[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ৬ চৈত্র ১৪২৫, ২০ মার্চ ২০১৯
bangla news

প্রতি উপজেলায় সরকারি স্কুল ও কলেজ হবে

603 |
আপডেট: ২০১৫-০৭-১৪ ৫:৩৫:০০ এএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

দেশের প্রতিটি উপজেলায় একটি করে সরকারি স্কুল ও কলেজ স্থাপনের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধনকালে তিনি এ ঘোষণা দেন।

ঢাকা: দেশের প্রতিটি উপজেলায় একটি করে সরকারি স্কুল ও কলেজ স্থাপনের ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বেশ কয়েকটি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধনকালে তিনি এ ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, প্রত্যেক উপজেলায় একটি করে সরকারি স্কুল ও সরকারি কলেজ করে দেবো। পাবর্ত্য এলাকার স্কুল ও কলেজগুলো হবে আবাসিক। আমি খোঁজ নিতে বলেছি, কোন উপজেলায় সরকারি স্কুল এবং কলেজ নেই।

সর্বশেষ ঘোষিত বাজেট বাস্তবায়নে সবাইকে আন্তরিকভাবে কাজ করার নির্দেশ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাজেটে যে উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে তা বাস্তবায়নে সবাইকে যথাযথভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা নিম্নমধ্যম আয়ের দেশ হয়েছি। আমরা এ অবস্থানে থাকতে চাই না। উচ্চে থাকতে চাই। এজন্য সবাইকে আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে দেশের উন্নয়ন হয়, মানুষের কল্যাণ হয়। আমাদের লক্ষ্য ছিলো ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশ গড়ে তোলা। আমরা আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছি বলেই অনেক আগেই নিম্নমধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছি। মধ্যম আয়ের দেশ হতে আমাদের বেশি দেরি হবে না। আমরা ২০২১ সালের আগেই মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হবো।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী তার সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কাজের কথা তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেশের সবচেয়ে উঁচু সড়ক বান্দরবনের থানচি-আলী কদম সড়ক, বিরুলিয়া-আশুলিয়া মহাসড়ক এবং বিরুলিয়া সেতু, রংপুর বিভাগীয় শহর মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত করার কাজ উদ্বোধন করেন।

দ্বিতীয় পর্যায়ে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিআইডব্লিউটিসি’র যাত্রীবাহী জাহাজ এমভি মধুমতিসহ ভাষা সৈনিক গোলাম মাওলা রো রো ফেরি এবং কুসুমকলি ফেরি নামে দু’টি ফেরির উদ্বোধন করেন।

এ সময় গণভবনে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, প্রধানমন্ত্রী উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হকসহ সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় এবং নৌ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বান্দরবান থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবনের সঙ্গে সংযুক্ত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং, সেনাবাহিনীর সোশ্যাল ওয়ার্ক অর্গানাইজেশনের পরিচালক ব্রি. জে. আবদুল ওহাব, বান্দরবানের রিজিয়ন কমান্ডার ব্রি. জে. নকিব আহমদ চৌধুরী, জেলা প্রশাসক মিজানুল হক চৌধুরী, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, সড়ক বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আরিফুর রহমানসহ বিভিন্ন প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

রংপুর থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবনে সংযুক্ত ছিলেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙাসহ স্থানীয় সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী, সরকারের সড়ক বিভাগের কর্মকর্তারা।

এমভি মধুমতি জাহাজের ভেতর থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবনের সঙ্গে সংযুক্ত ছিলেন নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান প্রমুখ।

বিরুলিয়া থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবনের সঙ্গে সংযুক্ত ছিলেন সংসদ সদস্য ডা. এনাম, সংসদ সদস্য ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা ও ঢাকা জেলার বিভাগীয় কমিশনার।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৪ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০১৫
এমইউএম/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db