ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ ফাল্গুন ১৪২৭, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৩ রজব ১৪৪২

ফিচার

উইকিপিডিয়া

ভার্চুয়াল বিশ্বকোষের এক দশক

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০১১
ভার্চুয়াল বিশ্বকোষের এক দশক

একটা সময় ছিল যখন অনলাইন কোম্পানিগুলো জন্মের কিছুদিন পরেই হাওয়ায় মিলিয়ে যেত। এমনই এক সঙ্কটময় সময়ে জন্ম নেয় উইকিপিডিয়া, যা এখন পৃথিবীর সবচে জনপ্রিয় অনলাইন বিশ্বকোষ।

আজ যে কটি ওয়েবসাইট বিশ্ববাসীর জন্য অপরিহার্য, সেগুলোর মধ্যে নিঃসন্দেহে উইকিপিডিয়া অন্যতম। অথচ অনেক বাঘা বাঘা অনলাইন কোম্পানির কর্মকর্তাও একসময় এর সম্ভাবনার জায়গাটি কল্পনাও করতে পারেননি।

নির্ভরযোগ্য তথ্য সরবরাহকারী এই ওয়েবসাইটটির জন্ম হয়েছিল ১৫ জানুয়ারি। আজ থেকে ঠিক এক দশক আগে।

১৯৬৮ সালে ওয়াশিংটন রাজ্যে জন্ম নেওয়া আমেরিকান দার্শনিক ল্যারি স্যাঙ্গার তথ্য সম্পাদনার কাজ করতেন ‘ন্যুপিডিয়া’ নামের একটি তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইটে। দার্শনিক স্যাঙ্গার সবসময়ই মানতেন, বিশ্বকোষ প-িতদেরই বিষয়। তাই ‘ন্যুপিডিয়াতে’ খুব কঠোর নিয়ম মেনেই লেখা সম্পাদনার কাজ করতেন তিনি।

এদিকে, ১৯৬৬ সালে আলাবামা রাজ্যে জন্ম নেওয়া জিমি ওয়েলস চালাতেন বমিসডটকম নামের একটি অনলাইন পোর্টাল। খরচ তোলার জন্য তিনি বিনোদন ও খেলার খবরের পাশাপাশি ছাপতেন সুন্দরী নারীদের নগ্ন ছবি।

এই দুজনের যোগাযোগ হয় অনলাইনে এক দার্শনিক বিতর্কের মধ্য দিয়ে। এরপর ঘনিষ্ঠতা। অনেক আলোচনার পর উইকিপিডিয়ার জন্ম। আদরে ছোট হয়ে নাম হয়েছে উইকি। স্লোগান হলো ‘বিনামূল্যে বিশ্বকোষ, সবাই এর সম্পাদক’। ‘ন্যুপিডিয়া’ ছাড়লেন স্যাঙ্গার আর ওয়েলস ছাড়লেন ‘বমিসডটকম’। এভাবেই তারা হয়ে উঠলেন এই ভার্চুয়াল বিশ্বকোষটির যৌথ-জনক।

দার্শনিক স্যাঙ্গার কখনই ভাবতে পারেননি সর্বসাধারণ লিখবে বিশ্বকোষ। বেশ ধাক্কাই খেয়েছিলেন তিনি। যখন উইকির টেস্ট মিশন চলছিল তখন এক মাসে তারা পেলেন ৬০০ এন্ট্রি। ‘ন্যুপিডিয়া’র এই সাবেক সম্পাদক যেন আকাশ থেকে পড়লেন। আর বছর শেষে যখন ২০ হাজার এন্ট্রি হলো তখন আনন্দে দুজনেরই চোখ কপালে।

ওয়েবসাইটটি শুরুতে ইংরেজি ভাষায় হলেও এখন এখানে কাজ হয় ২৬২ ভাষায়। এন্ট্রি রয়েছে ১ কোটি ৭০ লাখের বেশি। প্রতিদিনই এখানে শত শত ভাষায় হাজার হাজার এন্ট্রি যুক্ত হচ্ছে। আর সবই করছেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের স্বেচ্ছাসেবীরা, কোনো বিনিময়মূল্য ছাড়াই।

বিশ্বকোষ বিষয়ে প্রচলিত ধারণা ভেঙ্গে উইকি এখন বিশ্বজুড়ে একটি অপরিহার্য ওয়েবসাইট। জ্ঞানের এক মহাসমুদ্র।

বাংলাদেশ সময় ০০৫৫, জানুয়ারি ১৪, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa