ঢাকা, সোমবার, ২ বৈশাখ ১৪৩১, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ শাওয়াল ১৪৪৫

ফুটবল

মৌসুম শেষে লিভারপুল ছাড়বেন ক্লপ

স্পোর্টস ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২৪
মৌসুম শেষে লিভারপুল ছাড়বেন ক্লপ

চলতি মৌসুমের শেষে লিভারপুলের কোচ পদ ছাড়বেন ইয়ুর্গেন ক্লপ। এর কারণ হিসেবে তিনি 'ক্লান্তি'-কে দায়ী করেছেন।

আজ অলরেডদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিজেই বিষয়টি জানিয়েছেন ক্লাবটির এই জার্মান কোচ। তিনি বলেন, 'গত নভেম্বরেই লিভারপুলকে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে রেখেছি। আমি জানি এই মুহূর্তে এই খবরে অনেকে অবাক হবেন। তবে আমি এটা ব্যাখা করতে পারি। '

'আমি ক্লাব এবং শহরের সবকিছুকে ভালোবাসি। আমি এর সমর্থকদের ভালোবাসি। আমি এই দল, স্টাফ এবং সবকিছুকে ভালোবাসি। কিন্তু তারপরও এই সিদ্ধান্ত নেওয়া দেখে বুঝতেই পারছেন, অনেক ভেবেচিন্তেই নিয়েছি। আমার লড়াইয়ের শক্তি ফুরিয়ে গেছে। তবে এখন কোনো সমস্যা নেই। ' 

'কিন্তু অনেকদিন আগে থেকেই আমি জানতাম যে, এটার (বিদায়) ঘোষণা একসময় দিতেই হবে। তবে এখন আমি একদম ঠিক আছি। আমি জানি, এই কাজটা আমি বার বার করে যেতে পারবো না। এত বছর একসঙ্গে কাটানোর পর এবং এতকিছুর ভেতর দিয়ে যাওয়ার পর; যে পারস্পরিক সম্মানের জায়গা তৈরি হয়েছে- তাতে সত্যটা জানানো উচিত। এবং এটাই সত্য। '

২০১৫ সালের অক্টোবরে লিভারপুল বসের দায়িত্ব নিয়েছিলেন ক্লপ। তার চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০২৬ সালে। কিন্তু এক বছর আগেই সরে দাঁড়াচ্ছেন তিনি।  

ক্লপের অধীনে ৩০ বছর পর ২০১৯-২০ মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা ঘরে তুলেছিল লিভারপুল। ২০১৮-১৯ মৌসুমে তার অধীনে চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতে ইংলিশ জায়ান্টরা। তার সময়ে সম্ভাব্য সব বড় শিরোপার স্বাদই পেয়েছেন লিভারপুল।  

২০১৯ সালে মাদ্রিদে টটেনহামকে হারিয়ে ক্লপের শিষ্যরা ক্লাবের ইতিহাসে ষষ্ঠ ইউরোপিয়ান শিরোপা (চ্যাম্পিয়নস লিগ) জেতে। এরপর উয়েফা সুপার কাপ এবং ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপাই ঘরে তোলে তারা। পরের বছর আসে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপাও।

২০২১-২২ মৌসুমে ঘরোয়া ডাবল জিতে নেয় লিভারপুল। তবে অল্পের জন্য প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা হাতছাড়া হয়। শেষ দিনে সামান্য পয়েন্টের ব্যবধানে সেবার লিগ সেরা হয় ম্যানচেস্টার সিটি। একই মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে উঠেছিল লিভারপুল। কিন্তু প্যারিসের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হেরে যায় তারা।  

গত মৌসুমে বড় কোনো শিরোপা জেতা ছাড়াই কাটে লিভারপুলের। তবে এবার চারটি শিরোপার অন্যতম দাবিদার তারা। এই সেদিন কারাবো কাপের ফাইনালে পা রেখেছে দলটি। প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষেও আছে তারা। দুইয়ে থাকা সিটির চেয়ে তারা এখনও ৫ পয়েন্ট এগিয়ে।  

হয়তো লিভারপুলে নিজে শেষটা রাঙিয়ে দিয়ে যেতে চাইবেন ক্লপ। যে রঙে তিনি সাজিয়েছিলেন লিভারপুলের ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ড। এমনকি দলের খেলোয়াড়দের চেয়েও বড় তারকা হয়ে উঠেছিলেন ক্লপ। ক্লাবের সমর্থকদের কাছ থেকে অকৃত্রিম ভালোবাসা যেমন পেয়েছেন, আবার ঠিকঠাক প্রতিদানও দিয়েছেন তিনি। তাকে ঘিরে লিভারপুল সমর্থকদের উন্মাদনা ছিল চোখে পড়ার মতো।

গত কয়েক মৌসুমে লিভারপুলের সমার্থক হয়ে উঠেছিলেন ক্লপ। তার হাত ধরে বিশ্বসেরা ক্লাবে পরিণত হয়েছিল ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি। তার হাত ধরে তারকা হয়েছেন মোহামেদ সালাহ, সাদিও মানে, ভার্জিল ফন ডাইক, ট্রেন্ট অ্যালেকজান্ডার-আরনল্ড, দারউইন নুনেজের মতো ফুটবলাররা। সবমিলিয়ে ক্লাবটির ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার পাশাপাশি নিজেকে তাদের ইতিহাসের অবিচ্ছেদ্য অংশ বানিয়ে ফেলেছিলেন ক্লপ।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০২৪
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।