bangla news
ইতিহাসের এই দিনে

চিত্রশিল্পী আনোয়ারুল হকের প্রয়াণ

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৮ ১:৩০:৩৬ এএম
আনোয়ারুল হক।

আনোয়ারুল হক।

ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার আশীর্বাদ-অভিশাপ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সব সময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

১৮ নভেম্বর ২০১৯ সোমবার। ০৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরি। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এই দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৭২৭- মহারাজা দ্বিতীয় জয় সিং রাজস্থানের জয়পুর শহর পত্তন করেন। এ শহরের নকশা করেন বাংলার বিদ্যাধর চক্রবর্তী।
১৮৩৯- বিদেশি উপনিবেশবাদীদের বিরুদ্ধে আলজেরিয়ার জনগণের দ্বিতীয় দফা প্রতিরোধ যুদ্ধ শুরু হয়।
১৮৫৭- বাংলাদেশের চট্টগ্রামে ৩৪ দেশীয় পদাতিক বাহিনীর সিপাহি দল বিদ্রোহের মাধ্যমে ইংরেজদের বিরুদ্ধে স্বাধীনতা আন্দোলন শুরু হয়।
১৯০৩- যুক্তরাষ্ট্র ও পানামা প্রজাতন্ত্রের মধ্যে পানামা খাল চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।
১৯০৯- যুক্তরাষ্ট্র নিকারাগুয়ায় দু’টি যুদ্ধজাহাজ পাঠায়।
১৯১৮- সোভিয়েত রাশিয়া থেকে আলাদা হয়ে লাটভিয়া স্বাধীনতা ঘোষণা করে।
১৯৪৮- ভারতের পাটনার কাছে গঙ্গায় নৌকাডুবিতে ৫০০ যাত্রীর সলিল সমাধি।
১৯৫৬ - মরোক্কো স্বাধীনতা অর্জন করে।
১৯৬১- যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডি দক্ষিণ ভিয়েতনামে ১৮ হাজার সেনা পরিদর্শক পাঠান।
১৯৬৩- কর্নেল আবদুস সালাম আরেফ ইরাকের ক্ষমতা গ্রহণ করেন।
১৯৬৬- চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় উদ্বোধন করা হয়।

জন্ম
১৮৬১- মার্কিন সাংবাদিক ডরোথি ডিস্ক।
১৮৮৭- ফরাসি পদার্থবিজ্ঞানী ও চিত্রশিল্পী লুই দ্যাগাইর।
১৯৬৩- ড্যানিশ ফুটবলার পিটার স্মাইকেল।

মৃত্যু
১০৫৩- বৌদ্ধ ভিক্ষু ও বৌদ্ধধর্মপ্রচারক অতীশ দীপঙ্কর।
১৭৭৭- জার্মান নাট্যকার হিনরিখ ফন কিশের।
১৮৮৬- যুক্তরাষ্ট্রের ২১তম প্রেসিডেন্ট চেস্টার এ. আর্থার।
১৯২২- ফরাসি বুদ্ধিজীবী, ঔপন্যাসিক, প্রবন্ধকার ও সমালোচক মার্সেল প্রুস্ত্‌।
১৯৪১- নোবেলজয়ী জার্মান রসায়নবিদ হেরমান নের্নস্ট।
১৯৫২- ফরাসি কবি পল এল্যুয়ার।

১৯৮১- চিত্রশিল্পী আনোয়ারুল হক।

১৯১৮ সালের ১৮ জুলাই আফ্রিকার উগান্ডায় তিনি জন্মগ্রহণ করেন। আট বছর বয়সে তিনি কলকাতায় আসেন এবং ১৯৩৫ সালে কলকাতা আর্ট স্কুলে ভর্তি হন। তার পরিবারে ছবি আঁকা মোটামুটি নিষিদ্ধ থাকলেও, সব বাধা অতিক্রম করে তিনি চিত্রকলায় কৃতিত্বের পরিচয় দেন। ১৯৪৫ সালে সর্বভারতীয় শিল্পকলা প্রতিযোগিতায় জলরং চিত্রে তিনি শ্রেষ্ঠ শিল্পীর সম্মান লাভ করেন। ১৯৪৮ সালে তিনি ঢাকায় আসেন এবং শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন, শফিউদ্দিন আহমেদ, কামরুল হাসান প্রমুখের সম্মিলিত চেষ্টায় ঢাকায় গড়ে তোলেন শিল্প-শিক্ষাবিষয়ক প্রতিষ্ঠান ‘পূর্ব-পাকিস্তান সরকারি আর্ট ইনস্টিটিউট’ (বর্তমানে চারুকলা ইনস্টিটিউট)। প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকেই উক্ত প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এবং শিক্ষক হিসেবে সুনাম অর্জন করেন। জাতীয় জাদুঘর, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি, বঙ্গভবন, দিল্লি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, পাকিস্তান আর্ট কাউন্সিল প্রভৃতি প্রতিষ্ঠানে তার উল্লেখযোগ্য শিল্পকর্ম রয়েছে।

১৯৯১- চেকোসস্নাভ কমিউনিস্ট নেতা গুস্তাফ হুসাক।

বাংলাদেশ সময়: ০০৩০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
টিএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-18 01:30:36