bangla news

স্কুলছাত্রী ধর্ষণ, ভণ্ড ওঝাসহ ৮ জনের নামে মামলা

1506 |
আপডেট: ২০১৫-০৮-১৮ ১০:০৫:০০ এএম
ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

ঝালকাঠির রাজাপুরে এক স্কুলছাত্রীকে (১২) অপহরণের পর মাসব্যাপী আটকে রেখে একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সোলায়মান ফকির নামে এক ভণ্ড ওঝা ও তার সাত সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ধর্ষিতার বাবা।

ঝালকাঠি: ঝালকাঠির রাজাপুরে এক স্কুলছাত্রীকে (১২) অপহরণের পর মাসব্যাপী আটকে রেখে একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সোলায়মান ফকির নামে এক ভণ্ড ওঝা ও তার সাত সহযোগীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ধর্ষিতার বাবা। 

সোমবার (১৭ আগস্ট) গভীর রাতে রাজাপুর থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়। মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) দুপুরে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে স্কুলছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। বিকেলে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে।

এর আগে, শনিবার বাকেরগঞ্জ উপজেলার চামটায় আসামির বাড়ি থেকে ওই স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। ১৮ জুলাই বাড়ির পার্শ্ববর্তী কদমতলা থেকে ওই ছাত্রীকে অচেতন করে অপহরণ করে আসামিরা।

স্কুলছাত্রীর বাবা বাংলানিউজকে জানান, আসামি সোলায়মান ফকির দীর্ঘদিন ধরে রাজাপুরের বিভিন্ন এলাকায় কবিরাজ (ওঝা) হিসেবে ঝাড়-ফুক দিয়ে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা করে আসছিলেন- এমন জনশ্রুতি রয়েছে। তার মেয়ে বিশেষ রোগে আক্রান্ত হলে ওঝা সোলায়মানকে চিকিৎসার জন্য ডাকা হয়।

পরবর্তীতে ওঝা মাঝেমধ্যে তাদের বাড়িতে আসতেন এবং বিভিন্ন সময় তার মেয়েকে কু-প্রস্তাব দিতেন। বিষয়টি পরিবারের লোকজনকে জানালে ভণ্ড ওঝা সোলায়মান ফকিরকে বাড়িতে আসতে নিষেধ করা হয়। এতে ওঝা তাদের বিভিন্নভাবে হুমকি দেন।

ধর্ষিতা স্কুলছাত্রী বাংলানিউজকে জানান, ঈদের দিন (১৮ জুলাই) সকালে কদমতলা থেকে ভণ্ড সোলায়মান ফকির তাকে অচেতন করে তুলে নিয়ে যান। পরে, বাকেরগঞ্জের চামটার নিজবাড়িতে আটক রেখে একাধিকবার ধর্ষণ করেন।

এদিকে, স্কুলছাত্রীকে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে তার বাবা ২০ জুলাই রাজাপুর থানায় জিডি করেন। গত শুক্রবার (১৪ আগস্ট) রাতে গোপনে ওই এলাকার শিপনের স্ত্রী রিনার মোবাইল থেকে স্কুলছাত্রী তার পরিবারের কাছে ফোন দিয়ে বিষয়টি জানায়। শনিবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে রাজাপুর থানা পুলিশের সহায়তায় বাকেরগঞ্জ নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে।

রাজাপুর থানার পরিদর্শক (ওসি) শেখ মুনীর উল গিয়াস বাংলানিউজকে জানান, ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে স্কুলছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। বিকেলে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১৮, ২০১৫
এমজেড/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2015-08-18 10:05:00