ঢাকা, সোমবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ০১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

ফিচার

হেমন্তের সকালের স্নিগ্ধ শিউলি ফুল

শোয়েব মিথুন, সিনিয়র ফটো করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭১৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০২১
হেমন্তের সকালের স্নিগ্ধ শিউলি ফুল ছবি: শোয়েব মিথুন

ঢাকা: শিশির ভেজা সকালে ঝরে থাকা শিউলি ফুল অপূর্ব সুন্দর দৃশ্য তৈরি করে। শিউলি ফুলকে কখনো কখনো 'দুঃখের বৃক্ষ' বলা হয়।

কারণ দিনের আলোতে এ ফুল তাদের উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলে। শিউলি কেবল কবিদেরই বিমুগ্ধ করেনি, যুগে যুগে তার অসংখ্য মুগ্ধ অনুরাগীও তৈরি হয়েছে।

শিউলি ফুল, অনেকে একে শেফালী নামেও ডাকে। এই ফুলের প্রধান বৈশিষ্ট হলো এটি রাতে ফুটে সকালেই ঝরে যায়। রেখে যায় সুগন্ধ আর রেশ।  লাল আর হলুদের মিশ্রণ যখন সাদা রঙের ফুলের ভেতর উকি দেয় সূর্যের মতো, তখন সূর্যের মিষ্টি আলোতে ভরে উঠে শিউলী তলা। স্নিগ্ধতায় ভরে ওঠে পুরো সকাল।

সবুজ পাতার মধ্যে এক-একটি শিউলী ফুল ভালোবাসা ছড়িয়ে দেয় সৌন্দর্যের। ফুলের কলিরা তখন আড়মোড়া ভাঙে নতুন দিনের অপেক্ষায়।

শুধু শিশুরা নয়, বরং সকল মানুষের পাশাপাশি শিউলী ফুল প্রিয় অনেক মৌমাছি আর অন্যান্য পাখিদেরও। তাইতো তারাও ভিড় জমায় শিউলী তলায়।

শিউলী ঝরা সময় এলেই শরৎ শেষ লগ্ন আর হেমন্তের আগমনী বার্তা। একদিকে যেমন নবান্নের ডাক, তেমনি শীতের আগমনীও এই শিউলী ফুল।

বাংলাদেশ সময়: ০৭১৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০২১
এইচএমএস/কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa