ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৮, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

স্বাস্থ্য

করোনায় শেষ সাতদিনেই ৯৫৩ মৃত্যু, শনাক্ত ৪৮ হাজার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৭ ঘণ্টা, জুলাই ৫, ২০২১
করোনায় শেষ সাতদিনেই ৯৫৩ মৃত্যু, শনাক্ত ৪৮ হাজার

ঢাকা: দিন দিন ভয়াবহ আকার ধারণ করছে বাংলাদেশে করোনা পরিস্থিতি। কোনোভাবেই থামছে না সংক্রমণ ও মৃত্যুর মিছিল।

এ মিছিলে প্রতিদিন যোগ হচ্ছে নতুন নতুন নাম। গত ২৯ জুন থেকে ৫ জুলাই পর্যন্ত সাতদিনে মৃত্যুর মিছিলে যোগ হয়েছেন ৯৫৩ জন। একই সময়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮ হাজার ১৪৭ জন।

তথ্যমতে, গত ২৯ জুন ১১২ জন, ৩০ জুন ১১৫ জন, ১ জুলাই ১৪৩ জন, ২ জুলাই ১৩২ জন, ৩ জুলাই ১৩৪ জন, ৪ জুলাই ১৫৩ জন এবং ৫ জুলাই ১৬৪ জন, যা এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ। আর এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৫ হাজার ২২৯ জন।

এছাড়া গত সাতদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮ হাজার ১৪৭ জন। যার মধ্যে গত ২৯ জুন ৭ হাজার ৬৬৬ জন, ৩০ জুন ৮ হাজার ৮২২ জন, ১ জুলাই ৮ হাজার ৩০১ জন, ২ জুলাই ৮ হাজার ৪৮৩ জন, ৩ জুলাই ৬ হাজার ২১৪ জন, ৪ জুলাই ৮ হাজার ৬৬১ জন এবং ৫ জুলাই ৯ হাজার ৯৬৪ জন, যা এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ। আর সবমিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ লাখ ৫৪ হাজার ৮৮১ জনে।

এদিকে, সোমবার (৫ জুলাই) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাছিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ১৮৫ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ৮ লাখ ৩৯ হাজার ৮২ জন। সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬০৫টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১৩০টি, জিন এক্সপার্ট ৪৮টি, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ৪২৭টি। এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ৩৫ হাজার ৪২টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩৪ হাজার ২টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৬৭ লাখ ৫৭ হাজার ৫৬২টি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, ২৪ ঘণ্টায় মৃত ১৬৪ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ৪০ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৮ জন, রাজশাহী বিভাগে ১৬ জন, খুলনা বিভাগে ৫৫ জন, বরিশাল বিভাগে নয়জন, সিলেট বিভাগে আটজন, রংপুর বিভাগে ১৬ জন ও ময়মনসিংহ বিভাগে দুইজন রয়েছেন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরে ঊর্ধ্বে ৮৩ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৪৭ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১৮ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে চারজন রয়েছেন।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৩ হাজার ৫০৭ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ১ হাজার ৩৮৭ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন এক লাখ ৯৫ হাজার ৫৫৬ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ১ লাখ ৪১ হাজার ৭৪৯ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৫৪ হাজা ৮০৭ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। এরপর ধীরে ধীরে আক্রান্তের হার বাড়তে থাকে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০০ ঘণ্টা, জুলাই ০৫, ২০২১
ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa