ঢাকা, শনিবার, ২১ মাঘ ১৪২৯, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২ রজব ১৪৪৪

স্বাস্থ্য

দেশজুড়ে ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি সার্ভিস চালু হবে: জাহিদ মালেক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০২২
দেশজুড়ে ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি সার্ভিস চালু হবে: জাহিদ মালেক দেশজুড়ে ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি সার্ভিস চালু হবে: জাহিদ মালেক

ঢাকা: দেশজুড়ে পর্যায়ক্রমে ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি সার্ভিস (ওসেক) চালু করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি অ্যান্ড ক্যাজুয়ালটি (ওসেক) সেবার উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

জাহিদ মালেক বলেন, কুর্মিটোলায় ওয়ান স্টপ ইমারজেন্সি সার্ভিসের মাধ্যমে ক্রিটিকাল রোগীরা আরও উন্নতমানের সেবা নিতে পারবে। আমরা মনে করি পর্যায়ক্রমে এ ওয়ান স্টপ সার্ভিস বাংলাদেশে স্থাপন করতে পারবো।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে একটি ইমার্জেন্সি সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। আমাদের দেশে সড়ক দুর্ঘটনা অনেক বেশি হয়, দেশে এখন হার্ট অ্যাটাকে রোগী বেড়ে গেছে, কিডনি এবং ক্যান্সারের রোগী বেড়ে গিয়েছে, এসব রোগের চিকিৎসায় ইমারজেন্সি সেবা লাগে। ডেলিভারি সার্ভিসের জন্য ইমার্জেন্সি লাগে। কিন্তু সেই তুলনায় আমার দেশের তেমন ইমারজেন্সি চিকিৎসা সেবা নেই।

তিনি আরও বলেন, হাসপাতালে কোনো রোগী আসলেই প্রথমেই তিনি বেডে চলে যেতে পারেন না। হাসপাতালের বেডে নিয়ে যেতেও সময় লাগে। সময় ক্ষেপণের ফলে রোগীর অনেক ক্ষতি হয়ে যায়। এসব সমস্যার সমাধানের জন্য আমরা দেখলাম, যদি ভালো একটা ইমারজেন্সি সেন্টার থাকে, যেখানে সব ধরনের চিকিৎসা এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষার ব্যবস্থা থাকবে, শয্যা এবং প্রশিক্ষিত জনবল থাকবে, সার্জারীর ব্যবস্থা থাকবে, ব্লাড সেন্টার থাকবে, ব্রেইন স্টক এবং হার্ট অ্যাটাকে রোগীর সেবা দেওয়া যাবে, এসব সার্ভিস যদি এক স্থানে থাকে, তাহলে আমরা আরও বেশি সেবা দিতে পারব। অনেক জীবন রক্ষা পাবে। অনেক সময় ৫ মিনিট আগে সেবা দেওয়ার কারণেই রোগী বেঁচে যায়। এ সেবাগুলোই ওয়ান স্টপ সার্ভিসের মাধ্যমে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- ঢাকা ১৮ আসনের সংসদ সদস্য হাবিব হাসান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) সাইদুর রহমান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার খুরশিদ আলম, অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীর,  আইএফসির কান্ট্রি ডিরেক্টর সঞ্জিব কুমার কাফলে, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ড. ফজলুল কবির প্রমুখ।

ওসেক বাস্তবায়নের মাধ্যমে রোগী ইমার্জেন্সি বিভাগেই সব পরীক্ষা নীরিক্ষার সুবিধা পাবে। রোগীকে পরীক্ষার জন্য অন্য কোনো বিভাগে যেতে হবেনা, প্রয়োজনে রোগীর কাছেই পরীক্ষা নিরীক্ষার মেশিন চলে আসবে।

কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের পাশাপাশি রাজধানীর মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, মিটফোর্ড এবং সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ওসেক কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০২২
আরকেআর/জেডএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa