ঢাকা, সোমবার, ২৮ আশ্বিন ১৪২৬, ১৪ অক্টোবর ২০১৯
bangla news

পাকিস্তানকে ৩০১ রানের টার্গেট দিল ভারত

422 |
আপডেট: ২০১৫-০২-১৫ ২:৩৬:০০ এএম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ইনিংসের মাঝামাঝি সময়ে যে রানের গতি দেখিয়েছিলেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা, শেষদিকে এসে তা ধরে রাখতে পারেননি। উপরুন্তু পাকিস্তানি বোলারদের ওপর চড়াও হতে গিয়ে শেষ দিকে বেশ ক’টি উইকেট খুইয়ে ফেলেছেন তারা।

ঢাকা: ইনিংসের মাঝামাঝি সময়ে যে রানের গতি দেখিয়েছিলেন ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা, শেষদিকে এসে তা ধরে রাখতে পারেননি। উপরুন্তু পাকিস্তানি বোলারদের ওপর চড়াও হতে গিয়ে শেষ দিকে বেশ ক’টি উইকেট খুইয়ে ফেলেছেন তারা। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩০০ রান সংগ্রহ করতে সমর্থ হয়েছেন ভারতের ব্যাটসম্যানরা।

রোববার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে ৯টায় অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড ওভাল ময়দানে শুরু হয় ভারত-পাকিস্তানের এ ক্রিকেটীয় মহাযুদ্ধ। ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

ভারতের হয়ে ওপেনিংয়ে নামেন রোহিত ও শিখর ধাওয়ান। প্রথম ৫-৬ ওভার দেখেশুনেই ব্যাট চালাচ্ছিলেন দু’জন। তবে চড়াও হওয়ার ইঙ্গিত দিতেই রোহিতকে অধিনায়ক মিসবাহর ক্যাচ বানিয়ে সাজঘরে পাঠান পাকিস্তানি পেসার সোহেল খান।

রোহিত আউট হওয়ার পর খেলতে নামেন দলের সেরা ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি। কোহলিকে সঙ্গে নিয়ে দুর্দান্ত পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন ওপেনার ধাওয়ান, দলের খাতায় যোগ করেন ১২৯ রান। পাকিস্তানি অধিনায়ক মিসবাহ উল হকের সরাসরি থ্রোতে রান আউট হওয়ার আগে ধাওয়ান ৭৬ বলে ৭৩ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলে যান।

ধাওয়ানের বিদায়ে ক্রিজে নেমে শুরু থেকেই আগ্রাসী ব্যাট চালান সুরেশ রায়না। তিনি কোহলির সঙ্গে গড়ে তোলেন আরেকটি শত রানের পার্টনারশিপ (১১০)। শেষ দিকে চড়াও হতে গিয়ে সোহেল খানের বলে সেঞ্চুরিয়ান কোহলি (১০৭) উইকেটের পেছনে উমর আকমলকে ক্যাচ তুলে দিয়ে সাজঘরে ফেরেন।

কোহলিকে ফেরালেও রায়নার ব্যাটিং তাণ্ডব ঠেকাতে পারছিলেন না পাকিস্তানি বোলাররা। ‍তার সঙ্গে যোগ দিয়ে মারাদাঙ্গা ব্যাটিংয়ের ইঙ্গিত দেন অধিনায়ক ধোনিও। তবে, ৫৬ বলে ৭৪ রান করে সোহেল খানের বলে হারিস সোহেলকে ক্যাচ দিয়ে রায়না সাজঘরে ফিরলে খেই হারিয়ে ফেলেন ধোনিও। কিছুক্ষণ পর ১৩ বলে ১৮ রান করে সোহেল খানেরই বলে মিসবাহকে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন তিনি। তার ফেরার আগে নেমেই ওয়াহাব রিয়াজের বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান রবিন্দ্র জাদেজা (৩)। একেবারে শেষদিকে নেমে ৩ বল খেলে শূন্য রানে বোল্ড হয়ে যান আজিঙ্কা রাহানেও। অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন রবিচন্দ্রন অশ্বিন (১) ও মোহাম্মদ সামি (৩)।

বিশ্বকাপের লড়াইয়ের ইতিহাস-পরিসংখ্যান ভারতকে এগিয়ে রাখলেও সেই ইতিহাস নতুন করে লেখার প্রত্যয় নিয়ে নেমেছে পাকিস্তান।

ভারত দল
মহেন্দ্র সিং ধোনি, শেখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মা, অজিঙ্কা রাহানে, বিরাট কোহলি, সুরেশ রায়না, রবিন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, মোহাম্মদ শামি, মোহিত শর্মা, উমেশ যাদব।

পাকিস্তান দল
আহমেদ শেহজাদ, ইউনুস খান, হারিস সোহেল, মিসবাহ উল হক, উমর আকমল, সোয়েব মাকসুদ, শহীদ আফ্রিদি, ইয়াসির শাহ, মোহাম্মদ ইরফান, সোহেল খান এবং ওয়াহাব রিয়াজ।

এর আগে ১৯৯২, ৯৬, ৯৯, ২০০৩ ও ২০১১ বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত ও পাকিস্তান। প্রত্যেক লড়াইয়েই শেষ হাসি হেসেছে ভারত। মজার ব্যাপার হলো- এ পাঁচবারের লড়াইয়ে প্রতিবারই ময়দানে ছিলেন শচীন। এরমধ্যে আবার তিন লড়াইয়ের ‘সেরা যোদ্ধা’র পুরস্কারও পান লিটল মাস্টার। রোববার সেই ক্রিকেটপুত্রকে ছাড়াই মাঠে নামলো ভারত।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৫/আপডেট ১৩৪৫ ঘণ্টা

শেষ দিকে চড়াও ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা
** ফিরলেন ধাওয়ান, নামলেন রায়না
** ধাওয়ান-কোহলির ব্যাটে বড় সংগ্রহের পথে ভারত
** ভারতের রানের চাকার গতি বাড়ছে
** ধাওয়ান-কোহলিতে ঘুরছে রানের চাকা
** সাজঘরে রোহিত, নেমেছেন কোহলি
** দেখেশুনে ব্যাট চালাচ্ছেন রোহিত-ধাওয়ান
** রোহিত-ধাওয়ানের ব্যাটে ভারতের সূচনা
** টসে জিতে ব্যাটিংয়ে ভারত

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2015-02-15 02:36:00