ঢাকা, সোমবার, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৪ জুন ২০২১, ০৩ জিলকদ ১৪৪২

স্বাস্থ্য

চিকিৎসকদের গ্রামে থাকার নির্দেশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৩ ঘণ্টা, আগস্ট ৭, ২০১৪
চিকিৎসকদের গ্রামে থাকার নির্দেশ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: বিসিএস এর মাধ্যমে নতুন যোগদানকারী চিকিৎসকদের গ্রামে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

তিনি বলেন, আপনারা গ্রাম থেকেই এখানে এসেছেন।

বর্তমান সরকার আপনাদেরকে নিজ এলাকাতেই পদায়ন করবে। আপনারা নিজ ভিটেতে থেকেই গ্রামের মানুষকে স্বাস্থ্যসেবা দিতে পারবেন। গ্রামের অবস্থা এখন আর আগের মতো নেই। সেখানে এখন বিদ্যুৎ আছে, রাস্তাঘাট হয়েছে, গ্রামে ফরমালিনও নেই। ফলে আপনাদের সেখানে থাকতে কোনো সমস্যা হবে না।

বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ৩৩তম বিসিএস চিকিৎসকদের চাকরিতে যোগদান ও ওরিয়েন্টশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সংখ্যক ৬ হাজার ২২১ জন চিকিৎসক ৩৩তম বিসিএস এর মাধ্যমে নতুন চাকরিতে যোগদান করেছেন।

নাসিম বলেন, শহরের চেয়ে গ্রামে দরিদ্র মানুষ বেশি। বড়লোকের জন্য শহরে দামি দামি বড় বড় হাসপাতাল আছে। সাধারণ মানুষের চিকিৎসা আপনাদেরই করতে হবে।

‘আপনারা জনগণের সেবা করলে দুই বছরের মাথায় আপনাদের কাজের মূল্যায়ন করে জেলা শহরে বদলি করা হবে এবং প্রয়োজনীয় উচ্চতর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’

এ সময় চিকিৎসক সুরক্ষা আইন করা হবে বলেও প্রতিশ্রুতি দেন মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান ও সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আ ফ ম রুহুল হক বলেন, গ্রাম এখন আর আগের মতো নেই। আপনাদের দিকেই আপনাদের বাবা-মা-স্বজনরা তাকিয়ে আছেন। শুধু বাংলাদেশ নয়, পূর্ব পাকিস্তানের ইতিহাসেও স্বাস্থ্য ক্যাডারের এতো সংখ্যক চিকিৎসকের একসঙ্গে যোগদান কখনোই হয়নি। এই নিয়োগ বাংলাদেশের ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, এই চিকিৎসকদের নিয়োগে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় আরো শক্তিশালী হয়েছে। আমাদের দেশে জনপ্রতি মানুষের চিকিৎসা ব্যয় মাত্র ২৭ ডলার। বাজেটের মাত্র চার শতাংশ আমরা স্বাস্থ্যখাতে ব্যয় করি। গ্রামের দরিদ্র মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় আপনাদের ভূমিকা রাখতে হবে বলে মন্তব্য করেন জাহিদ মালেক।

স্বাস্থ্যসচিবের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. দ্বীন মোহাম্মদ নুরুল হক, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) মহাসচিব ডা. ইকবাল আর্সেনাল প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৩ ঘণ্টা, আগস্ট ০৭, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa