[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৬ চৈত্র ১৪২৫, ২০ মার্চ ২০১৯
bangla news

শীর্ষে থাকার মিশনে নামছে রিয়াল-বার্সা

1994 |
আপডেট: ২০১৫-১০-৩১ ৮:৩২:০০ এএম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

লা লিগায় ভিন্ন ম্যাচে রাতে মাঠে নামছে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। এ ম্যাচটি দু’দলের জন্যই বেশ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ যে কোন একটি দল হার বা ড্র করলেই দ্বিতীয় অবস্থানে চলে যাবে। যদিও সমান পয়েন্ট থাকা সত্বেও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় এমনিতে দ্বিতীয় অবস্থানে কাতালানরা।

ঢাকা: লা লিগায় ভিন্ন ম্যাচে রাতে মাঠে নামছে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। এ ম্যাচটি দু’দলের জন্যই বেশ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ যে কোন একটি দল হার বা ড্র করলেই দ্বিতীয় অবস্থানে চলে যাবে। যদিও সমান পয়েন্ট থাকা সত্বেও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থাকায় এমনিতে দ্বিতীয় অবস্থানে কাতালানরা। বর্তমানে নয় ম্যাচ শেষে দু’দলেরই পয়েন্ট ২১। শীর্ষে রিয়াল

শনিবার (১ নভেম্বর) মধ্যরাতে কোলিসিয়াম আলফাসোনো পেরেজে সফরকারী দল হিসেবে গেটাফের মাঠে খেলতে যাবে বার্সা। বাংলাদেশ সময় রাত ১টা ৩০মিনিটে মুখোমুখি হবে দু’দল। বর্তমান পয়েন্ট টেবিলে ১০তম অবস্থানে রয়েছে গেটাফে।

বার্সা লা লিগায় নিজেদের সর্বশেষ চার ম্যাচের কোনটিতে হারেনি। তবে এ ম্যাচে খেলতে যাওয়ার আগে ভালো পরিকল্পনা নিয়েই যেতে হচ্ছে লুইস এনরিকের শিষ্যদের। কারণ সর্বশেষ কোপা দেল রে’র ম্যাচে দুর্বল ভিলানোভেনেসের বিপক্ষে গোলশুণ্য ড্র করেছে ক্যাম্প ন্যু’র দলটি। তবে সে ম্যাচে উল্ল্যেখযোগ্য কোন তারকা ছাড়াই নেমেছিল দলটি।

ইনজুরির কারণে আট সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে চলে যাওয়া দলের সেরা তারকা লিওনেল মেসি এ ম্যাচেও থাকছেন না। পাশাপাশি হাঁটুর ইনজুরির কারণে রাফিনহাকেও পাচ্ছে না বার্সা।

২০১১ সালের পর থেকে বার্সার বিপক্ষে জয় না পাওয় গেটাফে অবশ্য গত মৌসুমের গোলশুণ্য ড্র’র আশা নিয়ে এবারো মাঠে নামতে পারে। তবে চলতি মৌসুমে বার্সার হয়ে ১৫ গোল করা নেইমার ও লুইস সুয়ারেজ হয়ত থেমে থাকবেন না। কারণ গত মৌসুমের অন্য লেগের খেলার কাতালানদের ৬-০ গোলে জয়ের ম্যাচে এ দুই তারকা গোল করেছিলেন।

এদিকে বার্সার আগেই মাঠে নেমে পয়েন্ট বাড়ানোর সুযোগ থাকছে রিয়ালের। ঘরের মাঠে সান্থিয়াগো বার্নাব্যু’তে দুর্বল লাস পালমাসকে আতিথিয়েতা জানাবে রাফায়েল বেনিতেজের শিষ্যরা। শনিবার (৩১ অক্টোবর) বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় মাঠে নামবে দু’দল।

এবারের মৌসুমে রিয়াল তৃতীয় ইউরোপিয়ান দল (বায়ার্ন মিউনিখ ও প্যারিস সেন্ট জার্মেই সহ) যারা শীর্ষ লিগগুলোতে এখনও কোন হারের মুখ দেখেনি। আর এবারের মৌসুমে দলটি রয়েছেও বেশ ফুরফুরে মেজাজে।

ইতিহাস মতে রিয়াল ঘরের মাঠে কখনও লাস পালমাসের বিপক্ষে হারেনি। ২৭টি ম্যাচে জয়ের বিপরীতে ড্র করেছে চারটি ম্যাচে। পাশাপাশি প্রতিটি ম্যাচে দলটির বিপক্ষে লা গ্যালাকটিকোদের গোল ছিল। যা পালমাসের বিপক্ষে রিয়ালের গোলের গড় তিন দশমিক ৫০।

পালমাসের বিপক্ষে যৌথভাবে লা লিগার সবচেয়ে বড় জয়টিও এসেছে রিয়ালের। ১৯৫৯ সালে ১০-১ ব্যবধানে জয় পেয়েছিল লস ব্ল্যাঙ্কসরা (এলচের বিপক্ষে ১৯৬০ সালে ১১-২ ব্যবধানে রিয়ালের জয় যা এটির সঙ্গে সমান)।

এছাড়া গত মৌসুম থেকে এবারের মৌসুম পর্যন্ত লা লিগায় ১৯ ম্যাচে হারেনি রিয়াল। পাশাপাশি এ মৌসুমের প্রতিটি ম্যাচেই প্রথমার্ধে গোল করেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোরা।

তাই সমর্থকদের ধারণা এ ম্যাচে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়বে রিয়াল। তবে বেনিতেজ তার শিষ্যদের মধ্যে গ্যারেথ বেল, সার্জিও রামোস ও দানি কারবাহালকে ইনজুরির কারণে পাচ্ছেন না। কিন্তু। ইনজুরি সেড়ে ফিরছেন করিম বেনজেমা ও জেমস রদ্রিগেজ।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৬ ঘণ্টা, ৩১ অক্টোবর, ২০১৫
এমএমএস   

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache