ঢাকা, বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

স্বাস্থ্য

করোনা টিকা নেওয়ার আগ্রহ বাড়ছে সিলেটবাসীর

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৫৪৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২১
করোনা টিকা নেওয়ার আগ্রহ বাড়ছে সিলেটবাসীর

সিলেট: সব শঙ্কা কাটিয়ে করোনা টিকা গ্রহণে আগ্রহ বাড়ছে দেশের উত্তরপূর্বাঞ্চল সিলেটের মানুষের। গত তিনদিনের সম পরিমাণ টিকা নিয়েছেন একদিনে।

গত তিনদিনে সিলেট বিভাগে ১৪ হাজার ৯০৯ জন করোনার টিকা নিয়েছেন। আর শুধু বুধবারেই (১০ ফেব্রুয়ারি) বিভাগটিতে ১৩ হাজার ৫৪৩ জন টিকা নিয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, করোনা ভ্যাকসিন ডোজ গ্রহণে প্রথমে মানুষের মধ্যে শঙ্কা কাজ করছিল। আস্তে আস্তে সেই শঙ্কা কেটে গেছে। যে কারণে গত চার দিনের তুলনায় লোকজন সর্বোচ্চ টিকা নিয়েছেন বুধবার।

 তিনি বলেন, সিলেটে আসা করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম চালান আসে ৩৭ কার্টুন। প্রতি কার্টুনে এক হাজার ২০০ করে ভায়াল থাকে। একটি ভায়ালে ডোজ থাকে ১০টি। সে হিসেবে সিলেটে চার লাখ ৪৪ হাজার ডোজ টিকা এসেছে। আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এ ডোজের অর্ধেক দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ চলছে। কেন না, এরপর দ্বিতীয় ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় চালান চলে আসবে। যাতে হ.য.ব.র.ল না হয় সেজন্য ১৪ দিনের মধ্যে লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা হবে।  

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেটের তথ্যমতে, সর্বশেষ বুধবার সিলেট বিভাগের চার জেলায় টিকা নিয়েছেন ১৩ হাজার ৫৪৩ জন। এরমধ্যে নয় হাজার ৩৬৯ পুরুষ ও ৪ হাজার ১৭৪ জন নারী। বিভাগের মধ্যে সিলেট জেলায় চার হাজার ৭৫৭ জন, তন্মধ্যে পুরুষ তিন হাজার ৩৩৩ জন এবং নারী এক হাজার ৪২৪ জন। একই দিনে সুনামগঞ্জে টিকা নিয়েছেন দুই হাজার ৪৬৫ জন। যারমধ্যে পুরুষ এক হাজার ৭২৭ এবং নারী ৭৩৮ জন। হবিগঞ্জে টিকা নিয়েছেন দুই হাজার ৩১৪ জনের মধ্যে এক হাজার ৬৪০ পুরুষ ও ৬৭৪ জন নারী। এদিন মৌলভীবাজার জেলায় টিকা নেওয়া চার হাজার সাত জনের মধ্যে দুই হাজার ৬৬৯ জন পুরুষ ও এক হাজার ৩৩৮ জন নারী রয়েছেন।

এছাড়া পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, এরআগের তিনদিনে সিলেট বিভাগে টিকা নিয়েছেন ১৪ হাজার ৯০৯ জন। এরমধ্যে পুরুষ ১০ হাজার ৮৪০ এবং নারী ৪ হাজার ৬৯ জন।

এ তিনদিনে বিভাগের মধ্যে সিলেটে টিকা নিয়েছেন পাঁচ হাজার ৬৬০ জন। এর মধ্যে পুরুষ চার হাজার ৪৭ এবং নারী এক হাজার ৫৯৩ জন। সুনামগঞ্জে তিনদিনে টিকা নিয়েছেন তিন হাজার ৪৮১ জন। এর মধ্যে পুরুষ দুই হাজার ৭৬৬ এবং নারী ৭১৫ জন। হবিগঞ্জে সর্বমোট দুই হাজার ২৩১ জন টিকা নিয়েছেন। এর মধ্যে পুরুষ এক হাজার ৬৫১ জন এবং নারী ৫৮০ জন। মৌলভীবাজারে তিনদিনে টিকা নিয়েছেন তিন হাজার ৫৩৭ জন। এরমধ্যে পুরুষ দুই হাজার ৩৫৬ এবং নারী  এক হাজার ১৮১ জন।

প্রথম দিনে গত রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) বিভাগের চার জেলায় দুই হাজার ৩৯৬ জন টিকা নিয়েছেন। এরমধ্যে পুরুষ এক হাজার ৭৪৭ জন এবং নারী ৬৪৯ জন। দ্বিতীয় দিনে সোমবার (৮ ফেব্রুয়ারি) এই সংখ্যা আরও বেড়েছে। বিভাগের চার জেলায় তিন হাজার ৯৫৪ জনের মধ্যে দুই হাজার ৮৮৫ জন পুরুষ ও এক হাজার ৬৯ জন নারী টিকা নিয়েছেন। তৃতীয় দিনে মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) টিকা গ্রহণকারীর সংখ্যা দ্বিগুণ বেড়েছে। এদিন বিভাগে সর্বমোট আট হাজার ৫৫৯ জন টিকা নিয়েছেন। এরমধ্যে ছয় হাজার ২০৮ জন পুরুষ ও দুই হাজার ৩৫১ জন নারী।

সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মণ্ডল বলেন, প্রথম দিকে মানুষের মধ্যে ভয়ভীতি কাজ করেছে। যারা টিকা নিয়েছেন এখন পর্যন্ত তাদের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। ফলে জনসাধারণের মধ্যে টিকা নেওয়ার আগ্রহ বাড়ছে।


সিলেট সিটি কর্পোরেশনের আওতায় করোনার টিকাদানের জন্য স্থাপিত মোট ১৪টি বুথের মধ্যে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রে ১২টি বুথ ও সিলেট বিভাগীয় পুলিশ লাইনস হাসপাতালে দুটি বুথ স্থাপন করে টিকা কার্যক্রম চলছে। আর সিলেটের প্রতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দুটি করে করোনা ভ্যাকসিন দেওয়ার বুথ স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া জালালাবাদ সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালেও দুটি টিকা কেন্দ্র খোলা হয়েছে।  

বাংলাদেশ সময়: ০৫৪০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২১
এনইউ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa