ঢাকা, রবিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

স্বাস্থ্য

বাংলাদেশে প্রতিবছর ক্যান্সারে মৃত্যু ৯১ হাজার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০১৪
বাংলাদেশে প্রতিবছর ক্যান্সারে মৃত্যু ৯১ হাজার

ঢাকা: ইন্টারন্যাশনাল অ্যাজেন্সি ফর রিসার্চ অন ক্যান্সার (আইএআরসি)’র হিসাব অনুযায়ী প্রতিবছর বাংলাদেশে ১ লাখ ২২ হাজার মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হন এবং এর মধ্যে ৯১ হাজার রোগী মারা যান। বর্তমানে দেশে মোট ক্যান্সার রোগীর সংখ্যা ১২ থেকে ১৪ লাখ বলে জানালেন জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক ও ক্যান্সার ইপিডেমিওলজি বিভাগের প্রধান ডা. মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ তালুকদার।



সোমবার বিকেলে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির ছোট মিলনায়তনে ক্যান্সার দিবস উপলক্ষে ‘ইএইচআরডি ক্যান্সার সাপোর্ট অপরাজিতা’র সহযোগিতায়  সেন্টার ফর ক্যানসার প্রিভেনশন অ্যান্ড রিসার্চ (সিসিপিআর) এর উদ্যোগে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

সংগঠনের পক্ষ থেকে ডা. তালুকদার ক্যান্সার সচেতনতায় আগামীতে সংগঠনটির দুটি কর্মসূচি ঘোষণা করেন। কর্মসূচি দুটি হলো- ক্যান্সার সচেতনতায় সড়ক যাত্রা ও কমিউনিটি অনকোলজি নেটওয়ার্ক।

কর্মসূচির কার্যক্রম তুলে ধরতে গিয়ে তিনি বলেন, রোড ফর ক্যান্সার অ্যাওয়ারনেস বা ক্যান্সার সচেতনতায় সড়ক যাত্রার অংশ হিসেবে ২৮-২৯ মার্চ উত্তর বঙ্গের রাজশাহী থেকে আমাদের যাত্রা শুরু করবো। এ বছর  দেশের সাতটি বিভাগে প্রায় ৪০টি জেলার মানুষকে ক্যান্সার প্রতিরোধে করণীয় এবং আক্রান্ত রোগীদের কী করণীয় সে বিষয়ে সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করবো। আগামী বছর বাকি জেলায় আমরা আমাদের সচেতনতামূলক এ কার্যক্রম পরিচালনা করবো।  

দ্বিতীয় কর্মসূচির বিষয়ে ডা. তালুকদার বলেন, কমিউনিটি অনকোলজির মূল থিম হলো- রোগীরা খুঁজে খুঁজে ক্যান্সার সেবাদানকারীর কাছে আসবে না। বরং সেবাদানকারীরাই রোগীকে খুঁজে বের করবে সেবাদানের উদ্দেশ্যে। এছাড়া বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে ক্যান্সার নির্ণয়, বিশেষ করে স্তন, জরায়ু এবং মুখ গহ্বরের ক্যান্সার স্ক্রিনিং পদ্ধতি চালু করা হবে। এর ফলে ক্যান্সার প্রাথমিক অবস্থায়  ধরা পড়বে এবং রোগীরা অল্প চিকিৎসায় কম খরচে সুস্থ হয়ে উঠবেন।

এ সময় তিনি এ দুটি কর্মসূচি সফল করার জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউটের গাইনী অনকোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. আফরোজা খানম, রেডিওথেরাপি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ খোরশেদ আলম, সার্জিক্যাল অনকোলজির জুনিয়র কনসালট্যান্ট ডা. মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান, কবি কাজী রোজী প্রমুখ।

 বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa