bangla news

বিএসএমএমইউতে ২০-২৫ লাখ টাকায় হবে লিভার প্রতিস্থাপন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-০৬ ৫:২২:০৮ পিএম
লিভার প্রতিস্থাপনের বিষয়ে বিএসএমএমইউতে সংবাদ সম্মেলন। ছবি: বাংলানিউজ

লিভার প্রতিস্থাপনের বিষয়ে বিএসএমএমইউতে সংবাদ সম্মেলন। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: দেশে সরকারিভাবে প্রথমবারের মতো লিভার প্রতিস্থাপন সম্পন্ন হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) হেপাটোবিলিয়ারি, প্যানক্রিয়েটিক ও লিভার ট্রান্সপ্লান্ট সার্জারি বিভাগে। চিকিৎসকদের হিসাব মতে, একজনের শরীরে সফলভাবে লিভার প্রতিস্থাপনের খরচ হচ্ছে প্রায় ২৫ লাখ টাকা। সে অনুসারে বিএসএমএমইউতে লিভার প্রতিস্থাপনের আনুমানিক খরচের অংক ২০-২৫ লাখ টাকা। 

শনিবার (৬ জুলাই) বিএসএমএমইউতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। সম্প্রতি সিরাতুল ইসলাম শুভ নামের ২০ বছর বয়সী তরুণের শরীরে তার মায়ের (৪৯) দান করা আংশিক লিভার প্রতিস্থাপনের বিষয় তুলে ধরতে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে হেপাটোবিলিয়ারি, প্যানক্রিয়েটিক ও লিভার ট্রান্সপ্লান্ট সার্জারি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. জুলফিকার রহমান খান বলেন, সিরাতুল ইসলাম শুভর মায়ের বয়স ৪৯ বছর। তিনি তার ছেলেকে আংশিক লিভার দিতে সম্মত হন। এরপর গত মাসের ১৫ জুন শুভকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ২৪ জুন মায়ের কাছ থেকে আংশিক লিভার নিয়ে শুভর লিভার ট্রান্সপ্লান্টের দিন ধার্য করা হয়। পরিকল্পনা অনুযায়ী লিভারগ্রহীতার লিভার সম্পূর্ণ ফেলে দিয়ে লিভারদাতার লিভারের ডান অংশ সফলভাবে প্রতিস্থাপিত করা হয়। এই অপারেশন সম্পন্ন করতে মোট ১৬ ঘণ্টা সময় লাগে এবং ২০ ব্যাগ রক্ত লাগে, যা ৫০ সদস্যবিশিষ্ট চিকিৎসক দলের ২০ জন চিকিৎসক দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, শনিবার (৬ জুলাই) অপারেশনের ১৪তম দিন। লিভারদাতা সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন। তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হচ্ছে। লিভারগ্রহীতাও বর্তমানে সুস্থ। তার ব্লাড প্রেসার এবং রেসপিরেশন (শ্বাস-প্রশ্বাস) নরমাল আছে। স্বাভাবিক আহার গ্রহণ করছেন। তার বায়োকেমিক্যাল কিছু অ্যাবনরমালিটি আছে। সেসবের চিকিৎসা চলছে। আর তার প্রতিস্থাপিত লিভারও কাজ শুরু করেছে, তবে পূর্ণাঙ্গভাবে কাজ করতে ৪-৬ সপ্তাহ সময় লাগে। তার আগে পূর্ণাঙ্গ সফল অপারেশন বলা যাচ্ছে না। তবে এখন পর্যন্ত ফলাফল ভালো। রোগী অপারেশনের চতুর্থ দিনেই হাত-পা নাড়াতে পেরেছেন, সপ্তম দিনে বসে চা খেয়েছেন।

অন্যান্য দেশের চেয়ে বাংলাদেশে তথা বিএসএমএমইউতে লিভার প্রতিস্থাপনের খরচ কম হবে উল্লেখ করে ডা. জুলফিকার রহমান খান বলেন, ভারতে এ চিকিৎসা করাতে প্রায় এক কোটি টাকা লাগে। সঙ্গে আনুষঙ্গিক আরও খরচ আছে। বিএসএমএমইউতে তার চেয়ে কম লাগছে, কারণ এখানে সার্জনদের আলাদা টাকা দিতে হচ্ছে না, লজিস্টিক সাপোর্ট দেশের মধ্য থেকেই পাওয়া যাচ্ছে বা দেশের বাইরে যেতে হচ্ছে না। পাশাপাশি সরকারি সহযোগিতা আছে।

সংবাদ সম্মেলনে বিএসএমএমইউর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া বলেন, এই অপারেশন প্রক্রিয়ায় প্রধানমন্ত্রী প্রতিনিয়ত খোঁজ নিয়েছেন। তিনি আমাদের রোগীর পোস্ট অপারেটিভ কেয়ারের দিকে আরও বেশি নজর দিতে বলেছেন। কেননা কারিগরি দিকে আমরা সফল। তাই এই অপারেশনের পর একবারও আমি রোগীর কাছে যাইনি। যেন জীবাণুর সংক্রমণ না ঘটে। আমরা আরও ৪-৫ জন রোগীর শরীরে বিনামূল্যে এই লিভার প্রতিস্থাপন প্রক্রিয়া সফলভাবে সম্পন্ন করার পরই ঘোষণা দেবো, এখানে লিভার প্রতিস্থাপন হবে এবং তখন সঠিক খরচ জানাতে পারবো এ চিকিৎসার।  

সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. শহীদুল্লাহ সিকদার, অ্যানেস্থেসিয়া বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. আক্তারুজ্জামানসহ চিকিৎসার সঙ্গে জড়িত অন্য চিকিৎসকরা উপস্থিত ছিলেন। 

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৯ ঘণ্টা, জুলাই ০৬, ২০১৯
এমএএম/এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-06 17:22:08