ঢাকা, রবিবার, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ শাবান ১৪৪৫

ফুটবল

বিশ্ব ফুটবলের ‘শাসক’ মেসি!

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩৯ ঘণ্টা, মার্চ ২৮, ২০২৩
বিশ্ব ফুটবলের ‘শাসক’ মেসি!

বিশ্বকাপ জেতার পর আর্জেন্টিনা দলের বেশিরভাগ সময়ই কাটছে সংবর্ধনা ও সম্মাননায়। এবার তাদের সংবর্ধনা দিল লাতিন আমেরিকার ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন কনমেবল।

সেখানে লিওনেল মেসিকে বিশ্ব ফুটবলের ‘শাসক’ ঘোষণা করেছেন কনমেবলের প্রেসিডেন্ট আলেহান্দ্রো দমিনগেস।  

শুধু তা-ই নয় মেসির ভাস্কর্য তৈরি করেছে কনেমেবল। যেখানে বিশ্বকাপ ট্রফি হাতে দাঁড়িয়ে রয়েছে মেসির প্রতিকৃতি। সেটাও পেলে ও ম্যারাডোনার মতো কিংবদন্তি ফুটবলারদের পাশে। ভাস্কর্যটি থাকবে কনমেবলের জাদুঘরে। মেসির হাতে একটি ব্যাটন তুলে দিয়ে কনমেবল প্রেসিডেন্ট  বলেন, ‘দক্ষিণ আমেরিকা ও বিশ্ব ফুটবলের নামে আজ বিশ্ব ফুটবলের নেতৃত্ব ও শাসনভার তোমার হাতে তুলে দিলাম। ’

এমন সম্মান পেয়ে উচ্ছ্বসিত মেসি। কখনো এমন কিছু কল্পনা করেননি। তবে তার পায়ের জাদুর কাছে সব অর্জনই যেন কম হয়ে যায়। মেসি বলেন, ‘আমি কখনোই এমন কিছুর স্বপ্ন দেখিনি বা ভাবতে পারিনি। আমার স্বপ্ন ছিল পছন্দের কাজটি (ফুটবল খেলা) স্রেফ উপভোগ করা এবং যখন ছোট ছিলাম, চাওয়া ছিল পেশাদার ফুটবলার হওয়া, জীবনে যেটিকে ভালোবেসেছি, সেটিকেই পেশা হিসেবে নেওয়া। ’

‘ঈশ্বরকে ধন্যবাদ, ফুটবল ক্যারিয়ারে সবই অর্জন করতে পেরেছি আমি। এত সুন্দর উপহার দেওয়ার জন্য আমার সব সতীর্থদের ধন্যবাদ জানাই। কনমেবলকেও ধন্যবাদ জানাচ্ছি। খুবই বিশেষ আর দারুণ মুহূর্ত কাটাচ্ছি আমরা, অনেক অনেক ভালোবাসা পাচ্ছি। লাতিন আমেরিকান কোনো দেশের বিশ্বকাপ জেতার সময়ই ছিল এটা। ’
 
মেসির সফলতার পথটি ছিল বন্ধুর। একটা সময় মনে হচ্ছিল জাতীয় দল তার জন্য নয়। তবে ধীরে ধীরে সেই তকমা ঘুচিয়ে ফেলেন তিনি। বিশ্বকাপ জিতে মুছে দেন নিজের ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় অপূর্ণতাও।

তিনি বলেন, ‘অনেক লম্বা পথ পাড়ি দিতে হয়েছে আমাকে। সেই পথে অনেক মোড় এসেছে, পরাজয় এসেছে। তবে আমি সবসময় সামনে তাকিয়েছি এবং সাফল্য অর্জন করতে চেয়েছি, বিজয় চেয়েছি। আমার মনে হয়, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার এটিই, স্বপ্নকে তাড়া করা, সবকিছুকে সম্ভব করতে লড়াই করা এবং খেলা উপভোগ করা, যেটি সবচেয়ে সুন্দর। ’ 

এদিকে কাতার বিশ্বকাপ জিতে ৩৬ বছর পর শিরোপা খরা ঘুচায় আর্জেন্টিনা।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৯ ঘণ্টা, মার্চ ২৮, ২০২৩
এএইচএস
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad