[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৬ চৈত্র ১৪২৫, ২০ মার্চ ২০১৯
bangla news

বরিশালে বিজয় দিবসের কর্মসূচি

|
আপডেট: ২০১৫-১২-১০ ৬:৩৫:০০ এএম
ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে বরিশাল সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে নানা কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে।

বরিশাল: ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসে বরিশাল সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগে নানা কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে।

বিজয় উৎসব-২০১৫ উদযাপনের এ কর্মসূচিতে আগামী ১৬ ডিসেম্বর নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। 

এর মধ্যে জেলা প্রশাসনের অনুষ্ঠান সূচিতে রয়েছে, ১৬ ডিসেম্বরর রাত ১২টা ১ মিনিটে পুলিশ লাইনস মাঠে ৩১বার তোপধ্বনির মাধ্যমে মহান বিজয় দিবসের শূভ সূচনা করা হবে। রাত ১২টা ১০ মিনিট থেকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সংলগ্ন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে।
রাত ১২টা ৩০ মিনিট থেকে ত্রিশ গোডাউন সংলগ্ন বধ্যভূমি অভিমুখে পদযাত্রা ও পুষ্পমাল্য অর্পণ। সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সব সরকারি বেসরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত, ব্যক্তিমালিকানাধীন ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা উত্তোলন।

এছাড়াও সকাল ৯টায় বঙ্গবন্ধু উদ্যানে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয়পতাকা উত্তোলন এবং কুচকাওয়াজ ও শরীরচর্চা প্রদর্শনী। আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও প্যারেড অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অভিবাদন গ্রহণ করবেন বিভাগীয় কমিশনার মুক্তিযোদ্ধা মো. গাউস।

সকাল ১১টা থেকে বিনামূল্যে প্লানেট ওয়ার্ল্ড শিশুপার্ক দর্শন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সমৃদ্ধ চলচিত্র প্রদর্শন। যাতে অভিরুচি সিনেমা হলের নিচতলায় ছেলেদের ও দ্বিতীয় তলায় মেয়েদের সিনেমা দেখার ব্যবস্থা রাখা হবে এবং স্থানীয় ক্যাবল নেটওয়ার্কসমূহে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সমৃদ্ধ চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে।
একই সঙ্গে সকাল ১১টায় বরিশাল শিশু একাডেমিতে শিশুদের দেশাত্মবোধক গান ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

বেলা সাড়ে ১১টায় বঙ্গবন্ধু উদ্যানে জেলা পর্যায়ে মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা জ্ঞাপন, মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদানের জন্য সম্মাননা প্রদান ও মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করা হবে।

বেলা আড়াইটায় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মহিলাদের জন্য ক্রীড়াঅনুষ্ঠান ও মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

বাদ যোহর জাতীয় শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনায়ও স্থানীয় সব মসজিদে বিশেষ মোনাজাত,  সুবিধাজনক সময়ে অন্যান্য সব মন্দির গির্জা ও উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে।

দুপুরে বরিশালের বিভিন্ন হাসপাতাল, জেলখানা, এতিমখানা, সরকারি শিশু সদন, দুস্থ নারীদের আশ্রয়কেন্দ্রসহ অনুরুপ প্রতিষ্ঠানসমুহে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে।

অপরদিকে, দুপুর ১টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত বরিশাল বিআইডব্লিউ ঘাটে বাংলাদেশ নৌ-বাহিনীর জাহাজ সবার দর্শন এর জন্য উম্মুক্ত থাকবে। সন্ধ্যা সাড়ে ৫টায় সব সরকারি ও বেসরকারি ভবনসমূহ আলোকসজ্জায় সজ্জিতকরণ করা হবে।

সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় অশ্বিনী কুমার টাউন হলে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটির উদ্যোগে ও পঞ্চমবারের মতো মুক্তিযুদ্ধের তথ্য ও দলিলপত্র প্রদর্শনীর দিনব্যাপী আয়োজন করা হয়েছে। যে প্রদর্শনীর উদ্বোধন করবেন জেলা প্রশাসক ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামান।

এছাড়াও বরিশাল জেলা ও ১০ উপজেলা প্রশাসন, বরিশাল সিটি কর্পোরেশন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ, বরিশাল বিএম কলেজসহ বিভিন্ন স্কুল-কলেজ,  বিভিন্ন রাজনৈতিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ অন্যান্য সংগঠন দিনব্যাপী বিজয় দিবসের নানা কর্মসূচি পালন করবে। শহীদ মিনারেও আয়োজন করা হয়েছে নানা অনুষ্ঠানের।

এছাড়াও আগের দিন ১৫ ডিসেম্বর সকাল ১০ টায় শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়ামে জিও এনজিও একাদশ ও মুক্তিযোদ্ধা একাদশের মাঝে প্রীতি ফুটবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১০, ২০১৫
পিসি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db