ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১১ বৈশাখ ১৪৩১, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৫

স্বাস্থ্য

৪ দিনব্যাপী এনআইএইচআর গ্লোবাল হেলথ সেন্টারের সম্মেলন শুরু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৪৬ ঘণ্টা, মার্চ ৪, ২০২৪
৪ দিনব্যাপী এনআইএইচআর গ্লোবাল হেলথ সেন্টারের সম্মেলন শুরু ছবি: রাজিন চৌধুরী

ঢাকা: বৈশ্বিক স্বাস্থ্যক্ষেত্রের অগ্রণী ব্যক্তিদের অংশগ্রহণে ঢাকায় চার দিনব্যাপী ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর হেলথ অ্যান্ড কেয়ার রিসার্চ (এনআইএইচআর) সেন্টারের সম্মেলন শুরু হয়েছে।

সোমবার (০৪ মার্চ) বিকেলে রাজধানীর গুলশান দুই নম্বরে হোটেলে ওয়েস্টিনে এ সম্মেলনের উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়।

এনআইএইচআর গ্লোবাল হেলথ সেন্টার সিম্পোজিয়াম শীর্ষক এই সম্মেলনের আয়োজক আইসিডিডিআর,বি। এতে সহযোগিতা করছে যুক্তরাজ্যের জনস্বাস্থ্য গবেষণা প্রতিষ্ঠান ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর হেলথ অ্যান্ড কেয়ার রিসার্চ (এনআইএইচআর)।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী। তার বক্তব্যে তিনি বলেন, জাতীয় অভিযোজন পরিকল্পনার কৌশলগুলোর মধ্যে স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট বিষয় অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এটি পরিবেশ দূষণজনিত অসংক্রামক রোগ যেমন ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়া, ম্যালেরিয়া, গর্ভপাত ও অকাল প্রসব, শ্বাসযন্ত্রের রোগ, হৃদরোগ, স্নায়ুতন্ত্রের রোগ, কিডনি রোগ ইত্যাদি মোকাবিলায় কার্যকর ভূমিকা পালন করবে।

তিনি আরও বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন আমাদের স্বাস্থ্যের ওপর মারাত্মক প্রভাব ফেলে এবং অসংক্রামক রোগের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। পরিবেশগত পরিবর্তন, বিশেষ করে পানির লবণাক্ততা, অসংক্রামক রোগ সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখে। উপকূলীয় এলাকায় পানির লবণাক্ততা জলবায়ু পরিবর্তন-সম্পর্কিত অসংক্রামক রোগের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

মন্ত্রী বলেন, গবেষণায় বাংলাদেশ একটি বিশ্বব্যাপী অংশীদার হতে চায়। দেশের প্রয়োজন ভিত্তিক গবেষণা কর্মসূচি প্রয়োজন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য খাতের গুরুত্বপূর্ণ এ সম্মেলনে পশ্চিম আফ্রিকা, লাতিন আমেরিকা, ভারত-নেপাল, পাকিস্তান-আফগানিস্তান এবং বাংলাদেশে-ভারত-ইন্দোনেশিয়া ভিত্তিক পাঁচটি গ্লোবাল হেলথ সেন্টারের ৬০ জন নেতৃস্থানীয় বিশেষজ্ঞ, নীতি নির্ধারক এবং স্বাস্থ্যখাতের পেশাদার যোগ দেবেন।

এনআইএইচআর এর গ্লোবাল হেলথ রিসার্চ সেন্টারসমূহ, যুক্তরাজ্যের স্বাস্থ্য ও সমাজসেবা বিভাগ (ডিএইচএসসি) ও সংশ্লিষ্ট অন্য অংশীদারদের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়ানো ও অভিজ্ঞতা বিনিময় এই সম্মেলনের অন্যতম উদ্দেশ্য।

সম্মেলনে স্বাস্থ্য খাতের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনা হবে। আলোচনার কেন্দ্রে থাকছে হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, মানসিক স্বাস্থ্যের ব্যাধির মতো অসংক্রামক রোগ (এনসিডি)। এসব রোগ মোকাবিলায় আরও কার্যকর লড়াই কিভাবে করা যায় তা আলোচনায় গুরুত্ব পাবে। এছাড়াও পরিবেশগত পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় করণীয় নিয়ে আলোচনা হবে।

উদ্বোধনী দিনে গুরুত্বপূর্ণ বৈশ্বিক স্বাস্থ্য চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এনআইএইচআর গ্লোবাল হেলথ রিসার্চ সেন্টারের সমন্বিত উদ্যোগসমূহ তুলে ধরা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইসিডিডিআর,বির সায়েন্টিস্ট ড. আলিয়া নাহিদ বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় বসবাসকারীদের মধ্যে হৃদরোগ, ডায়াবেটিক এবং দীর্ঘ মেয়াদি কিডনি রোগের মতো অসংক্রামক রোগের প্রাথমিক যত্ন জোরদার করার গুরুত্ব তুলে ধরেন।

আইসিডিডিআর,বির নির্বাহী পরিচালক ড. তাহমিদ আহমেদ এ ধরনের সম্মেলন আয়োজনের গুরুত্বের ওপর জোর দিয়ে বলেন, আমরা বিশ্ব স্বাস্থ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ বাঁকে অবস্থান করছি, যেখানে সহযোগিতা এবং উদ্ভাবনের সম্মিলনই পারে আমাদের সময়ের সবচেয়ে জরুরি স্বাস্থ্য চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবিলা করতে।

গ্লোবাল হেলথ রিসার্চের এনআইএইচআর প্রোগ্রাম ডিরেক্টর অধ্যাপক কারা হ্যানসন তার বক্তব্যে বলেন, গ্লোবাল হেলথ রিসার্চ সেন্টারগুলোয় এনআইএইচআর-এর বিনিয়োগ একটি গুরুত্বপূর্ণ হস্তক্ষেপ। এটি নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশে এনসিডির ক্রমবর্ধমান চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করার বিষয়ে নতুন প্রমাণ তৈরি করতে গবেষকদের সাহায্য করছে। এছাড়াও এটি এই ধরনের গবেষণা পরিচালনার জন্য টেকসই ক্ষমতা তৈরি করতেও সাহায্য করছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকায় ব্রিটিশ হাইকমিশনের অ্যাক্টিং হাই কমিশনার ম্যাট ক্যানেল। তিনি বলেন, আমি অত্যন্ত আনন্দিত যে, যুক্তরাজ্যের অর্থায়নে পরিচালিত গ্লোবাল হেলথ রিসার্চ, বাংলাদেশ এবং অন্যান্য দেশে অসংক্রামক রোগ সংক্রান্ত গবেষণায় বিনিয়োগ করছে। এটি হৃদরোগ, দীর্ঘমেয়াদি শ্বাসতন্ত্র জনিত রোগ, ডায়াবেটিস, মানসিক ব্যাধি এবং অন্যান্য অসংক্রামক রোগ মোকাবিলা করতে সহায়তা করবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এনআইএইচআর গ্লোবাল হেলথ রিসার্চ সেন্টারের প্রতিনিধি, বাংলাদেশে ডিএইচএসসি এবং ব্রিটিশ হাইকমিশনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়, আইসিডিডিআর,বির বিজ্ঞানীসহ গবেষণায় জড়িত সহযোগী প্রতিষ্ঠানের শিক্ষাবিদরা অংশ নেন।

বাংলাদেশ সময়: ২৩৪৫ ঘণ্টা, মার্চ ০৪, ২০২৪
আরকেআর/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।