bangla news

পলিসি মনিটরে ভিশন বাস্তবায়ন সম্ভব

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৩-১০-৩০ ৮:০৯:৫৮ এএম

আমরা যদি কাজের ধারা অব্যাহত রাখতে পারি এবং পলিসিগুলো ঠিকমতো মনিটর করতে পারি তাহলে আমাদের ভিশন টুয়েন্টি টুয়েন্টিওয়ান বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে।

ঢাকা: আমরা যদি কাজের ধারা অব্যাহত রাখতে পারি এবং পলিসিগুলো ঠিকমতো মনিটর করতে পারি তাহলে আমাদের ভিশন টোয়েন্টি টোয়েন্টিওয়ান বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে।

সরকার এ বিষয়ে অত্যন্ত সচেতন এবং আন্তরিক। আমরা এরইমধ্যে মাতৃমৃত্যু, বাল্যবিবাহ অনেকাংশে কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি এবং আমরা আশা করছি কাঙ্ক্ষিত সাফল্য আমরা অর্জন করতে সক্ষম হবো।

বুধবার হোটেল রূপসী বাংলায় আয়োজিত স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টিখাত উন্নয়ন কর্মসূচির (এইচপিএনএসডিপি) ২০১২-২০১৩ অর্থ বছরের কার্যক্রমের ওপর সম্পাদিত অ্যানুয়েল প্রোগ্রাম রিভিউ’র পলিসি ডায়লগ অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ এফ এম রুহুল হক এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, মাতৃমৃত্যু এবং বাল্যবিবাহ রোধে নেওয়া ব্যবস্থাগুলোর কার্যকর পদক্ষেপেই আমরা আমাদের অবস্থানে পৌঁছাতে পারবো। সরকার কমিনিউনিটি ক্লিনিকের জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

অপরদিকে, স্বাস্থ্য ও পরিবার জনকল্যাণ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এম এম নিয়াজউদ্দিন বলেন, সরকার দেশের প্রতিটি নাগরিকের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে বদ্ধ পরিকর। মাতৃমৃত্যু, বাল্যবিবাহসহ অন্যান্য সমস্যাগুলোতে সমাধান খুঁজে বের করে সেগুলো সমাধানের চেষ্টা করতে হবে এবং সেগুলো নিয়ে ভাবতে হবে।

পলিসি ডায়লগের এই অনুষ্ঠানে জানানো হয়, স্বাস্থ্য, জনসংখ্যা ও পুষ্টিখাত উন্নয়ন কর্মসূচি সরকারের খাত ভিত্তিক উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের মধ্যে সবচেয়ে বড় কর্মসূচি। এইচপিএনএসডিপি শীর্ষক এই কর্সূচিটি মোট ৫৬, ৯৯৬,৫৪ টাকা ব্যয়ে ২০১১ সালের জুলাই থেকে ২০১৬ সালের জুন মেয়াদে বাস্তবায়নের জন্য একনেকে অনুমোদিত হয়েছে।

কর্মসূচিটি বাস্তবায়নে অনুন্নয়ন ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৪,৮১৬,৮৮ টাকা যা বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নের অর্ন্তভুক্ত। এ কর্মসূচিতে অর্থায়নকারী উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাগুলোর সঙ্গে করা ঋণচুক্তি ও অনুদান সহায়তার জন্য সম্পাদিত সমঝোতা ও একনেক এর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতি অর্থ বছর শেষে কর্মসূচিটির মূল্যায়ন পর্যালোচনা করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

মা ও শিশু স্বাস্থ্যের উন্নয়ন, রোগ নিয়ন্ত্রণ, জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ প্রভৃতি ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তনসহ সামগ্রিকভাবে এ কর্মসূচিতে সাফল্য এসেছে বলে জানান অনুষ্ঠানের বক্তারা।

অনুষ্ঠানে কানাডার হাই কমিশনার হেদার ক্রুডেন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ডা মাহমুদ হাসানসহ বিশ্বব্যাংক, ইউকে এইড, ইউএস এইড, এইউএস এইড, জাইকা, বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা, ইউএনএফপিএ, ইউনিসেফসহ বিভিন্ন সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০১৩
জেএ/টিকে/জিসিপি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2013-10-30 08:09:58