ঢাকা, রবিবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ আগস্ট ২০২২, ১৫ মহররম ১৪৪৪

ফিচার

তেলাপোকা থেকে নতুন রোবট ‘তেলাবট’!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৭
তেলাপোকা থেকে নতুন রোবট ‘তেলাবট’! ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: কল্পনা করুন ভয়ঙ্কর কোনো ভূমিকম্প হয়েছে, মানুষ আটকে পড়েছে ধ্বংসস্তূপে। আশায় আছে উদ্ধারকর্মীরা বা সাহায্যকারী কোনো কুকুর ঘ্রাণ শুঁকে খুঁজে বের করবে তাদের। এমন সময় উজ্জ্বল আলো জ্বেলে উদ্ধার করতে এলো তথ্য আদানপ্রদানের ক্ষমতা আছে এমন এক তেলাপোকা সদৃশ রোবট!

তেলাপোকার আদলে উদ্ধারকারী রোবট এখনও প্রস্তুত হয়নি, তবে যান্ত্রিক ‘তেলাবট’ বা ‘রোচবট’ (roachbot) নিয়ে ভাবছেন বিজ্ঞানীরা। বিরূপ পরিবেশে তেলাপোকার টিকে থাকার অসাধারণ ক্ষমতা ও দ্রুত চলাচল পদ্ধতি দেখে উৎসাহিত হয়েছেন রোবটবিজ্ঞানীরা।

এ থেকে তাদের মাথায় নতুন প্রজন্মের রোবট তৈরির আইডিয়া এসেছে। আর এ নিয়ে তারা কাজ করছেন।

এই ‘তেলাবটের’ কি তেলাপোকার মত ছয়টি পা থাকবে, নাকি চাকা থাকবে- এ বিষয়ে জার্মানির কোলন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ টম ওয়েইমান্ বলেন, চাকাচালিত যন্ত্র ব্যয়বহুল। আর এর দ্রুত আয়ুক্ষয়ও ঘটে। অতএব চাকা নয়, পা-অলা রোবটই অধিক কর্মক্ষম হবে বলে ধারণা। তাছাড়া এবড়োখেবড়ো, অসমান  ধ্বংসস্তূপের মধ্যে চাকার চেয়ে পা-ই বেশি কাজের হবে।

প্রাণীবিদ ওয়েইমানের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত এক গবেষণায় দেখা গেছে, দ্রুত দৌড়ানোর সময় তেলাপোকা তার চলনভঙ্গি পালটে ফেলে। এ সময় তারা তিন পায়ে ভর দিয়ে এগোয়। অর্থাৎ, সামনের বাঁ পা, মাঝের ডান পা, পেছনের বাঁ পা একসাথে মাটিতে ফেলে, এরপর বিপরীতের পাগুলো মাটিতে ফেলে ফেলে এগোয় সে। এভাবে ছয় পা নিয়ে দ্রুত এগিয়ে চলে।

ওয়েইমানের মতে, পায়ের এই বিশেষ ভঙ্গীই ‘তেলাবট’ উদ্ভাবন পরিকল্পনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। এই তেলাবট উদ্ভাবিত হলে মানুষ-যেতে পারে না-এমন বহু স্থানে অনায়াসেই খুদে এই তেলাবট যেতে পারবে। আর উদ্ধারকাজ চালানোও হয়ে যাবে সহজ।

বাংলাদেশ সময়: ১২৩১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭
এনএইচটি/জেএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa