bangla news

প্রতিবাদে বিক্ষোভ মানববন্ধন ক্লাস বর্জনের আলটিমেটাম

216 |
আপডেট: ২০১৫-০৮-১৭ ৯:০৯:০০ এএম
ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার কানুপুর দাখিল মাদ্রাসার সহকারী মৌলভী শিক্ষক আলাউদ্দিন সন্ত্রাসীদের হাতে লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রী ও এলাকাবাসী বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছেন।

বগুড়া: বগুড়ার শেরপুর উপজেলার কানুপুর দাখিল মাদ্রাসার সহকারী মৌলভী শিক্ষক আলাউদ্দিন সন্ত্রাসীদের হাতে লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনায় প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রী ও এলাকাবাসী বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছেন।

এই ঘটনায় জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল এবং মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন তারা। একই সঙ্গে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের আলটিমেটাম দেওয়া হয়। অন্যথায় কাল (মঙ্গলবার ১৮ আগস্ট) থেকে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দেয় প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। 

সোমবার (১৭ আগস্ট) বেলা ১১টা থেকে দুপুর নাগাদ কানুপুর এলাকায় এই বিক্ষোভ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষক আলাউদ্দিন সন্ত্রাসী মহসিন আলীসহ ৪-৫জনকে অভিযুক্ত করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। 
 
আব্দুর নূর, আরিফুল ইসলাম, মাহফুজার রহমান, আব্দুস সালাম, আরিফ হোসেনসহ স্থানীয়রা অভিযোগ করে বাংলানিউজকে জানান, উপজেলার কানুপুর দাখিল মাদ্রাসায় দীর্ঘদিন ধরে রুটিন মাফিক ছাত্রছাত্রীদের পাঠ প্রদান করা হয় না। শিক্ষক সংকটের অজুহাত তুলে কতিপয় শিক্ষকের ইচ্ছে অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটি পরিচালিত হয়ে আসছিল।

এ অবস্থায় মাদ্রাসার নিয়মশৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে রোববার (১৬ আগস্ট) শিক্ষক আব্দুল মান্নান একটি পাঠদান রুটিন তৈরি করেন। কিন্তু এতে বাধা হয়ে দাঁড়ান মাকছুদুর রহমান নামে প্রতিষ্ঠানের অপর এক শিক্ষক। কোন নিয়ম না মেনে আগের নিয়মেই প্রতিষ্ঠানে পাঠদান কার্যক্রম চালানোর ঘোষণা দেন তিনি। এ সময় উপস্থিত মৌলভী শিক্ষক আলাউদ্দিন শিক্ষক মাকছুদুর রহমানের এমন ঘোষণার প্রতিবাদ করেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডাও হয়।

এই ঘটনার জেরে রোববার (১৬ আগস্ট) বিকেলে মাদ্রাসা ছুটির পর বাড়ি ফেরার পথে শিক্ষক মাকছুদুর রহমানের ভাই মহসিন আলীর নেতৃত্বে ৪-৫ জন সন্ত্রাসী শিক্ষক আলাউদ্দিনের পথরোধ করে শারীরিকভাবে তাকে লাঞ্ছিত করেন।

কানুপুর মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি আবু সাঈদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, বিষয়টি নিয়ে পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে জরুরি সভা আহ্বান করা হয়েছে।

শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আহমদ হাশমী অভিযোগ পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৯ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০১৫
এমবিএইচ/আরআই                                                                          

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2015-08-17 09:09:00