ঢাকা, শনিবার, ৮ মাঘ ১৪২৮, ২২ জানুয়ারি ২০২২, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

স্বাস্থ্য

বাণিজ্যিক স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান নিয়ন্ত্রণে আইন হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

পার্লামেন্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৩
বাণিজ্যিক স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান নিয়ন্ত্রণে আইন হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সংসদ ভবন থেকে: ব্যক্তি মালিকানাধীন বাণিজ্যিক স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়ন্ত্রণের জন্য আইন প্রণয়ন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক।

সোমবার জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকার দলীয় সংসদ সদস্য শাহিদা তারেক দীপ্তির প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।



মন্ত্রী আরও বলেন, “স্বাস্থ্য অধিদফতরের জায়গায় অবৈধভাবে ব্যক্তি মালিকানাধীন যেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে সেগুলো দ্রুত বন্ধ করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। ”

আমেনা আহমেদের প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “কমিনিউনিটি ক্লিনিকগুলোর মতো বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ওষুধ যাতে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো অনুসরণ করতে পারে সেজন্য বেসরকারি চিকিৎসাসেবা আইন প্রণয়ন করা হচ্ছে। ”

ফরিদুন্নাহার লাইলীর প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, “বেসরকারি মেডিকেল কলেজের শিক্ষা ব্যয়ভার কলেজ গভর্নিং বডি নির্ধারণ করে। তবে বেসরকারি মেডিকেল ও ডেন্টাল কলেজে অতিরিক্ত ভর্তি ফি নির্ধারণের বিষয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে পরিকল্পনা চলছে। ”

একই বিষয়ে কামাল আহম্মেদ মজুমদারের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, “বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোর ভর্তি ফি নির্ধারণে সরকার আইন প্রণয়ন করার চিন্তা করছে। খুব শিগগিরই এটি প্রণয়ন করা হবে। ”

হাফিজ উদ্দিন আহম্মেদের প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, ‘‘বর্তমানে ইউনিয়ন ও উপজেলায় চার হাজার ৪৫টি ডাক্তারের পদ শূন্য রয়েছে। ’’

এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, “বাংলাদেশে বর্তমানে এইচআইভি আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা দুই হাজার ৮৭১ জন। এইডস রোগীর সংখ্যা এক হাজার ২০৪ জন। এ পর্যন্ত বাংলাদেশে এইডস রোগে মৃত্যু হয়েছে ৩৯০ জনের। ”

একই সদস্যের আরেক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, ‘‘দীর্ঘস্থায়ী কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর কোনো সরকারি পরিসংখ্যান নেই। ’’

সাধনা হালদারের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, “সনদবিহীন ফার্মেসির সঠিক সংখ্যা সরকারের কাছে নেই। বর্তমানে সারাদেশে লাইসেন্সধারী ফার্মেসির সংখ্যা প্রায় ৯২ হাজার। ”

নাজমা আকতারের প্রশ্নের জবাবে স্ট্যান্ডিং কমিটি ফর ইম্পোর্ট অব ফার্মাসিউটিক্যালসের বরাত দিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, ‘‘বর্তমান সরকারের আমলে এখন পর্যন্ত  বিভিন্ন আমদানিকারকরা ১২ হাজার ৭৬৩ মিলিয়ন টাকার ওষুধ আমদানি করা হয়েছে। ’’

ফজিলাতুন নেসা বাপ্পির প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, “সরকারি খাতে যেসব ওষুধ সরবরাহ করা হয় সেগুলোর চাহিদার তুলনায় ঘাটতি থাকে। ”

সুকুমার রঞ্জন ঘোষের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, ‘‘সারাদেশে বর্তমানে আর্সেনিক আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫৬ হাজার  ৭৫৮ জন। ’’

পিনু খানের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, “বর্তমানে দেশে চাহিদার মাত্র তিন শতাংশ ওষুধ আমদানি করা হয়। আশা করা যায়, ভবিষ্যতে এ ধরনের ওষুধ আর আমদানি করতে হবে না। ”

নুরুন্নবী চৌধুরীর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, ‘‘সরকারের বিভিন্ন কর্মসূচির ফলে বর্তমানে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার এক দশমিক ৩৭ শতাংশে নেমে এসেছে। ’’

এর আগে বিকেল পৌনে চারটায় ডেপুটি স্পিকার শওকত আলীর সভাপতিত্বে চলতি অধিবেশনের পঞ্চম কার্যদিবসের কার্যক্রম শুরু হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০১৩
এসএইচ/ সম্পাদনা: আসিফ আজিজ, নিউজরুম এডিটর ও অশোকেশ রায়, অ্যাসিসট্যান্ট আউটপুট এডিটর- [email protected]

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa