ঢাকা, বুধবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

নির্দেশনা অমান্য করে লঞ্চের আগাম টিকেট বিক্রি

845 |
আপডেট: ২০১৪-০৭-১৬ ৩:৪৭:০০ পিএম
ছবি:  বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম / ফাইল ফটো

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম / ফাইল ফটো

নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের নির্দেশ অমান্য করে ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের জন্য লঞ্চ মালিক কর্তৃপক্ষ স্পেশাল টিকেট বিক্রি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঢাকা: নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের নির্দেশ অমান্য করে ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের জন্য লঞ্চ মালিক কর্তৃপক্ষ স্পেশাল টিকেট বিক্রি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার ‍এমন টিকেট বিক্রির কথা স্বীকার করেন দ্বীপরাজ লঞ্চের পরিচালক মো. রাজ্জাক।

তিনি বলেন, নৌপথে আসা-যাওয়ায় অনেকের সঙ্গে আমাদের পরিচয় হয়েছে। যে কারণে তাদের অনুরোধে আমরা অনেক আগে থেকেই টিকেট বিক্রি করতে শুরু করেছি। কারণ আমাদের তো টিকেট বিক্রি করতেই হবে। 

কিন্ত এর আগে নৌপরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান জানিয়েছিলেন ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের জন্য ১৭ জুলাই থেকে লঞ্চের আগাম টিকেট বিক্রি শুরু হবে।
৬ জুলাই লঞ্চ মালিকদের সঙ্গে নৌপরিবহনমন্ত্রীর এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। 

বৈঠকে আরো সিদ্ধান্ত হয় ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের কাছ  থেকে অতিরিক্ত কোনো ভাড়া আদায় কর‍া হবে না। লঞ্চে যাতে অতিরিক্ত যাত্রী বহন না কর‍া হয় সে জন্য লঞ্চঘাটে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন। পাশাপাশি লঞ্চের যাত্রীবহন ক্ষমতা কত তা লঞ্চের সামনে লেখা থাকতে হবে।

যাত্রী নিরাপত্তার স্বার্থে লঞ্চে লাইফ জ্যাকেট রাখতে হবে। অদক্ষ শ্রমিক যাতে নৌযান বা লঞ্চ না চালান সেটি নিশ্চিত করার নির্দেশ দেওয়া হয় বৈঠকে।

ওই বৈঠকে আরো সিদ্ধান্ত হয় ঈদের আগের তিন দিন ও পরের তিন দিন ফেরিতে জরুরি পণ্যবাহী ট্রাক ছাড়া সব ধরনের ট্রাক পারাপার বন্ধ থাকবে।

বিআইডব্লিউটিএ পরিবহন পরিদর্শক মো. মাহফুজুর রহমানের কাছে স্পেশাল টিকেট বিক্রির ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, লঞ্চের আগাম টিকেট বিক্রির ব্যাপারে আমাদের কিছু জানা নেই।  এ ব্যাপারে লঞ্চ মালিক কর্তৃপক্ষ বলতে পারবেন। আমরা শুধু সুষ্ঠু পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছি।

বাংলাদেশ সময়: ০১৪৪ ঘণ্টা, জুলাই ১৭, ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-07-16 15:47:00