ঢাকা, শুক্রবার, ৭ মাঘ ১৪২৮, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

আহত মুখপোড়া হনুমানটিকে বাঁচানো গেল না

ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩০, ২০২১
আহত মুখপোড়া হনুমানটিকে বাঁচানো গেল না  রশিদপুর বিট থেকে উদ্ধার করা মুখপোড়া হনুমান। ছবি: বাংলানিউজ

মৌলভীবাজার: সংকটাপন্ন অবস্থায় দারাগাঁও চা বাগানের হাতিমারা-রবইটিলা এলাকা থেকে একটি বিপন্ন প্রজাতির মুখপোড়া হনুমান উদ্ধার করে মিতা ফাউন্ডেশনের সদস্যরা।
 
শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে উদ্ধার করা হয়।

হনুমানটি উদ্ধার করার কিছুক্ষণের মধ্যেই সে মারা যায়।  
 
পরে বিষয়টি স্থানীয় সিলেট বন বিভাগের আওতাধীন কালেঙ্গা রেঞ্জের রেঞ্জ কর্মকর্তা খলিলুর রহমানকে জানালে তিনি রশিদপুর বিট কর্মকর্তা শহিদুল হকসহ আরো একজনকে ঘটনাস্থলে পাঠান।
 
মিতা ফাউন্ডেশন দাঁরাগাও চা বাগান কমিটির আহ্বায়ক রবি কস্তা জানান, হনুমানটি হাত ও পায়ে প্রচণ্ডভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। পায়ে ভর দিয়ে দাঁড়াবার চেষ্টা করলেও দাঁড়াতে পারছিল না। হাত-পায়ের ক্ষত স্থান দিয়ে মাছি উড়ছিল। কেউ হয়তো তাকে ইচ্ছাকৃতভাবে আঘাত করে মারাত্মক আহত করছে।   
 
রশিদপুর বিট কর্মকর্তা শহিদুল হক বাংলানিউজকে বলেন, হনুমানটি দুই হাত এবং দুই পা মারাত্মকভাবে আহত অবস্থায় পড়ে ছিল। গত ৩/৪ দিন যাবত সে কিছুই খায়নি। ফলে সে আরো বেশি দুর্বল হয়ে পড়ে। আমরা উদ্ধারের চেষ্টা করার সঙ্গে সঙ্গে সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। পরে তাকে মাটিচাপা দেওয়া হয়।
 
মুখপোড়া হনুমানকে ইংরেজিতে Capped Langur বা Capped Monkey বলা হয়। এদের বৈজানিক নাম Trachypithecus pileatus। এরা বানর প্রজাতির স্তন্যপায়ী বিপন্ন প্রাণী। গাছের পাতা, ফল-ফুল খেয়ে এরা জীবনধারণ করে। এদের লেজ অনেক লম্বা হয়।
 
বাংলাদেশ সময়: ২১৩০ ঘণ্টা,  এপ্রিল ৩০, ২০২১
বিবিবি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa