ঢাকা, বুধবার, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭ শাবান ১৪৪৫

ফুটবল

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই কোয়ার্টার ফাইনালে বসুন্ধরা কিংস

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২৩
গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই কোয়ার্টার ফাইনালে বসুন্ধরা কিংস ফাইল ফটো

ফেডারেশন কাপে চট্টগ্রাম আবাহনীকে ২-০ গোলে হারিয়েছে বসুন্ধরা কিংস। আগেই কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করা বসুন্ধরা এই জয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই পরের রাউন্ডে নাম লেখালো।

তবে হারলেও গ্রুপ রানার্সআপ হিসেবে কোয়র্টারে উঠেছে চট্টগ্রাম আবাহনী।

এবারের মৌসুমে অপ্রতিরোধ্য বসুন্ধরা কিংস। ফেডারেশন কাপ এবং প্রিমিয়ার লিগে তাদের জয়রথ ছুটছেই। টানা তিন জয়ে ৯ পয়েন্ট নিয়ে ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হলো তারা। ফর্টিসকে ২-০ গোলে হারিয়ে প্রতিযোগিতা শুরুর পর দ্বিতীয় ম্যাচে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রের বিপক্ষে ৪-৩ ব্যবধানে জিতেছিল অস্কার ব্রুজোনের দল।  

আজ ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে বসুন্ধরা। তবে গোলের দেখা মিলছিল না। এর কৃতিত্ব অবশ্য চট্টগ্র্রাম আবাহনীর গোলরক্ষক সাইফুল ইসলামকেই দেয়া যায়। ম্যাচের চতুর্থ মিনিটে রবসন রবিনহোর ফ্রি কিক ঝাঁপিয়ে ঠেকান সাইফুল। দুই মিনিট পর ইয়াসিনের কাটব্যাকে মিগেল দামাসেনার শট বাইরে দিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর রুস্তম ইসলাম ভুল পাসে বল তুলে দেন দামাসেনার পায়ে। হঠাৎ সুযোগ পেয়ে খেই হারিয়ে ফেলেন এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। তার দুর্বল শট আটকান সাইফুল।

ম্যাচের ৪০ মিনিটে ডেডলক খোলেন তপু বর্মণ। রবিনহোর শট পোস্টে লেগে ফিরে আসলে এক ডিফেন্ডারের মাথায় লেগে কর্নার হয়। ৪০তম মিনিটে রবিনহোর কর্নার দূরের পোস্টে ইয়াসিন আরাফাতের হেড পাসের পর হেডেই লক্ষ্যভেদ করেন তপু।

এরপর বক্সে রবিনহোকে আটকাতে গিয়ে হাতে বল লাগিয়ে বসেন মোহাম্মদ রকি। ফলে পেনাল্টি পায় বসুন্ধরা। বলের লাইনে ঝাঁপিয়েও দামাশেনোর শট ঠেকাতে পারেননি সাইফুল। চলতি ফেডারেশন কাপে গোলের খাতা খুললেন এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। আর তাতে সহজ জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে কিংস।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০২৩
এআর/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।