bangla news

বাংলাদেশ থেকে চিকিৎসক ও ঔষুধ নিতে আগ্রহী মালদ্বীপ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৩-০৪-০১ ৯:৪৪:৪২ এএম

বাংলাদেশ থেকে চিকিৎসক ও ওষুধ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে মালদ্বীপ। সফররত মালদ্বীপের স্বাস্থ্যমন্ত্রী  ডা. আহমেদ জামশেদ মোহাম্মদ সোমবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হকের সঙ্গে সাক্ষাতে এসে এই আগ্রহের কথা ব্যক্ত করেন।

ঢাকা: বাংলাদেশ থেকে চিকিৎসক ও ওষুধ নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে মালদ্বীপ।

সফররত মালদ্বীপের স্বাস্থ্যমন্ত্রী  ডা. আহমেদ জামশেদ মোহাম্মদ সোমবার সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হকের সঙ্গে সাক্ষাতে এসে এই আগ্রহের কথা ব্যক্ত করেন।

মালদ্বীপের মন্ত্রী বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতের অগ্রগতির প্রশংসা করে বলেন, “দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক দৃঢ় করলে এক দেশ আরেক দেশ থেকে প্রয়োজনীয় শিক্ষা নিতে পারবে। যেহেতু এই দুই দেশের চ্যালেঞ্জগুলো প্রায় একই রকম, তাই স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নে পারস্পরিক সহযোগিতার ক্ষেত্রকে শক্তিশালী করতে হবে।”

এ সময় তিনি মালদ্বীপে কর্তব্যরত বাংলাদেশি চিকিৎসকদের পেশাগত দক্ষতার কথা উল্লেখ করেন এবং বাংলাদেশের ঔষধ শিল্পের দ্রুত বিকাশে সরকারের উদ্যোগের প্রশংসা করেন।

ডা. রুহুল হক বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতের কাঠামো তুলে ধরে বলেন, “প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে জেলা পর্যায় পর্যন্ত সরকারের পর্যাপ্ত স্বাস্থ্য সেবা বিস্তৃত। গ্রামের কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে শুরু করে জেলার সরকারি হাসপাতালগুলোতেও বিনামূল্যে ঔষধ বিতরণ করা হচ্ছে। চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্য সহকারীদের সহযোগিতা এবং সরকারের দৃঢ় অঙ্গীকারের ফলে দেশের মানুষ স্বাস্থ্যসেবা পাচ্ছে।”

তিনি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশের ওষুধের গ্রহণযোগ্যতার কথা তুলে ধরে বলেন, “বিশ্বের ৮৭ দেশে বাংলাদেশের ওষুধ রপ্তানি হচ্ছে এবং দেশের শতকরা ৯৭ ভাগ চাহিদা দেশীয় ঔষধ দ্বারা মেটানো সম্ভব হচ্ছে।”

ডা. আহমেদ জামশেদ বাংলাদেশের চিকিৎসা ও নার্সিং শিক্ষায় সে দেশ থেকে আরো বেশি সংখ্যক শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান।

এ সময় স্বাস্থ্য সচিব এম এম নিয়াজউদ্দিন, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ কে এম আমির হোসেনসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ০১, ২০১৩
এমএন/সম্পাদনা: আসিফ আজিজ, নিউজরুম এডিটর/আরআই

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2013-04-01 09:44:42