bangla news

ওডিআই র‌্যাংকিং ৭ এ টাইগাররা

3304 |
আপডেট: ২০১৫-০৬-১৮ ১:০৫:০০ পিএম
ছবি: শোয়েব মিথুন / বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: শোয়েব মিথুন / বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

টানটান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার তিন ম্যাচের ওডিআই সিরিজের প্রথম ম্যাচ। তাসকিন-মুস্তাফিজের বোলিং তোপে পড়ে ২২৮ রানে গুটিয়ে যায় ভারত।

ঢাকা: টানটান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার তিন ম্যাচের ওডিআই সিরিজের প্রথম ম্যাচ। তাসকিন-মুস্তাফিজের বোলিং তোপে পড়ে ২২৮ রানে গুটিয়ে যায় ভারত।

এ ম্যাচ জিতে মাশরাফি বাহিনী ভারতকে হারিয়ে ওডিআই র‌্যাংকিং এ সাতে চলে এসেছে।

এটাই বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের ওয়ানডে ইতিহাসের রেকর্ড। কারণ এর আগে এক দিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে আইসিসি র‌্যাংকিংয়ে সাত নম্বরে উঠে আসেনি বাংলাদেশ।

আইসিসি ওডিআই র‌্যাংকিংয়ে অষ্টম অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ সমান পয়েন্ট নিয়ে সাত নম্বরে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে টপকে গেল।

চলতি বছরের এপ্রিলে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করে ৩০ এপ্রিল প্রকাশিত রিলায়েন্স আইসিসি ওডিআই টিম র‌্যাংকিংয়ে পাকিস্তানকে টপকে আটে উঠে আসে টাইগাররা।

র‌্যাংকিংয়ের এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখা বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত জরুরি। কারণ ২০১৭ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফি টুর্নামেন্টে অনুষ্ঠিত হবে। স্বাগতিক ইংল্যান্ড ছাড়াও ওয়ানডে দলের র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ সাতটি দল ওই টুর্নামেন্টে অংশ নেবে।

এ বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শীর্ষ আটে থাকতে পারলে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি সহ ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে সরাসরি অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করবে বাংলাদেশ।

৯২’র বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান নবম স্থানে অবস্থান করছে। বিশ্বকাপে বাজে পারফরম্যান্স করা ইংল্যান্ড ৯৪ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে।

এর আগে ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ও পরের বছর নিউজিল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করায় আইসিসির ওডিআই র‌্যাংকিংয়ে ৮ম স্থানে উঠেছিল বাংলাদেশ। পরে অবনমন হলেও ২০১২ সালে হোম সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৩-২ ব্যবধানে হারিয়ে আগের অবস্থান পুনরুদ্ধার করে সাকিব-তামিমরা।

বাংলাদেশ সময়: ২৩০১ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০১৫
এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2015-06-18 13:05:00