ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪২৬, ২১ এপ্রিল ২০১৯
bangla news

কিডনি সুস্থ রাখতে সচেতনতা বাড়ানো প্রয়োজন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-১৩ ১২:৪০:৫১ পিএম
সংবাদ সম্মেলন, ছবি: জিএম মুজিবুর

সংবাদ সম্মেলন, ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: ‘সারা বিশ্বে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে কিডনি রোগী। আমরা দেশের সব জায়গায় কিডনি রোগের চিকিৎসা সহজলভ্য করতে কাজ করছি। যেহেতু এ রোগের চিকিৎসা ব্যয়বহুল। তাই সরকার সাবসিডিয়ারি দিয়ে কিছুটা সহজলভ্য করেছে। তবে কিডনি সুস্থ রাখতে সচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি সুষম খাদ্যগ্রহণ ও ধূমপান পরিহার করতে হবে। খাদ্যে ভেজাল দূর করতে পারলে কিডনি ভালো রাখা সম্ভব’।

আন্তর্জাতিক কিডনি দিবস উপলক্ষে বুধবার (১৩ মার্চ) সকাল ১১টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন বাংলাদেশ রেনাল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. রফিকুল আলম। 

রফিকুল আলম বলেন, দরিদ্র, বায়ু দূষণ, নারী-পুরুষের বৈষম্য, খাদ্য দূষণসহ নানা কারণে কিডনি রোগ হতে পারে। প্রাথমিকভাবে কিডনি রোগ ধরা পড়লে দ্রুত চিকিৎসা করাতে হবে।

কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. এম এ সামাদ বলেন, কিডনি রোগের চিকিৎসা যেহেতু ব্যয়বহুল, তাই সরকারকে দেশের সব হাসপাতালে এ রোগের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে হবে, নিয়মিত ডায়াবেটিস, পেশার ও প্রস্রাব পরীক্ষা করা, আজেবাজে ওষুধ সেবন থেকে বিরত থাকতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, কিডনি ভালো রাখতে ভেজাল খাদ্য পরিহার করতে হবে। এটা খুবই জরুরি, মানুষকে সচেতন করতে হবে যে, যেখানে-সেখানে দূষিত খাবার খাওয়া যাবে না। সারা পৃথিবীতে বর্তমানে ৮৫০ মিলিয়ন মানুষ কিডনি রোগে আক্রান্ত। প্রতি বছর ২ দশমিক ৪ মিলিয়ন মানুষ দীর্ঘ মেয়াদি কিডনি রোগে আক্রান্ত ও ১ দশমিক ৭ মিলিয়ন মানুষ কিডনি রোগে মারা যায়।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. মামুন মোস্তাফিজ, অধ্যাপক ডা. আছিয়া খানম, অধ্যাপক ডা. ওয়াহাব খান, অধ্যাপক ডা. হাবিবুজ্জামান, অধ্যাপক ডা. শহিদুল ইসলাম ও অধ্যাপক  ডা. নজরুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কিডনি ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ রেনাল অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) সারা বিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও বিশ্ব কিডনি দিবস পালিত হবে। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘সুস্থ কিডনি, সবার জন্য, সর্বত্র’। 

বাংলাদেশ সময় : ১১৩০ ঘণ্টা, মার্চ ১৩,২০১৯
টিএম/ওএইচ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14