ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২৩ শাবান ১৪৪৫

ফুটবল

মোনেম মুন্নাকে নিয়ে সানজিদার আবেগঘন স্ট্যাটাস

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
মোনেম মুন্নাকে নিয়ে সানজিদার আবেগঘন স্ট্যাটাস

১৯ বছর আগে এই দিনে পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে পরলোকে পাড়ি জমান মোনেম মুন্না। বাংলাদেশ এবং ভারতে সমানভাবে জনপ্রিয় ছিলেন এই তারকা।

খেলেছেন ভারতের ঐতিহ্যবাহী ক্লাব ইস্টবেঙ্গলের হয়ে। বর্তমানে ইস্ট বেঙ্গলের হয়ে খেলছেন বাংলাদেশের নারী ফুটবলার সানজিদা আক্তার। মোনেম মুন্নার মৃত্যুবার্ষিকীতে এক আবেগঘণ স্ট্যাটাস দিয়েছেন সানজিদা।

ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের নারী দলে প্রথম বিদেশি হিসেবে খেলছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের রাইট উইঙ্গার সানজিদা আক্তার। লাল-হলুদ জার্সিতে এরই মধ্যে তিনটি ম্যাচ খেলা হয়ে গেছে সানজিদার।

কলকাতার মাঠে কিকস্টার্টের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক গোল করে আলোচনায় এসেছেন সানজিদা। কলকাতা যাওয়ার পর সানজিদা দেখেছেন এখনো ওই শহরে কত জনপ্রিয় মোনেম মুন্না। ক্লাব প্রাঙ্গনে সাজিয়ে রাখা মুন্নার প্রতিকৃতির পাশে দাঁড়িয়ে ছবি তুলে নিজেদের ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছিলেন সানজিদা। আজ (১২ ফেব্রুয়ারি) তার মৃত্যুবার্ষিকীতে দিয়েছেন আবেগঘন এক স্ট্যাটাস।

বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য সানজিদার সেই স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো। “‌He was mistakenly born in Bangladesh.” কথাটি বলেছিলেন জার্মান কোচ অটো ফিস্টার। যাকে ঘিরে এই ভারি কথাটি বলেছিলেন তিনি মুনেম মুন্না। বাংলাদেশের মানুষ যাকে "কিং ব্যাক" নামে চেনে। আজ উনার মৃত্যুবার্ষিকী। মাত্র ২০ বছর বয়সে জাতীয় দলে অভিষেক হয়ে সাফ রানার্স আপ সহ দেশের হয়ে প্রথম আন্তর্জাতিক শিরোপা অর্জন করেছিলেন। রেকর্ড ব্রেকিং ট্রান্সফার, ফুটবল মাঠ থেকে বিজ্ঞাপন, দেশের বাইরের ক্লাবে এসে সুখ্যাতি অর্জন সবই করেছেন তিনি। অল্পদিনের মধ্যেই এতকিছু অর্জন করে অসুস্থতাজনিত কারনে মাত্র ৩১ বছর বয়সে ফুটবল কে বিদায় জানান এবং ৩৮ বছর বয়সে দুনিয়াকে বিদায় জানান। খুব দ্রুত চলে যাবেন বলেই হয়তো সুখ্যাতি, জনপ্রিয়তা, ট্রফি সহ সবকিছু অর্জন করতে বড্ড তাড়াহুড়ো ছিলো উনার। ইষ্ট বেঙ্গল ক্লাবে এসে যখন উনার ছবি দেখেছিলাম, তখন খুব গর্বিত হয়েছি। আমার অগ্রজ, আমাদের হিরো, তিনি একান্তই আমাদের। দেশের এরকম সূর্যসন্তানদের স্মৃতি যথাযথভাবে ধরে রাখা এবং অক্ষুণ্ণ রাখার ব্যবস্থা থাকা উচিত বলে মনে করি। পাইওনিয়ারে শান্তিনগর ক্লাবের হয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা এই কিংবদন্তি হয়তো কিছুটা হলেও এতে শান্তি পাবেন। অগ্রজদেরকে সম্মানিত করা এবং স্মরণ করার রীতি থেকে আমরা সরে গেলে, অদূর ভবিষ্যতে আমরাও পরবর্তী প্রজন্মের নিকট কিছু আশা করতে পারি না। আল্লাহ তায়ালা, উনাকে জান্নাতবাসী করুন। আমিন। ”

মুন্নাকে নিয়ে স্ট্যাটাস দিয়েছে ইস্ট বেঙ্গল ক্লাবও। ইস্টবেঙ্গল ক্লাব সোমবার তাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে মুন্নার মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণ করে লিখেছে ‘মনে মুন্না’। অর্থাৎ ভারতের ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটির কর্মকর্তা-সমর্থকদের হৃদয়ে এখনো অম্লান মোনেম মুন্নার নামটি।

‘আমাদের প্রাক্তন ডিফেন্ডার মোনেম মুন্নার ১৯তম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাকে আমরা স্মরণ করছি। বাংলাদেশের সাবেক এ অধিনায়ককে বলা হতো 'কিং ব্যাক'। তিনি তিনবার আমাদের ক্লাবে প্রতিনিধ্ত্বি করেছেন (১৯৯১-৯২, ১৯৯৩-৯৪ ও ১৯৯৫-৯৬)। তিনি অত্যন্ত দর্শকপ্রিয় ছিলেন’-লিখেছে ইস্টবেঙ্গল।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
এআর/আরইউ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।