ঢাকা, শনিবার, ৯ আশ্বিন ১৪২৮, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬ সফর ১৪৪৩

স্বাস্থ্য

এইডস রোগিদের ৫ হাসপাতালে চিকিৎসা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০১৩
এইডস রোগিদের ৫ হাসপাতালে চিকিৎসা

ঢাকা: দেশের পাঁচটি সরকারি হাসপাতালে এইচআইভি-এইডস আক্রান্তদের চিকিৎসা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় এইডস/এসটিডি প্রোগ্রামের লাইন ডিরেক্টর ড. আবদুল ওয়াহেদ।

বৃহম্পতিবার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ঢাকা ছাড়াও চট্টগ্রাম, রাজশাহী, সিলেট এবং খুলনার সরকারি হাসপাতাল চিকিৎসার জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে।



বিশ্ব এইডস দিবস পালন উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, প্রতিদিন এইচআইভি-এইডস সংক্রমণের হার বাড়ছে। আক্রান্তদের গ্লোবাল ফান্ডের সহায়তায় বেশিরভাগ চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে বিভিন্ন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও)। সরকারের পাশাপাশি তিনটি এনজিও সরকারকে এ কাজে সহায়তা করবে।

প্রতি বছর ১ ডিসেম্বর বিশ্ব এইডস দিবস পালন করা হয়ে থাকে। বাংলাদেশেও দিবসটি পালন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য সচিব এমএম নিয়াজউদ্দিন জানান, ওয়ার্ল্ড এইডস ক্যাম্পেইন ও তাদের সহযোগী সংস্থা ২০১১-২০১৫ সাল পর্যন্ত বিশ্ব এইডস দিবসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করেছে।

গেটিং টু জিরো বা শূণ্য লক্ষ্যমাত্রা অর্জনকে প্রতিপাদ্য ধরে ২০১৫ সালের মধ্যে এইচআইভি সংক্রমণ শূণ্য লক্ষ্যমাত্রা অর্জন, এইচআইভি আক্রান্তদের প্রতি বৈষম্য এবং এইডসে মৃত্যুর হার শূণ্যের কোঠায় নামিয়ে আনাই এর উদ্দেশ্য।

বাংলাদেশে এইচআইভি সংক্রমণের হার বাড়লেও অন্যান্য দেশের তুলনায় তা কম জানিয়ে স্বাস্থ্য সচিব জানান, ২০১২ সালে দেশে এইচআইভি আক্রান্তের সংখ্যা ছিল দুই হাজার ৮৭১ জন।

আইক্যাপের ১২তম বৈঠক ঢাকায়
স্বাস্থ্য সচিব জানান, ২০১৫ সালে বাংলাদেশে ইন্টারন্যাশনাল কংগ্রেস অন এইডস ইন এশিয়া অ্যান্ড দ্যা প্যাসিফিক (আইসিএএপি)- আইক্যাপের ১২তম বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

আইক্যাপ এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে এইচআইভি/এইডস সম্পর্কিত সবচেয়ে বড় ফোরাম। ফোরামটি গত ২০ বছরের অধিক সময়ে সারা বিশ্বে জনসচেতনতা বৃদ্ধি, রাজনৈতিক অঙ্গীকার অর্জন, অ্যাডভোকেসি, নেটওয়ার্ক শক্তিশালীকরণ ও এইচআইভি/এইডস সম্পর্কিত জ্ঞান বিতরণে মূল ভূমিকা পালন করে আসছে।

আসেননি রওশন এরশাদ
সংবাদ সম্মেলনে পুনর্গগঠিত মন্ত্রিসভায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়া মন্ত্রী রওশন এরশাদ সাংবাদিকদের ব্রিফিং করার কথা থাকলেও তিনি আসেননি।

এ বিষয়ে স্বাস্থ্য সচিব বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে ব্যস্ততার কারণে তিনি আসতে পারেনি। এজন্য রওশন এরশাদ দুঃখ প্রকাশ করেছেন বলেও জানান স্বাস্থ্য সচিব এমএম নিয়াজউদ্দিন।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০১৩

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa