ সময়ে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এর আগে গত ১৩ জুলাইয়ের প্রতিবেদনে বরিশাল বিভাগে সর্বোচ্চ ৮৭৯ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছিল।  

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সর্বশেষ শনাক্তের মধ্য দিয়ে বরিশাল বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৬ হাজার ৭৭৮ জনে।

পাশাপাশি একই সময়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) হাসাপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে নয়জন ও করোনা ওয়ার্ডে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে গেল ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে পটুয়াখালীতে একজন, ভোলায় একজন ও ঝালকাঠিতে একজনসহ মোট তিনজন করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। যা নিয়ে বরিশাল বিভাগে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৩৮৭ জনে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছেন বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস।

তিনি আরও জানান, মোট আক্রান্ত ২৬ হাজার ৭৭৮ জনের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ৯৪ জন।  

আক্রান্ত সংখ্যায় বরিশাল জেলায় নতুন সর্বোচ্চ ৪০৯ জন নিয়ে মোট ১১ হাজার ৩৯৪ জন, পটুয়াখালী জেলায় নতুন ১২৩ জন নিয়ে মোট ৩ হাজার ৩২৯ জন, ভোলা জেলায় নতুন ৬২ জনসহ মোট ২ হাজার ৬৪৮ জন, পিরোজপুর জেলায় নতুন ১৪০ জনসহ মোট ৩ হাজার ৭০৪ জন, বরগুনা জেলায় নতুন ৬৬ জন নিয়ে মোট আক্রান্ত ২ হাজার ২৯২ জন ও ঝালকাঠি জেলায় নতুন ৯১ জন শনাক্ত নিয়ে মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৪১১ জনে।

এদিকে শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালকের দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় শুধুমাত্র শেবাচিম হাসপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে নয়জনের ও করোনা ওয়ার্ডে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। যা নিয়ে শুধুমাত্র শেবাচিম হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ৬৬৮ জন ও করোনা ওয়ার্ডে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করা ৬৬৮ জনের মধ্যে ৩১ জনের কোভিড টেস্টের রিপোর্ট এখনও হাতে পাওয়া যায়নি।

শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় (সোমবার) সকাল পর্যন্ত শেবাচিমের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে ২৫ জন ও করোনা ওয়ার্ডে ২১ জন ভর্তি হয়েছেন। করোনা ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে এখন পর্যন্ত ২৯৪ জন চিকিৎসাধীন। এদের মধ্যে ৯৯ জন করোনা ওয়ার্ডে ও ১৯৫ জন আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন। আরটি পিসিআর ল্যাবে মোট ১৮৮ জন করোনা পরীক্ষা করান। এর মধ্যে ৪৫.৭৪ শতাংশ পজিটিভ শনাক্তের হার।  

বাংলাদেশ সময়: ০৯৫৫ ঘণ্টা, জুলাই ১৯, ২০২১
এমএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa