ঢাকা, রবিবার, ১০ চৈত্র ১৪২৫, ২৪ মার্চ ২০১৯
bangla news

ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির চেষ্টায় আটক ২৬, দণ্ডিত ৪

587 |
আপডেট: ২০১৫-১০-৩০ ১০:৩৯:০০ এএম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র জালিয়াতির চেষ্টায় চারজনকে দু’বছর করে কারাদণ্ডসহ মোট ২৬ জনকে আটক করা হয়েছে।

ঢাকা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র জালিয়াতির চেষ্টায় চারজনকে দু’বছর করে কারাদণ্ডসহ মোট ২৬ জনকে আটক করা হয়েছে।

শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সকালে ও বিকেলে ঢাবি ও জবির ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

ঢাবির ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ডিজিটাল জালিয়াতির দায়ে এক পরীক্ষার্থীকে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক ড. এএম আমজাদ বাংলানিউজকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

প্রক্টর জানান, দণ্ড পাওয়া শিক্ষার্থীর নাম হাসিবুর রহমান শামু। তিনি মোহাম্মদপুর গভমেন্ট মডেল স্কুল কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। পরীক্ষার সময় তিনি ক্ষুদ্র ডিজিটাল ডিভাইসের সাহায্যে জালিয়াতি করছিলেন। পরে তাকে আটক করা হলে দায়িত্বরত ভ্রাম্যমাণ আদালত দুই বছরের কারাদণ্ড দেন।

এদিকে, জবির বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘এ’ ইউনিটের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে তিনজনের দুই বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত ম্যাজিস্ট্রেট নাজমা নাহার। এদিন বিকেল ৩টায় ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন সময় জবি কেন্দ্র এবং ঢাকা সিটি কলেজ কেন্দ্র থেকে তাদের আটক করা হয়। সাজাপ্রাপ্তরা হলেন আবদুর রহমান মজুমদার, কোপিল মাহমুদ এবং মাসুদুর রহমান।

জানা যায়, জবি পরীক্ষা কেন্দ্রে ঢোকার সময় মোবাইলের এসএমএসে উত্তরসহ ধরা পড়েন আবদুর রহমান। তাকে সাহায্য করা কোপিল মাহমুদকেও পরে আটক করা হয়। এছাড়া সিটি কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষার হলে মোবাইলসহ ধরা পড়েন মাসুদুর রহমান। আটকদের জবি প্রক্টর অফিসে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা দেওয়া হয়। জবি প্রক্টর ড. নূর মোহাম্মাদ বাংলানিউজকে বলেন, ভর্তি পরীক্ষায় ডিজিটাল জালিয়াতি করার চেষ্টা করায় তাদের সাজা দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, শুক্রবার বিকলে রাজধানীর পুরান ঢাকা থেকে সবশেষ ১০ জনকে আটক করা হয়। তারা ঢাবি ও জবিতে প্রশ্নপত্র জালিয়াতি চক্রের সদস্য বলে পুলিশ জানিয়েছে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারের উপ-কমিশনার মোনতাসিরুল ইসলাম বাংলানিউজকে বিষয়টি জানিয়েছেন। এছাড়া ঢাবির লাইব্রেরি এলাকা থেকে জবির প্রশ্নপত্র ফাঁস চক্রের একজনকে আটক করা হয়েছে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার রাতভর রাজধানীর বিভিন্ন এলাকাসহ তেজতুরী বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে মোট ১২ জনকে আটক করা হয়।

ঢাবিতে ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের অধীনে প্রথম বর্ষ সম্মান শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষা শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়। প্রতি আসনে লড়েন ৪৩ জন ভর্তিচ্ছু। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ৫৬টি ও ক্যাম্পাসের বাইরে ঢাকা শহরের ২০টি স্কুল-কলেজসহ মোট ৭৬টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ইউনিটের ১ হাজার ৬শ’ ৬০টি আসনের জন্য ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীর সংখ্যা ৭১ হাজার ৩শ’ ৫০ জন।

অন্যদিকে, জবিতে এবার ‘এ’ ইউনিটে ৭৬০টি আসনের বিপরীতে ৫৭ হাজার ৭০৩ জন শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করেছে। শুক্রবার একযোগে ২৯টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০১৫
এনএ/এসএ/আরআর/আইএ

** ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির চেষ্টায় আটক ২৫, দণ্ডিত ১
** জবি ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন, প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ
** মোবাইল ফোনে উত্তরপত্র, আটক ৩

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db