ঢাকা, সোমবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৭ মে ২০২১, ০৪ শাওয়াল ১৪৪২

স্বাস্থ্য

পজিটিভ রোগী ছাড়া ভর্তি মিলছে না সিলেট করোনা হাসপাতালে

নাসির উদ্দিন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৫০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০২১
পজিটিভ রোগী ছাড়া ভর্তি মিলছে না সিলেট করোনা হাসপাতালে

সিলেট: পজিটিভ রোগী ছাড়া ভর্তি মিলছে না সিলেটের বিশেষায়িত করোনা হাসপাতালে। রোগীর সংখ্যা আশঙ্কাজনকহারে বেড়ে যাওয়ায় উপসর্গ নিয়ে আসা রোগীদের ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) রাত পর্যন্ত সিলেটে করোনার বিশেষায়িত শহীদ ডা. শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে এমন অবস্থা বিরাজমান।

হাসপাতাল সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, একশো শয্যার হাসপাতালটিতে তিনটি ওয়ার্ডে কেবিন মিলিয়ে আছে ৮৪ শয্যা। বাকি ১৬টি আইসিইউ। এছাড়াও সদর উপজেলার খাদিমপাড়ায় হাসপাতালে ৩১ শয্যা থাকলেও চিকিৎসা ব্যবস্থা অপ্রতুল। সেখানে কেবল উপসর্গ নিয়ে আসা রোগীদের ভর্তি করা হয়। নেই কোনো আইসিইউ।

সিলেটে করোনার বিশেষায়িত শহীদ ডা. শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. সুশান্ত কুমার মহাপাত্র বাংলানিউজকে বলেন, হাসপাতালে কেবিনসহ ৮৪টি সাধারণ শয্যার ৭৯টিতে রোগী ভর্তি আছেন। ১৬টি আইসিইউ শয্যার দু’টিতে কিডনি রোগীর ডায়ালাইসিস করা হয়। অন্য ১৪টির ১৩টিতেই রোগী ভর্তি আছেন। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।  

‘এ অবস্থায় খালি অবশিষ্ট শয্যাগুলো করোনা পজিটিভ রোগীদের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে। যে কারণে উপসর্গ নিয়ে আসা রোগীদের ভর্তি নেওয়া যাচ্ছে না। শুক্রবার জ্বর, ডায়রিয়া নিয়ে আসা দু’জন রোগীকে খাদিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ’

তিনি বলেন, করোনা পজিটিভ রোগীরা অন্য কোথাও চিকিৎসা পাবেন না। যে কারণে শয্যা খালি রাখতে হচ্ছে। কেননা গত মাস দেড়েক আগে প্রতিদিন ৩০/৩৫ জন রোগী ভর্তি চিকিৎসাধীন থাকতেন হাসপাতালে। কিন্তু মাসখানেক থেকে চিকিৎসাধীন রোগী ৮০ জনের নিচে নামছেই না। এ অবস্থায় শয্যা বাড়ানোর বিকল্প নেই। কিংবা শয্যা খালি হওয়াসাপেক্ষে উপসর্গ নিয়ে আসা রোগী ভর্তি বিবেচনায় নেওয়া যেতে পারে।  

এদিকে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট কার্যালয়ের তথ্যমতে, বিভাগে দিন দিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে ৩০২ জন রোগী ভর্তি রয়েছেন। এর মধ্যে ২৮৮ জনই সিলেটের সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন হাসপাতালে। এর বাইরে সুনামগঞ্জে একজন, হবিগঞ্জে ১১ জন এবং মৌলভীবাজারে ২ জন।    

চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্টরা জানান, করোনা থেকে সুরক্ষায় সরকার লকডাউন দিলেও সাধারণ মানুষ স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করেই চলেছেন। জেলা প্রশাসন ও পুলিশ স্বাস্থ্যবিধি মানাতে সচেষ্ট থাকলেও লোকজন লকডাউন ভেঙেও ঘর থেকে বেরিয়ে আসছেন। এ কারণে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) সিলেটে করোনা আক্রান্ত হয়ে আরো তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের দু’জন সুনামগঞ্জ সদর ও দিরাইয়ের এবং একজন সিলেট জেলার। করোনার বিশেষায়িত শহীদ ডা. শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মৃত্যুবরণ করেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের তথ্যমতে, গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে নতুন করে ১০৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৩৫ জন, সিলেট জেলায় ৩৮ জন, সুনামগঞ্জ ৯ জন, হবিগঞ্জ ১৩ জন এবং মৌলভীবাজারে ১২ জন।  

এ নিয়ে সিলেট বিভাগে গত এক বছরে ১৯ হাজার ৩০৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। বিপরীতে সুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ২৯৭ জন এবং ৩১১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০১৪৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০২১
এনইউ/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa