bangla news

মোনালিসা যাবে বাপের বাড়ি!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৬-২৭ ৮:২৯:২৭ এএম

শিল্পবোদ্ধা থেকে সাধারণ মানুষ, মোনালিসাকে দেখছেন কিন্তু মুগ্ধ হননি, পৃথিবীতে এমন মানুষের দেখা মেলা সত্যিই দুষ্কর। এই অমর চিত্রকর্মটি এঁকেছিলেন ইতালির নামকরা শিল্পী লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি। যেহেতু ইতালির শিল্পী ইতালিতেই ছবিটি এঁকেছিলেন, সেহেতু এর পিতৃভূমি ইতালিই। কিন্তু হলে কী হবে, এই অমর মোনালিসা এখন আর তাদের অধিকারে নেই।

শিল্পবোদ্ধা থেকে সাধারণ মানুষ, মোনালিসাকে দেখছেন কিন্তু মুগ্ধ হননি, পৃথিবীতে এমন মানুষের দেখা মেলা সত্যিই দুষ্কর। এই অমর চিত্রকর্মটি এঁকেছিলেন ইতালির নামকরা শিল্পী লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চি। যেহেতু ইতালির শিল্পী ইতালিতেই ছবিটি এঁকেছিলেন, সেহেতু এর পিতৃভূমি ইতালিই। কিন্তু হলে কী হবে, এই অমর মোনালিসা এখন আর তাদের অধিকারে নেই। এটির মালিকানা বহুকাল ধরেই প্যারিসের লুভর মিউজিয়ামের। কিন্তু  চৌর্যবৃত্তির ফলে কীভাবে যেন প্যারিসের লুভর থেকে ছবিটি এসে পড়েছিল আবার ইতালিতেই। ইতালির ফ্লোরেন্সেই। সেটা ১৯১৩ সালের কথা। তারপর সেটা আবার ফিরে গিয়েছিল তার বর্তমান জায়গাতেই, লুভর মিউজিয়ামে।    

আর এখন সময় ২০১১। দু বছর পরে ২০১৩। ঝামেলাটা ২০১৩ সালকে  ঘিরেই। সে বছর ফ্লোরেন্সে মোনালিসাকে উদ্ধারের ১০০ বছর পূর্তি হবে। আর এই ১০০ বছরকে স্মরণ করে রাখতে চায় ফ্লোরেন্সবাসী। সেজন্য তারা চেয়েছে তাদের প্রিয় মোনালিসাকে। 

এজন্যই ফ্লোরেন্সের একটি দল জানিয়েছে, তারা লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চির মোনালিসাকে লুভর মিউজিয়াম কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে পেতে চায়। তবে একেবারেই নয়, ধার চায়। মানে, তারা চায় মোনালিসা কদিনের আসুক তার বাপের বাড়িতে।  ইতালির বার্তা সংস্থা আনসা শুক্রবার জানায়, ফ্লোরেন্সবাসীর পাশাপাশি ইতালির জাতীয় ঐতিহাসিক, সাংস্কৃতিক এবং পরিবেশবিষয়ক ঐতিহ্য কমিটি ১ লাখ লোকের স্বাক্ষর সংগ্রহ করারও উদ্যোগ নিয়েছে।

আবেদন আয়োজকদের মতে, লুভর মিউজিয়াম থেকে চুরির দুই বছর পর ১৯১৩ সালে ইতালির ফ্লোরেন্স নগরীতে মোনালিসাকে পাওয়া গিয়েছিল। ২০১৩ সালে মোনালিসাকে ফ্লোরেন্সে পাওয়ার একশত বছর পূর্তি হবে। একশত বছর পূর্তি উপলক্ষে  ফ্লোরেন্সবাসী একটি অনুষ্ঠান করতে চায়।

ওই কমিটির প্রেসিডেন্ট সিলভানো ভিনসেতি জানান, ২০১৩  সালে ফ্লোরেন্সে মোনালিসা উদ্ধারের ১০০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এর ফিরে  আসার যথেষ্ট সাংস্কৃতিক ও ঐতিহাসিক মূল্য রয়েছে।

 

তবে দু:খজনক ঘটনা হলো লুভর কর্তৃপক্ষ এ পরিকল্পনায় বাদ সেধেছে।  তাদের বক্তব্য,  ছবিটির ভঙ্গুর অবস্থার জন্য এটাকে নিয়ে যাওয়া বেশ কষ্টকর।

এখন দেখা যাক, ২০১৩ সাল পর্যন্ত কী ঘটে।

বাংলাদেশ সময় ১৮২০ ঘণ্টা, জুন ২৭, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2011-06-27 08:29:27