ঢাকা, শুক্রবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

স্বাস্থ্য

কর্মের মধ্য দিয়ে বেঁচে আছেন অধ্যাপক ইব্রাহিম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৫৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮
কর্মের মধ্য দিয়ে বেঁচে আছেন অধ্যাপক ইব্রাহিম

ঢাকা: অধ্যাপক ইব্রাহিম তার কর্মের মধ্য দিয়ে আজও আমাদের মাঝে বেঁচে আছেন। তার মতো মানুষের কখনও মৃত্যু হতে পারে না।

বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) বারডেম জেনারেল হাসপাতালের অডিটোরিয়ামে জাতীয় অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহিমের ২৯তম মৃত্যুবার্ষিকী ও সেবা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন।

মন্ত্রী বলেন, মানব জাতির কল্যাণে অধ্যাপক ইব্রাহিম ডায়াবেটিক সমিতি ও এই হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে যে বীজ বপন করে গেছেন তার ফল এ দেশের জনগণ চিরদিন ভোগ করবে।

ডায়াবেটিক যে একটি মারাত্মক রোগ সেটা সর্বপ্রথম তিনিই অনুভব করেছিলেন।  

এসময় বারডেম জেনারেল হাসপাতালের তিনটি নতুন সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী। সেবাগুলো হলো- গর্ভধারণ পূর্ব সেবা প্রকল্প, মোবাইল হেল্পলাইন এবং ডায়াবেটিক রোগীদের ডিজিটাল নিবন্ধন।

বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির (বাডাস) সভাপতি অধ্যাপক এ কে আজাদ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক তথ্য কমিশনার মো. আবু তাহের, বাডাসের আজীবন সদস্য স্থপতি শাহ আলম জহির উদ্দিন, বাডাসের মহাসচিব মো. সাইফ উদ্দিন, বারডেম জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক জাফর এ লতিফ, ওয়ার্ল্ড ডায়াবেটিস ফাউন্ডেশন ডেনমার্কের চেয়ারম্যান ডা. অনিল কাপুর প্রমুখ।  

বক্তারা বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতির প্রতিষ্ঠাতা এই জাতীয় অধ্যাপককে স্মরণের মাধ্যমে তার কৃতিত্বের বিস্তারিত দিক তুলে ধরেন। তারা বলেন, অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহিম তার জীবন উৎসর্গ করেছিলেন মানুষের সেবায়। তার আদর্শ ও লক্ষ্য ছিল কোন ডায়াবেটিক রোগী দরিদ্র হলেও বিনা চিকিৎসায়, অনাহারে, বেকার অবস্থায় যেন বারা না যায়। তিনি এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে আমৃত্যু কাজ করে গেছেন এবং আমাদের কাজ করার বা মানবসেবার পথ দেখিয়ে দিয়ে গেছেন।  

এর আগে সেবা দিবস ও ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহিম এর ২৯তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বাডাস ও বারডেমের সব অঙ্গ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সকাল ৮টায় বনানী কবরস্থানে মরহুমের কবর জিয়ারত ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এছাড়া সকাল ৮টা থেকে ১১টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় বিনামূল্যে ডায়াবেটিকস নির্ণয়ের ব্যবস্থা চালু ছিল এবং বারডেমের বহির্বিভাগে আসা করি ডায়াবেটিক রোগীদের মধ্যে বিশেষ খাবার ও দিনব্যাপী ফ্রি হার্ট ক্যাম্প পরিচালিত হয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৯৮৯ সালের ৬ সেপ্টেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর সেগুনবাগিচার নিজ বাসভবনে অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ ইব্রাহিম মৃত্যুবরণ করেন। এই দিনটিকেই সেবা দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়। তিনি ১৯৬৫ সালে ডায়াবেটিক হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করেন যা বর্তমানে বারডেম হাসপাতাল নামে পরিচিত।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৬, ২০১৮
এমএএম/এনএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।