[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ কার্তিক ১৪২৫, ১৬ অক্টোবর ২০১৮
bangla news
সিরাজগঞ্জ-৩ উপ নির্বাচন

মুন্নুর প্রার্থিতা বাতিল, বিনা ভোটে এমপি আ’ লীগের আমজাদ!

635 |
আপডেট: ২০১৪-১১-২২ ১:৫৭:০০ এএম

জাতীয় সংসদের সিরাজগঞ্জ-৩ আসনের (রায়গঞ্জ-তাড়াশসহ সলঙ্গার আংশিক) উপ-নির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে শুধুমাত্র বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গাজী আমজাদ হোসেন মিলনই রয়ে গেলেন।

সিরাজগঞ্জ: জাতীয় সংসদের সিরাজগঞ্জ-৩ আসনের (রায়গঞ্জ-তাড়াশসহ সলঙ্গার আংশিক) উপ-নির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে শুধুমাত্র বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গাজী আমজাদ হোসেন মিলনই রয়ে গেলেন।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আক্তারুল ইসলাম মুন্নুর মনোনয়ন পত্র বাতিল হওয়ায় সরকারদলীয় প্রার্থীই বিজয়ী হতে চলছেন।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলা সার্ভার স্টেশনে যাছাই বাছাইয়ে স্বতন্ত্র এ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্রটি বাতিল ঘোষণা করা হয়। 

সিরাজগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুর রহিম এ তথ্য নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে বলেন, সিরাজগঞ্জ-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আমজাদ হোসেন মিলন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আক্তারুল ইসলাম মুন্নু মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। পরে যাছাই বাছাইয়ে আমজাদ হোসেন মিলনের মনোনয়ন পত্র ত্রুটিমুক্ত পাওয়া যায়।

অপরদিকে, নির্বাচনী আইন অনুযায়ী স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নির্বাচনী এলাকার মোট ভোটারের এক শতাংশের সমর্থনসহ মনোনয়ন পত্র জমা দিতে হয়। কিন্তু আক্তারুল ইসলাম মুন্নুর মনোনয়ন পত্রের সঙ্গে নির্বাচনী এলাকার মোট ভোটারের এক শতাংশের সমর্থন ছিল না। ফলে তার মনোনয়ন পত্রটি বাতিল করা হয়েছে। এখন এ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত সোমবার(১৭ নভেম্বর’২০১৪) সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভায় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার শেষে আমজাদ হোসেন মিলনকে মনোনয়নের জন্য নির্বাচিত করা হয়।

গাজী আমজাদ হোসেন মিলন আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য। তিনি তাড়াশ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যানও ছিলেন।

এই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে প্রয়াত সংসদ সদস্য ইসহাক হোসেন তালুকদারের ছেলে ইমরুল হোসেন তালুকদার ইমনসহ ১৯জন ফরম উত্তোলন করেছিলেন। 

৬ অক্টোবর ঈদুল আজহার দিন ওই আসনের সংসদ সদস্য গাজী ইসহাক হোসেন তালুকদার মারা যান। ২৮ অক্টোবর সংসদ সচিবালয় এই আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশনে চিঠি দেয়। ১১ নভেম্বর এই আসনের উপ-নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী ২০ নভেম্বর মনোনয়ন পত্র দাখিল, ২২ নভেম্বর মনোনয়ন পত্র যাছাই-বাছাই, আপিল ২৩-২৫ নভেম্বর, ২৯ নভেম্বর প্রার্থী তালিকা প্রকাশ, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ৩০ নভেম্বর ও ১ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ শেষে ২৩ ডিসেম্বর এই আসনের উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa