ঢাকা, সোমবার, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ জুন ২০২২, ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

ফুটবল

এএফসি কাপ: সাফল্যের ব্যাপারে আশাবাদী ব্রুজোন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৩ ঘণ্টা, মে ১৩, ২০২২
এএফসি কাপ: সাফল্যের ব্যাপারে আশাবাদী ব্রুজোন

গতবার এএফসি কাপে এক গোলের আক্ষেপ পুড়িয়েছে বসুন্ধরা কিংসকে। মাত্র এক গোলের জন্য ভালো খেলেও নক আউট পর্ব নিশ্চিত করতে পারেনি তারা।

তবে এবার এএফসি কাপকে সামনে রেখে শক্তিশালী দল গুছিয়েছে বেঙ্গল জায়ান্টরা। শিষ্যদের নিয়ে এবার তাই ভালো ফল প্রত্যাশা করছেন অস্কার ব্রুজোন।

বর্তমানে দারুণ ফর্মে আছে বসুন্ধরা কিংস। টিম কম্বিনেশনে যে কোনও প্রতিপক্ষের রক্ষণেই ভীতি ছড়াতে সক্ষম রবিনহো-মিগেলের রসায়ন। অস্কার ব্রুজোনের বাজির ঘোড়া হতে পারে এএফসি কাপে কিংসের নতুন দুই রেজিস্ট্রেশন। শেখ জামাল থেকে চিনেদ্যু ম্যাথিউ আর মুক্তিযোদ্ধার সুদি আবদুল্লাহ। সঙ্গে এএফসি কাপে লোকাল প্লেয়ার হিসেবে খেলার অনুমোদন পাওয়া এলিটা কিংসলেকে দেখা যেতে পারে সুপার সাবের ভূমিকায়।

মোহনবাগান, কেরেলা গোকুলাম এবং মাজিয়া স্পোর্টসের গ্রুপে রয়েছে বসুন্ধরা কিংস। কঠিন গ্রুপ তা মেনে নিয়েই লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন কোচ অস্কার ব্রুজোন। তিনি বলেন, ‘সন্দেহ নেই খুবই কঠিন গ্রুপ। গ্রুপে যে ৪টি ক্লাব রয়েছে, সেগুলো দক্ষিণ এশিয়ার সেরা ১০টি ক্লাবের মধ্যে থাকবে। ম্যাচগুলো বেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে। পরের পর্বে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে সবকটি ক্লাবেরই। তবে যে কোনও টুর্নামেন্টেরই প্রথম ম্যাচটি সবসময় কঠিন হয়। ফলে সব কিছু নির্ভর করছে এই প্রথম ম্যাচটির উপরই। ’ 

কিংসের স্প্যানিশ কোচ আরও বলেন, ‘গতবার মাত্র একটি গোলের জন্য আমরা নক আউট পর্বে পৌঁছাতে পারিনি। এই বছর আমরা আরও অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেই খেলতে নামছি। এবার ভালো করব বলেই আমার বিশ্বাস। ’

কঠিন গ্রুপে পড়লেও নিজেদের নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ব্রুজোন। তিনি বলেন, ‘বসুন্ধরা কিংসের জন্মই হয়েছে লড়াই করে এগিয়ে যাওয়ার জন্য। আমরা অল্প সময়েই উপমহাদেশে নিজেদের মেলে ধরেছি। ম্যাচ বাই ম্যাচ ভালো খেললে আমরা পরের রাউন্ডে যেতে পারবো। ’

ভারতের দলগুলো সম্পর্কে ভালো ধারণা রয়েছে ব্রুজোনের। স্পোর্টিং গোয়া এবং মুম্বাই সিটি এফসির কোচ ছিলেন তিনি। ফলে ভারতের দলগুলো সম্পর্কে ভালো ধারণা রয়েছে তার। অস্কারের মতে, তিন দলের মধ্যে স্বাগতিক মোহনবাগান কঠিন পরীক্ষায় ফেলতে পারে কিংসকে।

ইনজুরিরর কারণে দলে নেই অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার তপু বর্মণ। ইরানের খালেদ শাফি, বিশ্বনাথ ঘোষ আর তারেক কাজীকে নিতে হবে ডিফেন্স সামলানোর মূল দায়িত্ব। এএফসি কাপে খেলা ৬ বিদেশির মধ্যে ৫ জনই ফরোয়ার্ড। তবে এই দল নিয়ে যে কোনও প্রতিপক্ষ মোকাবিলা সম্ভব বলে মনে করেন ব্রুজোন। তিনি বলেন, 'তপু মৌসুমের শুরু থেকে নেই। নুহা পেশিতে ব্যথা পেয়েছে। তবে নুহার ইনজুরি গুরুতর নয়। আশা করি, এএফসি কাপে তাকে আমরা পাব। অ্যাটাক আর ডিফেন্সে ভালো দল গড়েছি আমরা। সমস্যা হওয়ার কথা নয়। আপনি খেলায় করলে দেখবেন, আমরা বিপিএলে অনেক গোল করেছি। এতেই বোঝা যায় আমাদের টিম কম্বিনেশন ভালো। '

আগামী ১৮ মে মাজিয়ার বিপক্ষের ম্যাচ দিয়ে আসর শুরু করবে বসুন্ধরা। ২১ মে মোহনবাগান এবং ২৪ মে কেরালা গোকুলামের বিপক্ষে খেলবে অস্কার ব্রুজোনের শিষ্যরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২০ ঘণ্টা, মে ১৩, ২০২২
এআর/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa