ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৮ জিলহজ ১৪৪২

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

সারি বেঁধে ছুট জেব্রাদলের, ময়ূরের ওড়াউড়ি

মো. রাজীব সরকার, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৩৩ ঘণ্টা, জুন ১৭, ২০২১
সারি বেঁধে ছুট জেব্রাদলের, ময়ূরের ওড়াউড়ি

গাজীপুর: ‘এখান থেকে ওখানে মনের আনন্দে সারি বেঁধে দৌড়াচ্ছে জেব্রাগুলো। আবার কখনো দেখা যাচ্ছে ঘন ঘন লেজ নাড়াচ্ছে আর ঘাস খাচ্ছে ওই প্রাণীগুলো।

আরেকটু এগোলে দেখা যাবে দলবেঁধে পোষা গরুগুলো সবুজ গাছের ছায়ায় বসে জাবর কাটছে ও কয়েকটি আবার দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ঘাস খাচ্ছে। বড়-ছোট গাছের ডালের বসে একটি আরেকটির সঙ্গে খুনসুটিতে মেতেছে বানারের দল। মনের আনন্দে পেখম তুলে ঘুরে ঘুরে নেচে নেচে বেড়াচ্ছে ময়ূরগুলো। কয়েকটি আবার একটি ডাল থেকে অন্য ডালে ওড়াওড়ি করছে। ময়ূরের ছানাগুলো দূর থেকে দেখলে মনে হবে মুরগির ছানাগুলো উঠানে ঘুরে বেড়াচ্ছে। সেখানে আছে হিংস্র বাঘ, সিংহ, ভাল্লুক, হরিণ, নানান প্রজাতির পশু-পাখি’। গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে গিয়ে এমন চিত্র দেখা গেছে। গাজীপুরের সদর ও শ্রীপুর উপজেলার অংশ নিয়ে ৩ হাজার ৬৯০ একর জমির ওপর ২০১৩ সালে গড়ে ওঠে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক। শুরু থেকেই সাফারি পার্ক ব্যাপক সাড়া ফেলে সারা দেশে। এ পার্কে রেকর্ডভুক্ত প্রায় ৭০ প্রজাতির বন্যপ্রাণী রয়েছে।

ওই পার্কে গিয়ে দেখা গেছে, আলাদা আলাদা বেষ্টনীতে প্রাণীগুলো ঘুরে বেড়াচ্ছে উন্মুক্ত স্থানে। কখনো কৃত্রিমভাবে তৈরি করা লেকে নেমে লাফালাফি করছে, কখনো বা গাছের ছায়ায় শুয়ে ও বসে আছে। যেখানে খুশি সেখানে ছুটাছুটি করছে এসব প্রাণীরা। বেশিরভাগ বন্যপ্রাণী দলবদ্ধভাবে ঘোরাফেরা করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। তাই জেব্রা, জিরাফ, বিভিন্ন প্রজাতির হরিণ, বানর, উটপাখি, হাতি, ময়ূর, বন গরু, পার্কে বনের ভেতর দলবেঁধে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তৈরি করা লেকগুলোতে উন্মুক্ত রয়েছে কুমির, কাছিম, জলহস্তি, গণ্ডার, রঙ্গিন মাছসহ বিভিন্ন বন্য প্রাণী। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের ভেতর উন্মুক্ত এসব প্রাণী দেখতে নিজেকে বন্দি করে নিতে হয় গাড়ির ভেতরে। পরে গাড়ি চলতে থাকে প্রাণীদের বিভিন্ন বেষ্টনীতে। এভাবেই গাড়ির ভেতর বন্দি থেকে উন্মুক্ত হিংস্র বাঘ, সিংহ, ভালুকসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী দেখা যায়। চিড়িয়াখানায় যেখানে পশুপাখি বন্দি থাকে খাঁচার ভেতর। আর এখানে দর্শনার্থীদের বন্দি থাকতে হয় গাড়ির ভেতর।  

এছাড়া কৃত্রিমভাবেও অনেক পশুপাখি এখানে বসবাস করতে শুরু করেছে। পার্কের একটি অংশ গহীন বন-জঙ্গলে ঘেরা। সেখানেই প্রাকৃতিকভাবে বসবাস করতে শুরু করেছে বিভিন্ন প্রজাতির পাখি ও বন্যপ্রাণীরা। মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে এখন গাজীপুরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্ক বন্ধ রয়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. তবিবুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে এখন পার্কটি বন্ধ রয়েছে। এর ফলে পার্কে এখন কোনো দর্শনার্থী নেই। বর্তমানে পার্কের পরিবেশটি বন্য প্রাণীদের জন্য খুবই উপযোগী। ফলে এসব প্রাণী নির্ভয় পার্কের বনের ভেতর ঘুরে বেড়াচ্ছে। প্রাণীগুলো দলবদ্ধভাবে ঘোরাফেরা করছে। এদের মধ্যে হরিণ, জেব্রা, জিরাফ, বানর ও হাতিসহ বিভিন্ন বন্যপ্রাণী। বেষ্টনীতে কাজ চলমান থাকায় বাঘ ও সিংহ বন্দি অবস্থায় রাখা হয়েছে। নিয়মিত এসব বন্য প্রাণীদের খাবার দেওয়া এবং যত্ন নেওয়া হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৭৩০ ঘণ্টা, জুন ১৭, ২০২১
আরএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa