ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৭, ২২ অক্টোবর ২০২০, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

স্বাস্থ্য

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আসবেন তাই ঢামেকে চলছে রাস্তা মেরামত

আবাদুজ্জামান শিমুল, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০
স্বাস্থ্যমন্ত্রী আসবেন তাই ঢামেকে চলছে রাস্তা মেরামত

ঢাকা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে আসবেন। তাই তার আগমণ উপলক্ষে জরুরি বিভাগের ময়দানে চলছে রাস্তা মেরামত ও রংয়ের কাজ।

পয়ঃনিষ্কাশন কাজে লেগেছেন ১০ থেকে ১২ জন শ্রমিক। দ্রুতগতিতে চলছে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ।

 এদিন রোগীদের উন্নতমানের চিকিৎসাসেবা দেওয়া ও চিকিৎসা শিক্ষার প্রসারের লক্ষ্যে ঢামেক হাসপাতালের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধন করবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুর থেকেই রাত পর্যন্ত হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে ভেঙে যাওয়া রাস্তা মেরামতসহ বাউন্ডারি গ্রিলে শ্রমিকদের রং করতে দেখা যায়। এছাড়া আনাচে-কানাচে ময়লা পরিষ্কার করতে দেখা যায়।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ওয়ার্ড মাস্টার জিল্লুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বুধবার মন্ত্রী আসছেন, তাই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতাসহ বেশ কিছু কাজ করা হচ্ছে। বৃষ্টির কারণে ভেঙে যাওয়া রাস্তা মেরামত করা হচ্ছে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, করোনার আগে একবার বাউন্ডারি গ্রিল রং করা হয়েছিল, মন্ত্রীর আগমণ উপলক্ষে এখন আবারও করা হচ্ছে।

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিনের সই করা একটি চিঠিতে জানানো হয়, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিৰ বর্ষ ২০২০’ উদযাপন উপলক্ষে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নতুন নতুন চিকিৎসা সুবিধা সংযোজন করে রোগীদের উন্নতমানের চিকিৎসাসেবা দেওয়া এবং চিকিৎসা শিক্ষার প্রসারের লক্ষ্যে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের উদ্ধোধন করবেন মন্ত্রী।

ঐতিহ্যবাহী ও সর্ববৃহৎ এ প্রতিষ্ঠানটিতে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে অসহায় রোগীরা চিকিৎসাসেবার জন্য আসেন। এখানে বছরের ৩৬৫ দিনই ২৪ ঘণ্টা চিকিৎসাসেবা দেওয়া হয়। বর্তমানে এ হাসপাতালে একসঙ্গে করোনা সাসপেকটেড ও পজিটিভ এবং নন-কোভিড রোগীদের চিকিৎসা কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর উদযাপন উপলক্ষে ঢামেক হাসপাতালের রোগীদের উন্নতচিকিৎসা সেবা দেওয়া ও চিকিৎসা শিক্ষার লক্ষ্যে একগুচ্ছ নতুন সেবা চালু হচ্ছে। বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজগুলো হলো- ২০ শয্যা বিশিষ্ট জেরিয়াট্রিক ওয়ার্ড (পুরুষ ও নারী), সিবিআরএন (কেমিক্যাল বায়োলজিক্যাল রেডিয়েশন ও নিউক্লিয়ার) ওয়ার্ড সহ ৭০ শয্যা বিশিষ্ট স্পেশালাইজড পেডিয়াট্রিক ওয়ার্ড ও এইচডিইউ, পেডিয়াট্রিক অ্যান্ডোসকপি (পাকস্থলীর অবস্থা পরীক্ষা), ইকোকার্ডিওগ্রাম, আল্ট্রাসাউন্ড সেন্টার, ১৫ শয্যার পেডিয়াট্রিক সার্জারি ইউনিট, পেডিয়াট্রিক আইসিইউ, পেডিয়াট্রিক ডায়ালাসিস ইউনিট, শিশু ডায়াবেটিক ক্লিলিক, নিউরােক্যাথ অপারেশন থিয়েটার, ইনফালিটি  অ্যান্ড আইভিএফ সেন্টার, কক্লিয়ার ইমপ্লান্ট ওটি এবং অ্যান্ডোসকপি সার্জারি ওটি, প্রােসিভিউর রুম, প্লাজমা থেরাপি সেন্টার, আরটিপিসির ও জিন এক্সপার্ট মেশিন স্থাপন, সিটি সিমুলেটর ও এক্সরে মেশিন, কার্ডিয়াক সেমিনার কক্ষ ও লাইব্রেরি, নিউরোসার্জারি ও অর্থোপেডিক্স সার্জারি সেমিনার কক্ষ, ইমার্জেন্সি কমপ্লেক্স আধুনিকায়ন, হাসপাতাল সেন্ট্রাল সাউন্ড সিস্টেম, সেন্ট্রাল অটোমেশন সিস্টেম (আংশিক), হাসপাতালে যানবাহন এলাকার সম্প্রসারণ ও সংস্কার, ওয়্যারলেস সিকিউরিটি সিস্টেম, আনসার ব্যারাক, আউটডের কমপ্লেক্স সম্প্রসারণ (নির্মাণাধীন) ইত্যাদির কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। এর ফলে ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা ও চিকিৎসা শিক্ষার পরিধি আরও অনেক বাড়বে।

এ সব সম্প্রসারণ ও উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বুধবার বেলা-১২টার সময় হাসপাতাল ইমার্জেন্সি ভবনের অবস্থিত সিবিআরএন ও মাস ক্যাজুয়ালটি ম্যানেজমেন্ট সেন্টারে অনুষ্ঠিত হবে। এসব উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধন করবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

এ বিষয় হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, হাসপাতালে উন্নয়নমূলক কাজ উদ্বোধনের জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী আসবেন।

বাংলাদেশ সময়: ২২০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০
এজেডএস/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa