ঢাকা, সোমবার, ১০ কার্তিক ১৪২৭, ২৬ অক্টোবর ২০২০, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ফিচার

২০২১ বইমেলার জন্য প্রকাশকদের আগ্রহপত্র আহ্বান

ফিচার রিপোর্টার | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৪৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০
২০২১ বইমেলার জন্য প্রকাশকদের আগ্রহপত্র আহ্বান বাংলা একাডেমি

ঢাকা: ২০২১ সালের অমর একুশে গ্রন্থমেলায় অংশগ্রহণের জন্য প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে প্রাথমিক আগ্রহপত্র আহ্বান করেছে বাংলা একাডেমি। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) প্রকাশিত বাংলা একাডেমির এক বিজ্ঞপ্তিতে এই আহ্বান জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে স্বাক্ষর করেছেন অমর একুশে বইমেলা ২০২১ পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব এবং বাংলা একাডেমির পরিচালক ড. জালাল আহমেদ।

প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকে প্রাথমিক আগ্রহপত্র আহ্বান করা হলেও এ বছর প্রাথমিকভাবে নতুন কোনো প্রতিষ্ঠানকে স্টল দেওয়া হচ্ছে না। ২০২০ সালের বই মেলাতে যেসব প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে, তাদের মধ্য থেকেই প্রাথমিক বাছাই করা হবে এবারের বইমেলার অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো। এছাড়া গুরুত্বারোপ করা হয়েছে পুরো বইমেলাজুড়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাতেও।

এসব বিষয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলা একাডেমি অমর একুশে স্মরণের অংশ হিসেবে প্রতি বছর অমর একুশে বইমেলার আয়োজন করে থাকে। এবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তিতে বইমেলার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। কিন্তু করোনা-পরিস্থিতিতে বহু দিক বিবেচনা করে বাংলা একাডেমিকে বইমেলা আয়োজনের দিকে অগ্রসর হতে হচ্ছে। ইতোমধ্যে একাডেমি প্রকাশকদের দুটি সমিতি ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে এ-বিষয়ে আলোচনা করেছে। প্রকাশকদের সমিতির পক্ষ থেকে প্রতি বছরের মতো এবারও বইমেলা আয়োজনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তবে তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন।

এবার কোনো প্রতিষ্ঠান বর্ধিত আকারের স্টলের জন্য আবেদন করতে পারবে না। তবে চাইলে স্টলের আকার কমাতে পারবে। আর অনিবার্য কারণে বইমেলা যেকোনো পর্যায়ে স্থগিত বা বাতিল হলে বাংলা একাডেমিকে দায়ী করা যাবে না বলেও উল্লেখ করা হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

এতে বলা হয়, করোনা-পরিস্থিতি সম্পর্কে যেহেতু নিশ্চিতভাবে কিছু বলা যায় না, তাই সঙ্গতকারণেই বইমেলা সম্পর্কে সরকারের সামগ্রিক স্বাস্থ্যনীতির আলোকে গৃহীত ও প্রদত্ত সিদ্ধান্তের প্রতি সবাইকে সম্মান দেখাতে হবে। এই অবস্থায় গতবার বইমেলায় স্টল পাওয়া (প্রকাশনা, শিশু, সরকারি, বেসরকারি, মিডিয়া, গবেষণা) প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে যারা ২০২১ সালের বইমেলায় অংশগ্রহণ করতে চান তাদের প্রাথমিক আগ্রহপত্র জমা দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হলো। এবার কোনো প্রতিষ্ঠান বর্ধিত আকারের স্টলের আবেদন করতে পারবে না, তবে চাইলে স্টলের আকার কমাতে পারবে। অনিবার্য কারণে সরকারের বৃহত্তর স্বাস্থ্যনীতির স্বার্থে বইমেলা যেকোনো পর্যায়ে স্থগিত বা বাতিল হলে বাংলা একাডেমিকে দায়ী করা যাবে না।

আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বাংলা একাডেমির বইমেলা বিষয়ক ওয়েবসাইট (www.ba21bookfair.com) থেকে প্রাথমিক আগ্রহপত্র জমা দিতে হবে। এই আগ্রহপত্র পূরণ করে জমাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোই কেবল বইমেলায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে।

নতুন প্রকাশকরা ২০২১ বইমেলায় কেন অংশগ্রহণের সুযোগ পাচ্ছেন না, সে বিষয়ে জানতে চাইলে ড. জালাল আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, বইমেলার একটি পরিসর এবং বিস্তৃতির বিষয় রয়েছে। একইসঙ্গে এবার গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধির ওপর। তাই আমরা প্রাথমিক পর্যায়ে ২০২০ সালের বই মেলায় অংশ নেওয়া প্রকাশনীগুলোর আগ্রহ দেখতে চাইছি। তাদের আগ্রহপত্র জমা প্রদান শেষ হলে সেই সংখ্যার ওপর নির্ভর করবে নতুন প্রতিষ্ঠানের বিষয়টি। তবে আমরা সবসময়ই চাইব যেন নতুন প্রতিষ্ঠানও অংশগ্রহণের সুযোগ পায়।

প্রাথমিক আগ্রহপত্রের মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে বইমেলার আয়তন, স্টলের বিন্যাস ও স্বাস্থ্যবিধির জন্য অনুসরণীয় শর্তাদি যুক্ত করা হবে। এজন্য সবাইকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আগ্রহপত্র জমা দিতে অনুরোধ করা হয়েছে। আর ২০২১ সালের বইমেলায় কোনো প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ না করলে ২০২২ সালের আবেদনপত্র বিবেচনার সময় সেই প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ২০২০ সালের তথ্যাদির ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০
এইচএমএস/টিএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa