ঢাকা, মঙ্গলবার, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৩ জুলাই ২০১৯
bangla news

বিলে বিলে শাপলা ফোটে

দেলোয়ার হোসেন বাদল, সিনিয়র ফটো করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১২ ৪:৩১:৫৫ পিএম
শাপলা সংগ্রহ। ছবি: ডিএইচ বাদল

শাপলা সংগ্রহ। ছবি: ডিএইচ বাদল

ঢাকা: বর্ষা-শরতে নদী-নালা, খাল-বিল, জলাশয় ও নিচু ফসলি জমিতে ফোটে শাপলা ফুল। লাল-সাদা শাপলা ফুল যেমন প্রকৃতিকে হাসায়, তেমনি হয়ে ওঠে অনেকের জীবিকা নির্বাহের মাধ্যম।

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান এলাকার দনিয়াপাড়ায়ও বর্ষা-শরতে আয়-রোজগারের প্রধান উৎস খাল-বিলে ফুটে থাকা শাপলা।বিল থেকে শাপলা সংগ্রহ করছেন একজন তরুণ। ছবি: ডিএইচ বাদলসকাল থেকে দলবেঁধে নৌকা নিয়ে এলাকার নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সবাই চলে যান দূরের বিলগুলোতে।শাপলা সংগ্রহ করে নৌকা বোঝাই করে ফিরছেন একজন তরুণ। শাপলা সংগ্রহ করে নিজের নৌকায় তুলে ফিরে আসেন। এরপর সেই শাপলা বিভিন্ন হাট-বাজারে বিক্রির জন্য পাঠানো হয়।শাপলা ফুল পরিষ্কার করা হচ্ছে।জানা যায়, সকাল ৯টা থেকে ১০টার মধ্যে সবাই শাপলাসহ নৌকাগুলো নিয়ে আসতে শুরু করে দনিয়াপাড়া খালের পাড়ে। এই পাড়ে ৪৫ বছর ধরে শাপলার হাট বসে। এই হাট সকাল ১০টার মধ্যেই ভেঙে যায়। সেই শাপলাই চলে যায় ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে।পরিষ্কারের পর আঁটি বাঁধা হচ্ছে।দনিয়াপাড়া এলাকার সুলতান ব্যাপারি বলেন, শাপলার জন্য এই হাট নিজস্ব ঐতিহ্য ধরে রেখেছে। আমাদের মুন্সিগঞ্জের কোথাও শাপলার হাট পাবেন না। পরিষ্কারের পর আঁটি বাঁধা হচ্ছে।বর্ষাকালে এই হাট ভালো জমে, কারণ কৃষিকাজ নেই, তাই বেকার নারী-পুরুষরা শাপলা ফুল তুলেই আয়-রোজগার করেন।পরিষ্কারের পর আঁটি বেঁধে উপরে তোলা হচ্ছে।শাপলা ফুল তুলে নিয়ে আসা শ্রমিক মিজান বলেন, শাপলা তুলে জীর্বিকা নির্বাহ করে প্রায় কয়েক হাজার মানুষ। তাই সবার উচিত শাপলা ফোটার পরিবেশ ধরে রাখা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৮ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০১৯
ডিএইচবি/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ফিচার
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

ফিচার বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-07-12 16:31:55