ঢাকা, রবিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

ফুটবল

রিয়ালে যেতে না পেরে হতাশায় ছিলাম: এমবাপ্পে

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ৫, ২০২১
রিয়ালে যেতে না পেরে হতাশায় ছিলাম: এমবাপ্পে

এবারের গ্রীষ্মকালীন দলবদলে ইতিহাস গড়ে বার্সেলোনা থেকে পিএসজিতে পাড়ি জমালেন বিশ্বসেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি। জুভেন্টাস থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ফিরেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোও।

কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদে আসি আসি বলেও আসা হয়নি ফরাসি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপ্পের।

স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে খেলার স্বপ্ন অনেক আগে থেকেই বুনছিলেন এমবাপ্পে। কিন্তু সুযোগের অভাবে পিএসজি ছাড়তে পারেননি তিনি। গ্রীষ্মের দলবদলে লস ব্লাঙ্কোসরা তাকে পাওয়ার জন্য অবশ্য কম চেষ্টা করেনি। পরপর তিনটি বিশাল অঙ্কের প্রস্তাব পাঠিয়েছিল পিএসজির কাছে। কিন্তু ফরাসি এ তারকাকে ছাড়বেনা বলে নিজের অবস্থানে অনড় ছিলেন ক্লাবটির সভাপতি নাসের আল খেলাইফি।  

এ মৌসুমে এমবাপ্পেকে আটকে রাখলেও আগামী মৌসুমে চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়ার পর তাকে আর ধরে রাখতে পারবে না পিএসজি। কারণ গত মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদে আসার জন্য ফরাসি এ তারকা পিএসজিকে অবহিত করেননি শুধু বরং সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে আসতে না পেরে হতাশায় ডুবেছিলেন তিনি। ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যম আরএমসি স্পোর্ট ও লেকিপেতে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বিষয়টি জানান তরুণ এ ফরোয়ার্ড।

এমবাপ্পে বলেন, ‘এ গ্রীষ্মে আমি যদি (পিএসজি) ছেড়ে যেতাম, তাহলে শুধুমাত্র রিয়াল মাদ্রিদের জন্যই যেতাম। আমি ভেবেছিলাম, এখানে আমার অভিযানের সমাপ্তি ঘটেছে। তাই আমি নতুন কিছু চেয়েছিলাম। আমি লিগ ওয়ানে ছয় বা সাত বছর (৬ বছর) ধরে খেলছি, পিএসজিকে নিজের সর্বোচ্চটা দিয়েছি এবং ভালো করেছি। তাই আমার মনে হয়েছিলো, চলে যাওয়াটাই যৌক্তিক। ’

এমবাপ্পের রিয়াল মাদ্রিদে পাড়ি জমানোর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় বাধাঁ ছিল পিএসজি সভাপতি নাসের আল খেলাইফি। তার সিদ্ধান্তের কারণে প্যারিস থেকে নড়তে পারেননি তরুণ এ ফরোয়ার্ড। আর লস ব্লাঙ্কোস শিবিরে যোগ দিতে না পেরে হতাশায় ভুগেছিলেন বলে স্বীকার করেছেন এমবাপ্পে।

সময়টা খুব কঠিন উল্লেখ করে এমবাপ্পে বলেন, ‘আমি তখন হতাশায় ভুগেছিলাম। কেউ যখন চলে যেতে চেয়েও যেতে পারে না তখন আর ভালো লাগার কিছু থাকে না। কিন্তু খুব তাড়াতাড়ি আমি খারাপ সময়টা কাটিয়ে উঠেছি। এরপর দুর্ভাগ্যবশত আমি জাতীয় দলের হয়ে খেলার সময় চোটে আক্রান্ত হই। যে কারণে আমি বাড়ি ফিরে গিয়েছিলাম। আর তখন কোনো খেলা না থাকায় কান্নাও করেছি আমি। তারপর আমি আবারও (ক্লাবে) ফিরে এসে গোল করি এবং ভালো করতে থাকি। ’

রিয়ালে যোগ দিতে না পেরে হতাশায় থাকলেও পিএসজিকে কষ্ট দিতে চাননি এমবাপ্পে। যে ক্লাবে এসে তিনি বিশ্বের কাছে নিজেকে চিনিয়েছেন সে ক্লাবকে কখনোই কষ্ট দিতে চাননি ফরাসি এ ফরোয়ার্ড। আর বর্তমানে পিএসজির হয়েই ভালো খেলে যেতে চান বলে বক্তব্য শেষ করেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৫, ২০২১
আরইউ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa