bangla news

খুমেকে জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে মৃত ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত নন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-২৭ ৯:০৭:০০ পিএম
খুমেক হাসপাতাল।

খুমেক হাসপাতাল।

খুলনা:  করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন না খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে মৃত মোস্তাহিদুর  (৪৫)। তার সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) করোনা পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে।

শুক্রবার (২৭ মার্চ) সন্ধ্যায় খুমেক হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফোকাল পয়েন্ট ডা. শৈলেন্দ্রনাথ বিশ্বাস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, খুমেক হাসপাতালে মারা যাওয়া ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করতে সরকারের স্বাস্থ্য বিভাগের একটি টিম বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) সন্ধ্যায় খুলনায় এসেছিলেন। ওইদিনই দুপুরে করোনা ভাইরাস শনাক্তে উপাদান সংরক্ষণ করেন আইইডিসিআর থেকে আসা লোকজন। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরীক্ষা সম্পন্ন করার পর নিশ্চিত হওয়া গেছে যে তিনি করোনায় আক্রান্ত নন।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) দুপুর দেড়টায় খুমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জ্বর ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত মোস্তাহিদুর মারা যান। তার বাড়ি মহানগরীর হেলাতলা এলাকায়।

মৃত ওই রোগী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বলে ৯০ শতাংশ সন্দেহ পোষণ করেছিলেন হাসপাতালের পরিচালক ডা. এ টি এম মঞ্জুর মোর্শেদ।

তিনি তখন বলেছিলেন, ওই রোগীর জ্বর ও শ্বাসকষ্ট দেখা দেওয়ার পর চিকিৎসকরা তার চিকিৎসা সংক্রান্ত পূর্ববর্তী তথ্য নেন। এই হাসপাতালে আসার আগে ওই রোগী ঢাকার মডার্ন হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। একই আইসিইউতে চিকিৎসাধীন করোনা আক্রান্ত একজন রোগী মারা গিয়েছিল। কিন্তু ওই রোগী এখানে ভর্তির সময় সেই তথ্য গোপন করেন। তা না হলে তাকে করোনা ইউনিটে ভর্তি করা হত।

ডা. মোর্শেদ জানান, ওই রোগীকে মডার্ন হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়ার পর হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলেছিল। কিন্তু তিনি তা মানেননি এবং তথ্য গোপন করে এখানে ভর্তি হন। তার কারণে ঝুঁকি বেড়ে গেলো। ওই রোগীকে চিকিৎসা দেওয়া ১৫/২০ জন চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্য কর্মীকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, করোনায় আক্রান্ত সন্দেভাজনের মৃত্যুর খবর ছড়ি পড়লে খুমেক হাসপাতালে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। যা পুরো শহরে বিস্তার লাভ করে।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৭ ঘণ্টা, মার্চ ২৭, ২০২০
এমআরএম/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   খুলনা করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-27 21:07:00