ঢাকা, বুধবার, ২৫ মাঘ ১৪২৯, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৬ রজব ১৪৪৪

ফুটবল

এমবাপ্পের জোড়া গোল, সবার আগে শেষ ষোলোয় ফ্রান্স

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৫৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
এমবাপ্পের জোড়া গোল, সবার আগে শেষ ষোলোয় ফ্রান্স

ন্যাশন্স লিগে টানা দুই হারের যন্ত্রণা ভুলতেই কিনা ডেনমার্ককে সামনে পেয়েই আক্রমণের বন্যা বইয়ে দিল ফ্রান্স। প্রথমার্ধে আক্রমণের জোয়ার সামলে নিলেও দ্বিতীয়ার্ধে কিলিয়ান এমবাপ্পেকে থামাতে পারল না ডেনিশরা।

জোড়া গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করলেন এই ফরাসি ফরোয়ার্ড। মাঝে একটি গোল অবশ্য শোধ করেছিল ডেনমার্ক। কিন্তু তাতে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের জয়রথ থামাতে পারেনি তারা।

দোহার স্টেডিয়াম ৯৭৪-এ শনিবার ২০২২ বিশ্বকাপের ‘ডি’ গ্রুপের ম্যাচে ২-১ গোলে জয় তুলে নিয়ে প্রথম দল হিসেবে শেষ ষোলো নিশ্চিত করল দিদিয়ের দেশমের দল। চলতি আসরে এ নিয়ে টানা দ্বিতীয় জয়ে শেষ ষোলো নিশ্চিত তাদের। এর আগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়েছিল তারা।  

খেলার শুরু থেকেই বল দখলে এগিয়ে রইলো ডেনমার্ক, কিন্তু এমবাপ্পে-জিরুদের যুগলবন্দীতে আক্রমণ বেশি করল ফ্রান্স। ডেনমার্ক নিজেদের রক্ষণ সামলাতেই ব্যস্ত রইলো প্রায় পুরোটা সময়। বল দখলে পাওয়া মাত্র আক্রমণে উঠে আসে ফরাসিরা। ২১তম মিনিটে ভালো একটি সুযোগও পায় তারা। কিন্তু আদ্রিওঁ রাবিওর হেড ঝাঁপিয়ে ঠেকান ডেনিশ গোলরক্ষক কাসপের স্মাইকেল।

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে আক্রমণের ধার আরও বাড়ায় ফ্রান্স। ৩৪তম মিনিটে জিরুদের সঙ্গে ওয়ান-টু খেলে আচমকা শট নেন আঁতোয়া গ্রিজমান। তবে ঝাঁপিয়ে সেই চেষ্টা ব্যর্থ করে দেন স্মাইকেল। ৩৭তম মিনিটে ছয় গজ বক্স থেকে জিরুদের হেড অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। কিছুক্ষণ পর পোস্টের সামনে বল পেয়ে শট নেন এমবাপ্পে। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে অনেক উপর দিয়ে মারেন তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধেও ডেনমার্কের রক্ষণকে ব্যতিব্যস্ত করে রাখেন জিরুদ-এমবাপ্পেরা। তবে গোল পেতে তাদের অপেক্ষা করতে হয় ৬১তম মিনিট পর্যন্ত। ডি বক্সের বাঁ পাশ দিয়ে ডিফেন্ডার লুকা এরনঁদেজ ঢুকেন বল নিয়ে। ওয়ান-টু-ওয়ান পাসে বল যায় এমবাপ্পের কাছে। আর নিখুঁত শটে তা জালে পাঠিয়ে দেন পিএসজি তারকা।  

এগিয়ে যাওয়ার স্বস্তি অবশ্য বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি ফ্রান্সের। ৬৮তম মিনিটে আন্দ্রেয়াস ক্রিস্তেনসেন গোল করে ডেনমার্ককে সমতায় ফেরান। তবে রাতটা যে এমবাপ্পের; ৮৬তম মিনিটে ফের তার গোলে এগিয়ে যায় গতবারের চ্যাম্পিয়নরা। গ্রিজমানের দুর্দান্ত পাসে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। এ নিয়ে ফ্রান্সের জার্সিতে শেষ ১২ ম্যাচে ১৪ গোল হলো তার। সর্বশেষ গোলটি আবার এলো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে। কারণ এই গোলেই কাতার বিশ্বকাপের নকআউট পর্বে উঠে গেল তার দল।

টানা দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে আছে ফ্রান্স। সমান ম্যাচে ডেনমার্কের সংগ্রহ ১ পয়েন্ট। ৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে থাকা অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচ ডেনিশদের। ওই ম্যাচের জয়ী দল যাবে পরের পর্বে। আর ১ পয়েন্ট পাওয়া তিউনিসিয়ার বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ২৩৫৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa