bangla news

ভারতীয় রোগীরাও চিকিৎসা নিচ্ছেন বাংলাদেশে

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৩-১০-১২ ৪:৫০:০৩ এএম
ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশ থেকে ভারতে রোগীরা শুধু যাচ্ছেন তা নয়, এবার ভারত থেকেও উন্নত চিকিৎসা নিতে রোগীরা এসেছেন বাংলাদেশে।

ঢাকা: উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশ থেকে ভারতে রোগীরা শুধু যাচ্ছেন তা নয়, এবার ভারত থেকেও উন্নত চিকিৎসা নিতে রোগীরা এসেছেন বাংলাদেশে।

ঠিক এমনই, গত সেপ্টেম্বরে ভারতের মুম্বাইয়ের এক রোগীর সফল বাইপাস অপারেশন হয়েছে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনে।
 
সম্প্রতি স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন ডা. (অব) মুজিবুর রহমান ফকির বাংলানিউজকে বলেন, দেশেই এখন সফল অস্ত্রোপচার হচ্ছে। এদেশ থেকে ভারতে রোগী যাওয়ার সংখ্যা কমেছে। উল্টো ভারতীয়রা এখানে আসছেন চিকিৎসা নিতে।
 
তিনি বলেন, একটি বাইপাস অপারেশন করতে মুম্বাই বা মাদ্রাজে আট থেকে দশ লাখ টাকা লাগে। কিন্তু বাংলাদেশে ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা খরচ হয়। রুপি থেকে টাকায় রুপান্তর হলে অর্থের পরিমাণ আরও কমে যায়। এ কারণে ভারতীয়দের আগ্রহ তৈরি হচ্ছে বাংলাদেশে আসার। এছাড়াও বাংলাদেশের চিকিৎসায় সন্তুষ্ট তারা।
 
ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা আতাউর রহমান মাসুদ বাংলানিউজকে জানান, সেপ্টেম্বরে মুম্বাই থেকে একজন পুরুষ রোগী বাইপাস অপারেশন করাতে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনে আসেন। সফল অস্ত্রোপচার শেষে ১০ দিনের মধ্যেই তিনি আবার ভারতে ফিরে যান।
 
ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের অধ্যাপক ডা. ফজিলাতুন্নেসা মালিকের তত্ত্বাবধানে এ অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান তিনি।
 
ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশের মহাসচিব জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব) আব্দুল মালিক বলেন, এখানকার চিকিৎসায় ভারতীয় নাগরিক সন্তুষ্ট। এখান থেকে যেসব নাগরিক ভালো সেবা পেয়ে যাবেন, তারা ভারতে যেয়ে প্রশংসা করবেন।
 
তিনি বলেন, আমাদের দেশের মানুষের মধ্যে এখনো বিদেশপ্রীতি রয়েছে। তবে আমাদের এখানেই ভালো চিকিৎসা হচ্ছে।
 
নিকট ভবিষ্যতেই দক্ষিণ এশিয়ার অন্যান্য দেশ থেকেও রোগীরা এখানে চিকিৎসা নিতে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৪০৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ১২, ২০১৩
এমএন/এমআইপি/বিএসকে

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2013-10-12 04:50:03