ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৭ জিলহজ ১৪৪৩

ফুটবল

দামাসেনার জোড়া গোলে বসুন্ধরার জয়

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫৫ ঘণ্টা, মে ১২, ২০২২
দামাসেনার জোড়া গোলে বসুন্ধরার জয় ফাইল ফটো

টানা তৃতীয় লিগ শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে বেশ ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছে বসুন্ধরা কিংস। আজ বৃহস্পতিবার (১২ মে) রাজশাহীতে পুলিশ এফসিকে ২-১ গোলে হারিয়েছে অস্কার ব্রুজোনের শিষ্যরা।

বসুন্ধরার হয়ে জোড়া গোল করেছেন মিগেল দামাসেনা। পুলিশ এফসির হয়ে পেনাল্টি থেকে এক গোল শোধ করেন দানিলো আগুস্তো।

জয়-পরাজয় ছাপিয়ে আলোচনায় উঠে এসেছে পুলিশ এফসির ফুটবলার দানিলো আগুস্তোর মেজাজ হারানোর ঘটনা। ম্যাচ শেষের বাঁশি বাজানোর পরই মাঠ ত্যাগ করার পথে মেজাজ হারিয়ে বসুন্ধরা কিংসের ডাগআউটের দিকে তেড়ে যান আগুস্তো। পরে ম্যাচ অফিশিয়ালদের হস্তক্ষেপে ড্রেসিংরুমে নিয়ে যাওয়া হয় দানিলোকে। কিংসের বিপক্ষে ম্যাচে এর আগেও মেজাজ হারিয়েছেন দানিলো।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে ১৬ ম্যাচে ৪১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান সুসংহত করেছে বসুন্ধরা কিংস। ম্যাচে বাংলাদেশ পুলিশ এফসিকে ম্যাচে কার্যত লড়াই করারই সুযোগ দেয়নি বসুন্ধরা কিংস। ম্যাচের শুরু থেকে আত্মবিশ্বাসের ছাপ ছিল বসুন্ধরার খেলায়। পুরো ম্যাচেই পুলিশ এফসির বিপক্ষে চাপ ধরে রেখে খেলেছে অস্কার ব্রুজেনের শিষ্যরা। ম্যাচের মাত্র ১১ মিনিটেই মিগেল দামাসেনার গোলে এগিয়ে যায় বসুন্ধরা কিংস রবসন রবিনিওর যোগান দেয়া বলে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন এই ব্রাজিলিয়ান। এবারের আসরে ম্যাচের ১৫ মিনিটেই ৫ শতাংশ গোল করেছে বসুন্ধরা। ৭৫-৯০ মিনিটে ৩৩ শতাংশ গোল পেয়েছে তারা। এই ম্যাচেও প্রথমে গোল পেয়ে এগিয়ে যাওয়া কিংস পুরো ম্যাচেই অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠে।

প্রথম গোলের পর আক্রমণের ধার আরও বাড়ায় কিংস। স্রোতের বিপরীতে ২৩ মিনিটে কর্নার থেকে উড়ে আসা বল হেডে জালে জড়িয়েছিলেন ক্রিশ্চিয়ান কোয়াকু। তবে হেডের আগেই সোহেল রানাকে ফাউল করে বসেন তিনি। বল জালে জড়ানোর আগেই ফাউলের বাঁশি বাজান রেফারি। ফলে গোলের দেখা মেলেনি পুলিশের। পুরো ম্যাচে উল্লেখযোগ্য আর কোনও সুযোগ তৈরি করতে পারেনি পুলিশ এফসি।

ম্যাচের ২৯ মিনিটে আবারও দামাসেনা ম্যাজিক। দ্বিতীয় গোল করে দলের লিড দ্বিগুণ করেন এই ব্রাজিলিয়ান। এবারও গোলের যোগানদাতা রবসন। দলের অধিনায়কের মাইনাস করা বল রাশেদুল আলম মনির পায়ের নিচ দিয়ে চলে গেলে তা পেয়ে যান দামাসেনা। এই ব্রাজিলিয়ানের বটম কর্নারে নেয়া শটের কোনও জবাব ছিলো না পুলিশ এফসির গোলরক্ষক মোহাম্মদ রকির কাছে। প্রথমার্ধে আরও বেশ কয়েকটি গোলের সুযোগ তৈরি করলেও ব্যাবধান বাড়াতে পারেনি বসুন্ধরা। ফলে ২-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় অস্কার ব্রুজনের শিষ্যরা।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই সুমন রেজার বদলি হিসেবে সুপার সাব এলিটা কিংসলেকে মাঠে নামান অস্কার ব্রুজন।  শুরু থেকেই পুলিশের রক্ষনে চাপ ধরে রেখে খেলে বসুন্ধরা। দ্বিতীয়ার্ধে মেজাজ হারিয়ে বেশ কয়েকটি ফাউল করে বসেন পুলিশের ফুটবলাররা। দলের অধিনায়ক রবসন রবিনিওকে ফাউল করলেও খেলা চালিয়ে যাওয়ার বাঁশি বাজান রেফারি। এরপর দলের জোরা গোল স্কোরার দামাসেনাকে ফাউল করে বসেন প্রথমার্ধে হলুদ কার্ড দেখা মোনায়েমে খান রাজু। ফাউলের জোড়ালো আবেদন করলেও সাড়া দেননি রেফারি। দ্বিতীয়ার্ধে যেন ফাউলের পসরা সাজিয়ে বসেছিলেন পুলিশ এফসির ফুটবলাররা।

ম্যাচের ৮০ মিনিটে বল নিয়ে কিংসের ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন ক্রিশিয়ান কোয়াকু। তাকে পেছন থেকে বিশ্বনাথ ঘোষের ট্যাকলে ফাউলের বাঁশি বাজান রেফারি। পেনাল্টি থেকে গোল করতে ভুল করেননি ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার দানিলো আগুস্তো। দ্বিতীয়ার্ধে এই একটি মাত্র সুযোগই পেয়েছিল পুলিশ এফসি। যা কাজে লাগিয়ে ব্যবধান ঘুচিয়েছেন তারা। এই ম্যাচের তিনটি গোলই এসেছে ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারদের কাছ থেকে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫৩ ঘণ্টা, মে ১২, ২০২২
এআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa