bangla news

বিপিএলে এবার ব্যবসা নয়!

1852 |
আপডেট: ২০১৫-০৮-১৮ ৬:২৯:০০ এএম

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দর্শকদের আগ্রহকে মাথায় রেখে ২০১২ সালে প্রথমবার ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লিগ আয়োজন করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। নাম দেওয়া হয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত হয় এর দ্বিতীয় সংস্করণ।

ঢাকা: টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দর্শকদের আগ্রহকে মাথায় রেখে ২০১২ সালে প্রথমবার ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লিগ আয়োজন করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। নাম দেওয়া হয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত হয় এর দ্বিতীয় সংস্করণ। প্রথম দুটি আসরে ক্রিকেট উন্মাদনা তৈরির পাশাপাশি অর্থ আয়েরও উদ্দেশ্য ছিল বিসিবির।

তবে এবার তৃতীয় সংস্করণে এসে অর্থ আয়ের বিষয়টি গৌন রাখছে বিসিবি। ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো যাবতীয় ব্যয় মেটাতে খরচ করতে পারবে না ছয় থেকে আট কোটি টাকার বেশি।  এবার ব্যবসা মাথায় নেই বলেই খরচের সীমাবদ্ধতা রাখতে যাচ্ছে বিসিবি।

মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) বিপিএলের গর্ভনিং কাউন্সিলের মিটিংয়ে এমন সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব আই এস মল্লিক।

তাছাড়া টুর্নামেন্ট কমিটির ক্যালেন্ডারে ওয়ানডে ও চার দিনের ম্যাচের লিগ আয়োজনের পাশাপাশি একটি টি-টোয়েন্টি লিগ আয়োজনেরও কথা ছিল। মূলত টুর্নামেন্ট কমিটির  ক্যালেন্ডারের সেই সূচি বাস্তবায়ন হচ্ছে বিপিএলের মধ্য দিয়ে।

এ প্রসঙ্গে আই এস মল্লিক জানান, ‘টুর্নামেন্ট কমিটির ক্যালেন্ডারে থাকা টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টটি হচ্ছে বিপিএলের মধ্য দিয়ে। আমরা এবার অর্থ ব্যয়ে সীমাবদ্ধতা রেখেছি। ছয় থেকে আট কোটি টাকার মধ্যে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকে ব্যয় নির্বাহ করতে হবে। এর আগের বিপিএলে কোনো দল ২০ কোটি টাকাও খরচ করেছে। এবার যেহুতু অর্থ আয় আমাদের মূল উদ্দেশ্য নয়, তাই অর্থ ব্যয়ে সীমাবদ্ধতা রেখেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এবার বিপিএলের সমস্ত কাজ আমরা ভাগ ভাগ করে দেব। গ্রাউন্ডস, টিকেটিংসহ যাবতীয় কাজ আলাদাভাবে করা হবে। দশটি নতুন কোম্পানী বিপিএলে অংশ নিতে আগ্রহী। সেখান থেকে যাচাই-বাছাই করার পর সাতটি কোম্পানি ফ্র্যাঞ্চাইজি কিনতে পারবে। আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে কাজগুলো শেষ হবে। দশটি কোম্পানির সঙ্গেই আমাদের আলাপ-আলোচনা নিয়মিত হচ্ছে। ২২ অথবা ২৫ নভেম্বর  শুরু হবে বিপিএলের তৃতীয় আসর।’

সভায় উপস্থিত ছিলেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান আফজালুর রহমান সিনহা, সদস্য সচিব আই এস মল্লিক, বিসিবি’র প্রধাণ নির্বাহী কর্মকর্তা নিজাম উদ্দিন চৌধুরী, মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস এবং টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান।

উল্লেখ্য, বিসিবি’র তত্ত্বাবধানে ২০১২ সালে বিপিএলের প্রথম আসর বসেছিল। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে আয়োজিত ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্টটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। তারই ধারাবাহিকতায় ২০১৩ সালে অনুষ্ঠিত হয় দ্বিতীয় আসর। তবে, সে আসরে ফিক্সিং কেলেঙ্কারি ও দেশি-বিদেশি ক্রিকেটারদের বকেয়া পাওনা ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো পরিশোধ না করায় ২০১৪ সালে বিপিএল আয়োজন করা হয়নি। তবে এক বছর বিরতি দিয়ে আবারো মাঠে গড়াতে যাচ্ছে বিপিএল।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৭ ঘণ্টা, আগস্ট ১৮, ২০১৫
এসকে/আরএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2015-08-18 06:29:00